Main Menu

বিদেশ ভ্রমণপিপাসুদের জন্য সুখবর!

পর্যটন ডেস্ক: ভ্রমণ করতে কার না ভালো লাগে। দেশের পাশাপাশি বিদেশের সৌন্দর্যকে চোখ দিয়ে দেখতে চান অনেকেই। কিন্তু পাসপোর্ট আর ভিসা পাওয়ার ঝামেলাতে সে আশা যেন অনেকটাই ফিকে হয়ে যায়। তাদের জন্য রয়েছে সুখবর। কারণ বিশ্বে এমন কিছু দেশ রয়েছে যে দেশগুলোর দ্বীপ দেখতে কোনো ভিসার প্রয়োজন হয় না।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এই সময়ের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বের অনেক দেশই আছে, যেখানে ভিসা অন অ্যারাইভালের সুবিধা পাওয়া যায়। যার কারণে সেসব দেশে ভ্রমণের জন্য ভিসার প্রয়োজন হয় না। একইভাবে, পৃথিবীতে অনেক সমুদ্র সৈকত এবং দ্বীপ রয়েছে, যেখানে ভ্রমণের জন্য ভিসার প্রয়োজন নেই।

তাই আসুন জেনে নিই সেসব দেশের সমুদ্রসৈকত আর দ্বীপ সম্পর্কে। যেখানে ঘুরে আসতে চাইলে আপনার ভিসার কোনো ঝামেলাই নেই।

ফিজি: প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের এক অপরূপ লীলাভূমি এই দ্বীপরাষ্ট্রটি। অত্যাধুনিক স্পার ব্যবস্থা, সুস্বাদু খাবার আর অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টসের জন্য এই দ্বীপটি বেশ জনপ্রিয়। ভিসা ছাড়াই এখানে দিব্যি চারমাস কাটিয়ে দিতে পারবেন। তবে এর জন্য আপনাকে প্লেনের টিকিট, ব্যাংক রশিদ, হোটেলের কাগজপত্র এবং পাসপোর্ট কপি দেখালেই হবে। এখানে বলে রাখা দরকার, পাসপোর্টের মেয়াদ এখানে ছয় মাস হতে হবে।

তুভালু: গ্রীষ্মমন্ডলীয় মাছ, সামুদ্রিক কচ্ছপ, প্রবাল প্রাচীর, সুন্দর নীল সমুদ্র দেখতে পাড়ি জমাতে পারেন তুভালুতে। এখানে ঘোরার জন্য আপনি চাইলে পুরো এক মাসও থাকতে পারেন। ভিসার ঝামেলা থেকে বাঁচাতে এখানে আপনাকে যা দেখাতে হবে তা হলো পর্যাপ্ত অর্থ, হোটেলে থাকার প্রমাণ এবং একটি ছয় মাস মেয়াদি পাসপোর্ট।

ত্রিনিদাদ ও টোবাগো: সুন্দর এ দ্বীপটি গ্রেনাডার দক্ষিণ দিকে অবস্থিত। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে এখানেও আপনাকে ভিসার জন্য বাঁধার সম্মুখীন হতে হবে না। ৬ মাসের বৈধ পাসপোর্টের পাশাপাশি পর্যাপ্ত স্বাস্থ্য বীমা, বৈধ ট্রিপ টিকেট থাকলেই আপনি ঘুরে আসতে পারেন এখান থেকে।

মালদ্বীপ: ভৌগোলিক দিক দিয়ে বাংলাদেশের একটি কাছের দেশ মালদ্বীপ। এখানেও আপনি ভিসা ছাড়াই ভ্রমণের সুযোগ পাবেন। তবে ভিসা না লাগলেও আপনার একটি বৈধ পাসপোর্ট, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট স্টেটমেন্ট, যে হোটেলে অবস্থান করছেন তারও প্রমাণস্বরূপ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র থাকতে হবে।

মরিশাস: বিশ্বের অন্যতম একটি সুন্দর স্থানের নাম মরিশাস। সাদা বালির সৈকত, রোমাঞ্চকর হাইকিং, আদিম সৈকত এবং বিস্তৃত উদ্ভিদ ও প্রাণীজগৎ এই স্থানটিকে আরও দর্শনীয় করে তুলেছে পর্যটকদের কাছে। আপনি যদি এখানে বেড়ানোর পরিকল্পনা করে থাকেন তাহলে ভিসা ছাড়াই এদেশে ঘুরে আসতে পারেন। বৈধ ভিসায় আপনি এখানে ৯০ দিন পর্যন্ত থাকতে পারেন।

 

0Shares





Related News

Comments are Closed