Main Menu

সিলেটে ২৪ হাজার ৬৩২ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষের লক্ষমাত্রা

বিশেষ সংবাদদাতা: সিলেট বিভাগের সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলায় সরিষা চাষ বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এ বছর চার জেলায় ২৪ হাজার ৬৩২ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ পর্যন্ত গোটা বিভাগে ১৭ হাজার ৩২০ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ হয়েছে।

সিলেট বিভাগীয় কৃষি স¤প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গত বছর আশানুরূপ ফলন ও ভালো দাম পাওয়ায় এবার এ অঞ্চলে ব্যাপক হারে বেড়েছে সরিষার চাষ। তাছাড়া সিলেট অঞ্চলে সরিষা চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করতে সরকারের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে। তেল জাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির প্রকল্পের আওতায় সিলেট বিভাগের ৫০ হাজার কৃষকের মধ্যে জনপ্রতি ১ কেজি সরিষা বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার বিতরণ করা হয়। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ২১ হাজার ৭০০ জন, মৌলভীবাজার জেলায় ১৩ হাজার ১৫০ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ১০ হাজার ৮৫০ জন ও সুনামগঞ্জ জেলায় ৪ হাজার ৩০০ জন কৃষকের মধ্যে এসব বীজ ও সার বিতরণ করা হয়। ফলে বিগত সময়ের চেয়ে এবার সিলেট বিভাগে সরিষা চাষীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।

বিভাগীয় কৃষি স¤প্রসারণ অধিদফতর সূত্র জানায়, চার জেলায় এবার মোট ১৭ হাজার ৩২০ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ হয়েছে। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ৫ হাজার ৬৭৫ হেক্টর, সুনামগঞ্জ ২ হাজার ৬২০ হেক্টর, হবিগঞ্জ ৪ হাজার ২৫০ হেক্টর এবং মৌলভীবাজারে ৪ হাজার ৭৭৫ হেক্টর জমিতে সরিয়া চাষ হয়েছে।

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার উত্তর রনিখাই এলাকার কৃষক নজির আহমদ জানান, এ বছর ১০০ বিঘা জমিতে তিনি সরিষা চাষ করেছেন। এবার তাদের এলাকায় সরিষার ফসল বেশ ভালো হয়েছে। গত বছর প্রতি বিঘা জমিতে ছয় মণ সরিষা উৎপন্ন হয়েছে। সব খরচ বাদ দিয়ে তারা ভালোই অর্থ ঘরে তুলতে সক্ষম হয়েছেন।

গোয়াইনঘাট উপজেলার কৃষি অফিসার রায়হান পারভেজ রনি জানান, এ বছর গোয়াইনঘাট উপজেলায় ৬৭০ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ২৫টি প্রদর্শনী, ৫০ শতক আয়তনে এবং একটি প্রদর্শনী ৩ হেকরের। সরিষা চাষীদের উদ্ধুদ্ধ করতে তাদের মধ্যে বিনামূল্যে বীজ, সার ও কীটনাশক বিতরণ করা হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কৃষি অফিসার হোসেন মোঃ এরশাদ বলেন, গত বছরের তুলনায় চলতি বছর বেশি জমিতে সরিষা চাষ হয়েছে। এটি একটি লাভজনক ফসল। সেচ ও সার খরচ খুব কম। ফলে কৃষকের উৎপাদন খরচ কম এবং আয় বেশি হয় এই ফসলে। এ বছর উপজেলা ৬৭১ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষ করা হয়েছে।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের কৃষক জহির আলী জানান, সরিষা চাষে খরচ ও ঝামেলা কম এবং স্বল্প সময়ের মধ্যে ঘরে তোলা যায়। এবার তারা ৫ বিঘা জমিতে সরিষার চাষ করেছেন। ভরা মৌসুমে সরিয়ার বাজারদর কম হলেও সহজেই নিজ ঘরে ভালোভাবে সংরক্ষণ করা যায়। সে কারণে সরিয়া চাষাবাদে সহজেই লাভবান হওয়া যায়।

কৃষি স¤প্রসারণ অধিদফতর সিলেট অঞ্চলের উপ-পরিচালক ড. কাজী মুজিবুর রহমান জানান, সরিষার তেলের কদর সারা দেশেই অনেক বেশি। সে কারণে এ অঞ্চলের প্রতি বছরই বাড়ছে সরিষার চাষ। সিলেট মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ জেলার পথেঘাটে এখন সরিষা ফুলের মৌ মৌ গন্ধ আর বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে হলুদ ফুলের সমারোহ। আশাকরি কৃষকরা এ বছর সরিষা চাষ করে বেশ লাভবান হবেন।

 

0Shares





Related News

Comments are Closed