Main Menu
শিরোনাম
বিশ্বনাথে সাইফুলের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল         ছাতকে ১০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল         ছাতকে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে বৃদ্ধ গ্রেপ্তার         বিশ্বনাথে দুই হত্যা মামলার প্রধান আসামী সাইফুল গ্রেপ্তার         কোম্পানীগঞ্জে বজ্রপাতে দুইজনের মৃত্যু         গোলাপগঞ্জে গৃহবধূকে ধর্ষণ, যুবক গ্রেপ্তার         শান্তিগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই চাচাতো বোনের মৃত্যু         কামাল উদ্দিন রাসেল’র উপর মামলা প্রত্যাহারের দাবি         বিশ্বনাথে ‘ব্লাকমেইল’ করে গৃহবধুকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক         দক্ষিণ সুরমা কলেজে শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা         গোলাপগঞ্জে ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা সেবা অনুষ্ঠিত         জৈন্তাপুরে রেস্টুরেন্ট কর্মচারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার        

কানাইঘাটে প্রতিপক্ষের হামলায় যুবকের মৃত্যু

কানাইঘাট প্রতিনিধি: সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার রাজাগঞ্জ ইউনিয়নের দাওয়াধারী গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত মামুন আহমদ (১৮) সিলেট ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোর ৫টায় মারা গেছেন। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর দাওয়াধারী গ্রামের মৃত আবু বক্করের পুত্র মামুন আহমদ তার মহিষ চরিয়ে বিকেলে বাড়িতে ফিরছিলেন। এ সময় একই গ্রামের মলিক মিয়া, তার পুত্র মুমিন আহমদ ও রামিম আহমদ সহ তাদের কয়েকজন স্বজন গ্রামের গোপাটে পানি সেচের মেশিন লাগিয়ে শুকিয়ে মাছ ধরার সময় মহিষের মালিক মামুন আহমদ মেশিনের শব্দে তার মহিষ দৌড়াদৌড়ি করছে জানিয়ে মেশিন বন্ধ করার জন্য তাদের অনুরোধ করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মলিক মিয়া ও তার ছেলে স্বজনরা মামুন আহমদকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে দেখিয়ে ছাড়বে বলে হুমকি দেয়। একপর্যায়ে ঘটনার দিন বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মলিক ও তার দুই ছেলে সহ ৮/১০ জন আত্মীয়-স্বজনকে নিয়ে দেশীয় ধারালো কোদাল, লোহার রড, লোহার শাবল, অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে মামুন আহমদের বাড়ীতে গিয়ে তার উপর হামলা চালায়।

নিহতের স্বজনরা জানিয়েছেন হামলাকারীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে মামুন আহমদের মাথায় একাধিক রক্তাক্ত জখম সহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় নির্মম ভাবে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করলে তাকে সাথে সাথে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। স্বজনরা সেখানে ১২ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর কিছুটা সুস্থ হলে মামুন আহমদকে বাড়ীতে নিয়ে আসা হয়। আবারো তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে পুনরায় গত ১০ অক্টোবর তাকে সিওমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোরে মামুন মারা যান।

এঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় হামলাকারীদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে। পুলিশ এঘটনার সাথে জড়িতদের আটক করতে এলাকায় অভিযান চালাচ্ছে।

 

0Shares





Related News

Comments are Closed