Main Menu
শিরোনাম
শ্বনাথে শিক্ষিকার আত্মহত্যার ঘটনায় মামলা         সিলেট জেলায় আরও ৪৬ জনের করোনা শনাক্ত         সিলেটে পরিবহন নেতা ফলিক বহিষ্কার         ছাতকে রেলওয়ের নৈশপ্রহরী খুনের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩         শাবির ল্যাবে আরো ৩৮ জনের করোনা শনাক্ত         জগন্নাথপুরে তরুণীকে গনধর্ষণ, আটক ৪         কোম্পানীগঞ্জ থানার দুই পুলিশ কর্মকর্তা ক্লোজড         গোলাপগঞ্জে ভাদেশ্বর ইউপি চেয়ারম্যানকে বরখাস্ত         সিলেট বিভাগে আক্রান্ত বেড়ে ৫৫৭৩, মৃত্যু ৯৫         চুনারুঘাটে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে জরিমানা         জৈন্তাপুরে ৯৫০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ২         শায়েস্তাগঞ্জে ইউএনও করোনায় আক্রান্ত        

মোটর সাইকেলে মক্কার পথে ২ বাংলাদেশি তরুণ

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: বিমান নয়, মোটরসাইকেলে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবের উদ্দেশে যাত্রা করেছেন বাংলাদেশের দুই তরুণ। এই দুই তরুণের নাম আবু সাঈদ ও মাসদাক চৌধুরী।

তাদের একমাত্র উদ্দেশ্য– মক্কায় পবিত্র ওমরাহ পালন। মোটরসাইকেল চালিয়ে যথাক্রমে ভারত, পাকিস্তান ও ইরান হয়ে দুবাই পৌঁছবেন তারা। এরপর দুবাইয়ের শারজা থেকে সৌদি আরব প্রবেশ করবেন। সেখান থেকে পুণ্যভূমি মক্কায় যাবেন তারা। রোডম্যাপ অনুযায়ী, প্রায় ২০ হাজার কিলোমিটার পথ মোটরসাইকেল চালাতে হবে তাদের।

এ দীর্ঘ যাত্রা সম্পন্ন করতে দুই মাস সময় লাগবে বলে জানা গেছে। গত ৫ ডিসেম্বর বাংলাদেশি নম্বরবাহী মোটরসাইকেল নিয়ে মক্কার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন এ দুই তরুণ।

জানা গেছে, ফেনী জেলার বাসিন্দা সাঈদ ছোটবেলা থেকেই ভ্রমণপিপাসু। মোটরসাইকেল নিয়ে দেশের বিভিন্ন পর্যটন এলাকা ঘুরে বেড়িয়েছেন তিনি।

একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করতে গিয়ে বন্ধুত্ব হয় চট্টগ্রামের ছেলে মাসদাকের সঙ্গে। মাসদাকের রক্তও ভ্রমণের নেশাযুক্ত। অবসর পেলেই দুজনে মোটরসাইকেল নিয়ে বেরিয়ে পড়েন অজানার উদ্দেশ্যে।

এর আগে মোটরসাইকেল নিয়ে বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে ভারতে প্রবেশ করে কলকাতা, বেনারস, অমৃতসর, পাঞ্জাব ভ্রমণ করেছেন। তারা ওয়াগাহ সীমান্ত দিয়ে পাকিস্তানের লাহোর পর্যন্ত পৌঁছান। তবে বেশ কিছু দিন ধরে তারা পরিকল্পনা নিয়েছিলেন যে, আর কোথাও নয়; ওমরাহ পালনের উদ্দেশে মক্কা যাবেন তারা।

সূত্র জানায়, গত ৫ ডিসেম্বরে রওনা দিয়ে ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট ২৩ দিনে ৬ হাজার কিলোমিটার রাস্তা পাড়ি দিয়েছেন। এ দুই বাংলাদেশি পরিব্রাজক। বর্তমানে তারা লাহোর পার হয়ে করাচিতে অবস্থান করছেন। সেখান থেকে বেলুচিস্তান প্রদেশের রাজধানী কোয়েটা হয়ে পাকিস্তান-ইরানের সীমান্ত এলাকা তাফতান বর্ডার দিয়ে ইরানে প্রবেশ করবেন।

তবে তাফতান বর্ডার দিয়ে ইরানে প্রবেশ করতে পাকিস্তান সরকারের কাছ থেকে ট্রাভেলসংক্রান্ত অনুমতিপত্র সংগ্রহের কাজে সপ্তাহখানেক করাচিতে অবস্থান করতে হবে তাদের।

অনুমতি মিললেই ইরানে প্রবেশ করে সেখান থেকে তারা আরব উপদ্বীপের দক্ষিণ-পূর্ব কোনে অবস্থিত সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজায় পৌঁছবেন।

0Shares





Related News

Comments are Closed