Main Menu
শিরোনাম
সিলেটের ৬ উপজেলায় জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ বিতরণ         তাহিরপুর সীমান্তে ভারতীয় কয়লার চালান জব্দ         দিরাইয়ে জুমার নামাজে এসে মারা গেলেন মুসুল্লি         সিলেটে ডায়রিয়ার প্রকোপ, ৭ দিনে আক্রান্ত সাড়ে ৫শ’         কুলাউড়ায় স্কুল ছাত্রীকে গণধর্ষণ, আটক ২         পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশনের ত্রাণ বিতরণ         গোয়াইনঘাটে বন্যার্তদের মাঝে বিএনপির ত্রাণ বিতরণ         জিয়ার ৪১তম শাহাদাতবার্ষিকীতে সিলেটে বিএনপির ২দিনের কর্মসূচী         হবিগঞ্জে মন্ত্রীপরিযদ সচিব ও সাবেক তথ্য সচিব         দাউদপুর ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা         সিলেটে ভূমি নিয়ে বিরোধে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ২০         সিলেটে বন্যায় ক্ষতি ১১০০ কোটি টাকা, বেশি ক্ষতি সড়ক, কৃষি ও মাছের        

‘সম্পত্তির লোভে ছেলে-পুত্রবধূর ষড়যন্ত্রে দিশেহারা সৌদিফেরত জমসেদ আলী’

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: সম্পত্তির লোভে ছেলে-পুত্রবধূ মিলে জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে বলে দাবি করেছেন সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের পূর্ব মহিষখেড় গ্রামের মৃত সামাদ আলীর পুত্র মোহাম্মদ জমসেদ আলী। ৩৭ বছর পর সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরে নানামুখী ষড়যন্ত্রের মুখে পড়তে হয়েছে তাকে।

রোববার (১৬ জানুয়ারি) বিকেলে সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবি করেন তিনি।

জমসেদ আলী বলেন, ‘স্ত্রীর মৃত্যু ও বাড়িতে একা থাকায় আমি দ্বিতীয় বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হতে বাধ্য হই। এরপর থেকে অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে আমার পুত্রবধূ ফতেহপুর সপ্তমখন্ড গ্রামের মাহতাব উদ্দিনের মেয়ে মেহেরজাবিন মৌটুসী ও তার আত্মীয়-স্বজনরা মিলে আমার বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। সকল ষড়যন্ত্রের কারণ হল প্রবাসের কষ্টার্জিত অর্থ দিয়ে গড়া সম্পদ আত্মসাৎ করা, নিজেদের নামে লিখে নেওয়া। আমার বড় ছেলে রাইয়ানের স্ত্রী মৌটুসী আমার একমাত্র মেয়ে বুশরাকেও ভুলভাল বুঝিয়ে তাদের সাথে নিয়ে গেছে। সে সৌদি আরবে জন্মগ্রহণ করেছে। আমাকে অত্যন্ত ভালোবাসে সে। আমি দীর্ঘদিন বাড়িতে আমার মেয়েকে ছাড়া বসবাস করছি। আমি আমার মেয়েকে ফেরত চাই। তারা আমার শিশু মেয়ের ক্ষতিসাধন করতে পারে।’

লিখিত বক্তব্যে জমসেদ আলী আরও বলেন, ‘আমার বড় ছেলে রাইয়ান; সে বর্তমানে সৌদি আরব প্রবাসী। ছোট ছেলে এমরান জার্মান প্রবাসী। একমাত্র মেয়ে বুশরা দেশে আছে। আমার স্ত্রী বানেছা বেগম গত বছরের ৩ আগস্ট করোনাক্রান্ত হয়ে মারা যান। স্ত্রীর মৃত্যুর পরে আমার ছেলে রাইয়ান দেশে আসে। দেশে এসে তার স্ত্রী ও আমার একমাত্র মেয়েকে নিয়ে বাড়ি ছেড়ে সিলেট শহরে ভাড়া বাসায় চলে যায়। পরবর্তীতে আমি বাড়িতে এসে একা হয়ে যাই। তখন আমার দেখাশোনা এবং খাবার-দাবারের কথা চিন্তা করে এলাকাবাসী ও অন্য আত্মীয়-স্বজনদের পরামর্শে দ্বিতীয় বিয়ে করতে সম্মত হই। বিষয়টি আমার বড় ছেলে রাইয়ান জানতে পেরে আমাকে সাফ নিষেধ করে এবং প্রাণনাশের হুমকি দেয়। আমি তখন বলি তাহলে আমাকে এই বৃদ্ধ বয়সে কে দেখাশোনা করবে। কিন্তু সে কোনো উত্তর দেয়নি। সে আমার উপর ক্ষেপে যায়। দেশে থাকা তার স্ত্রী মৌটুসীও ক্ষোভ প্রকাশ করে খারাপ আচরণ করতে থাকে। পরে রাইয়ান তার স্ত্রীর পরামর্শ নিয়ে আমাকে বলে, দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাইলে তার নামে যেনো সকল সম্পত্তি দিয়ে নেই। এতে অপারগতা জানালে তারা ষড়যন্ত্র শুরু করেছে।’

জমসেদ আলী জানান, ‘গত বছরের ২৬ সেপ্টেম্বর পুত্রবধু মেহেরজাবিন মৌটুসী আমার বাড়িতে এসে আমার সাথে ঝগড়াঝাটি করে। সে খাবারের সাথে বিষ মিশিয়ে দিয়ে আমাকে হত্যা করতে পারে এমনটি আমি আভাস পাই। আমি তখন তাদেরকে বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে বলে আমিও বাইরে চলে গেলে তারা আমার বাড়িতে নিজেদের তালা দিয়ে চলে যায়। পরে মুরব্বীদের মাধ্যমে আমি তালা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করি। বিষয়টি আমি সাধারণ ডায়েরির (নং-৬৬৫) মাধ্যমে পুলিশকেও অবগত করেছি। পরে আমি ১ নভেম্বর দ্বিতীয় বিয়ে করে বাড়িতে বসবাস করছি।’

লিখিত বক্তব্যে জমসেদ আলী আরও বলেন, পুত্রবধুর নানামুখী সমস্যা রয়েছে। সে বিয়ের পর থেকে ঝগড়াঝাাটিসহ আমার পরিবারকে নানাভাবে মানসিক অত্যাচার করছে। সে নিয়মিত অন্যদের সাথে ফোনে কথাবার্তা বলে। যার কারণে সংসারে অশান্তি চরম আকার ধারণ করে। এসব বিষয় নিয়ে সালিশ বৈঠক শেষে সে লিখিত অঙ্গীকারনামা দিয়ে পুনরায় সংসারে ফিরে আসে। এরপর থেকেই সে আমার ছেলেকে নানাভাবে ভুল বুঝিয়ে আমার পরিবারে অশান্তি সৃষ্টি করছেন মৌটুসী।

জমসেদ আলী আব্দুর রহিম (৯) বছরের একটি শিশুকে সংবাদ সম্মেলনে হাজির করান। শিশুটি সংবাদ সম্মেলনে দাবি করে, মৌটুসী তার হাতে বিষের বোতল তুলে দিয়ে বলেছেন কেউ বললে যেনো সে বলে এটি জমসেদ আলী তার হাতে দিয়েছেন তাদের খাবারে মিশিয়ে দেওয়ার জন্য। তারা ওই ছেলেকে ভয় দেখায়। এতে সে ভীত হয়ে আমার বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়েছিল আজ সংবাদ সম্মেলনে সবার সামনেই আব্দুর রহিম বলেছে তাকে বাধ্য করা হয়েছে আমার বিরুদ্ধে বলতে। তাকে ও তার মা’কে মারপিট করে ভয় দেখিয়ে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা বক্তব্য রেকর্ড করে তা সামাজিক মাধ্যমে ছড়ানো হয়েছে। মৌটুসীকে এসব কাজে সহযোগিতা করছে তার আপন চাচাতো ভাই ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোজাহিদ। মোজাহিদ নিজে আব্দুর রহিম ও তার মাকে মারধোরও করেছেন। আমি চরম ভয়ের মধ্যে রয়েছি। চক্রটি আমাকে আগামী দিনে বিপদে ফেলতে পারে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সংশ্লিষ্টদের সহযোগীতা চাই।

0Shares





Related News

Comments are Closed

%d bloggers like this: