Main Menu

ইতালি পাঠানোর কথা বলে লিবিয়া নিয়ে তরুণকে হত্যা, থানায় মামলা

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার কলেজছাত্র একুয়ান ইসলামকে (১৮) ইতালি পাঠানোর কথা বলে লিবিয়া নিয়ে হত্যার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে।

ছেলেকে হত্যার অভিযোগ এনে লিবিয়ায় বসবাসরত দালাল আবুল হোসেনকে প্রধান আসামি করে চারজনের বিরুদ্ধে সোমবার (৩ অক্টোবর) জগন্নাথপুর থানায় হত্যা মামলা করেছেন একওয়ান ইসলামের বাবা তরিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘জায়গাজমি বিক্রি করে ১৯ লাখ টাকা দিয়েও ছেলেকে বাঁচাতে পারলাম না। এখন শুধু আমার ছেলের হত্যাকারীদের বিচার চাই। তাই মামলা করেছি।’

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, মামলার চার আসামির মধ্যে দুজন প্রবাসে, বাকি দুজন পলাতক। আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০২১ সালের ১৩ এপ্রিল একই গ্রামের লিবিয়ায় অবস্থানরত দালাল আলী হোসেনের মাধ্যমে সাত লাখ টাকায় ইতালি পৌঁছে দেওয়ার চুক্তিতে লিবিয়া যান একুয়ান। সেখানে পৌঁছার পর দালাল চক্র তাঁকে আটক করে অমানবিক নির্যাতন চালায় এবং মাফিয়ার হাত থেকে প্রাণরক্ষার জন্য ২৩ এপ্রিল আরও সাত লাখ টাকা পাঠায় একওয়ানের পরিবার।

এক বছর পর চলতি বছরের ১৫ জুন আবার পাঁচ লাখ টাকা দিয়ে একুয়ানকে ইতালি পাঠানোর চুক্তি হয় দালাল আলী হোসেন ও তার পরিবারের সঙ্গে। এর দুই দিন পর একুয়ানের বাবা দালালদের তার ছেলের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে তাঁরা জানান, একুয়ান ১৬ জুন মারা গেছে। তিন মাস পর গত ২৯ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার লিবিয়া ও বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় একুয়ানের লাশ দেশে আসে। পরদিন শুক্রবার বিকেলে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের পর গ্রামের বাড়িতে একুয়ানের দাফন সম্পন্ন হয়।

 

0Shares





Related News

Comments are Closed