Main Menu

কারিগরি ত্রুটি, শেষ মুহূর্তে স্থগিত নাসার চন্দ্রাভিযান

প্রযুক্তি ডেস্ক: কারিগরি ত্রুটির কারণে শেষ মুহূর্তে এসে স্থগিত হয়েছে নাসার চন্দ্রাভিযান। সোমবার (২৯ আগস্ট) যুক্তরাষ্ট্রের কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে চন্দ্র অভিযানে নাসার পরবর্তী প্রজন্মের রকেটটি রওনা হওয়ার কথা ছিল।

সংস্থাটির পরিচালক চার্লি ব্ল্যাকওয়েল-টম্পসন এই স্থগিতের সিদ্ধান্তের কথা জানান।

রকেট উৎক্ষেপণের ক্ষেত্রে এ রকম কারিগরি ত্রুটি নতুন কিছু নয়। তাই বিকল্প উৎক্ষেপণ দিন হিসেবে আগেই ২ ও ৫ সেপ্টেম্বর দুটি সময় ভেবে রেখেছে নাসা। খবর বিবিসির

অ্যাপোলো মিশনে চাঁদের বুকে অবতরণের ৫০ বছর পর আবারও মানুষকে চাঁদে নিয়ে যেতেই নাসার এই অভিযান। যার নাম দেওয়া হয়েছে মিশন আর্টেমিস। এ অভিযানকে নাসার মঙ্গল গ্রহে মানবযাত্রার পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে দেখা হচ্ছে।

এই মিশনের মূল চালিকাশক্তি হচ্ছে স্পেস লঞ্চ সিস্টেম, যাকে সংক্ষেপে এসএলএস বলা হচ্ছে। এটাই এখন পর্যন্ত নাসার সবচেয়ে আধুনিক মহাকাশ যান।

কথা ছিল, কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে স্থানীয় সময় ৮টা ৩৩ মিনিট, অর্থাৎ বাংলাদেশ সময় সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ৩৩ মিনিটে রকেটটি উৎক্ষেপণ করা হবে। পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের বাইরে পৌঁছে রকেটটি একটি টেস্ট ক্যাপসুল ছুড়ে দেবে। এই টেস্ট ক্যাপসুলের নাম ‘ওরিয়ন’।

পরিকল্পনা অনুযায়ী, স্পেস লঞ্চ সিস্টেমে করে ওরিয়ন লঞ্চ প্যাডে বসানো হয়। শুরু হয় জ্বালানি ভরাসহ অন্যান্য রুটিন কাজ। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের ঘণ্টা দেড়েক আগে দেখা দেয় গড়বড়।

বিবিসি জানিয়েছে, রকেটের যে অংশ তরল হাইড্রোজেন ও তরল অক্সিজেন ট্যাংকের সঙ্গে যুক্ত, সেখানেই ফাটল ধরা পড়ে। নাসার প্রকৌশলীরা তখন বলেছিলেন, তারা ক্রুটি পরীক্ষা করে দেখছেন।

রকেটের চারটি বড় এরএস-২৫ ইঞ্জিনের একটিতেও সমস্যা দেখা দেয়। এক পর্যায়ে উৎক্ষেপণের নির্ধারিত সময়ের ৪০ মিনিট আগে থেমে যায় কাউন্টডাউন। পরে জানানো হয়, সময় মতো ত্রুটি সারানো সম্ভব না হওয়ায় সোমবারের মতো উৎক্ষেপণ স্থগিত করা হচ্ছে।

 

0Shares





Related News

Comments are Closed