Main Menu
শিরোনাম
ছাতকে ১০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল         ছাতকে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে বৃদ্ধ গ্রেপ্তার         বিশ্বনাথে দুই হত্যা মামলার প্রধান আসামী সাইফুল গ্রেপ্তার         কোম্পানীগঞ্জে বজ্রপাতে দুইজনের মৃত্যু         গোলাপগঞ্জে গৃহবধূকে ধর্ষণ, যুবক গ্রেপ্তার         শান্তিগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই চাচাতো বোনের মৃত্যু         কামাল উদ্দিন রাসেল’র উপর মামলা প্রত্যাহারের দাবি         বিশ্বনাথে ‘ব্লাকমেইল’ করে গৃহবধুকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক         দক্ষিণ সুরমা কলেজে শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা         গোলাপগঞ্জে ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা সেবা অনুষ্ঠিত         জৈন্তাপুরে রেস্টুরেন্ট কর্মচারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার         লাখাই থেকে ২৭২৫ পিস ইয়াবাসহ দু’জন আটক        

কেমুসাস’র ৮৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: ‘কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ সিলেট তথা বাংলাদেশের গর্ব ও ঐতিহ্যের প্রতিষ্ঠান। বিশেষ করে এ অঞ্চলের সাহিত্য সংস্কৃতির বিকাশে একটি প্রগতিশীল প্রতিষ্ঠান হিসেবে সাহিত্য সংসদ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে। এজন্যে আমরা যেমন আমাদের পূর্বসূরীদের কাছে ঋণী, তেমনি তাদের ঐতিহ্যের ধারাকে এগিয়ে নিতে আমাদের নতুন প্রজন্মকেও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে।’

দেশের অন্যতম প্রাচীন সাহিত্য প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের ৮৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সাহিত্য সংসদের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনাসভায় বক্তারা এ কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাহিত্য সংসদের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মুজিবুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের সাহিত্য আসর কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংসদের সাধারণ সম্পাদক গবেষক আবদুল হামিদ মানিক ও মুল প্রবন্ধ পাঠ করেন সাহিত্য সংসদের মুখপত্র আল ইসলাহ সম্পাদক সেলিম আউয়াল।

সাহিত্য সংসদের সহ-সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মবনুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় আলোচনায় অংশ নেন সাহিত্য সংসদের সহসভাপতি অধ্যক্ষ কবি কালাম আজাদ, সহসভাপতি দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী, সাংবাদিক আফতাব চৌধুরী, এডভোকেট এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন, জামিল আহমদ চৌধুরী, ডা. মোস্তফা শাহজামান চৌধুরী বাহার, জগলু চৌধুরী, বেলাল আহমদ চৌধুরী, এডভোকেট আবদুস সাদেক লিপন, ডা. আবদুল জলিল চৌধুরী, এডভোকেট আবদুল মুকিত অপি, মাহফুজ আহমদ চৌধুরী, এডভোকেট সৈয়দ নজরুল ইসলাম, ইসমত হানিফা চৌধুরী, ড. তুতিউর রহমান, বদরুদ্দোজা বদর, বাসিত ইবনে হাবীব, হোসনে আরা কলি, মাহবুব মোহাম্মদ, মোয়াজ আফসার, সুফিয়া জমির ডেইজী, সরওয়ার ফারুকী, শামসীর হারুনুর রশীদ প্রমুখ। সভার শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন ফয়জুল হক এবং সংগীত পরিবেশন করেন সাইয়িদ শাহীন।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, সাহিত্য সংসদ ৪৭ সনেই বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার আন্দোলন গড়ে তুলেছিলো। বিশেষ করে দেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য সংরক্ষণ, প্রাতিষ্ঠানিক নজরুল চর্চা, লেখক-পাঠক-সাহিত্যানুরাগী সৃষ্টিতে সাহিত্য সংসদ ভূমিকা পালন করেছিলো বলেই আমরা আজ একটি সমৃদ্ধ গৌরবের উত্তরাধিকার বহন করছি।

স্বাগত বক্তব্যে আবদুল হামিদ মানিক বলেন, বাংলাভাষাকে এ অঞ্চলের মুসলমানরা গ্রহণ করবেন কি না, যখন তাদের মধ্যে এই দ্বিধা ছিলো তখন সাহিত্য সংসদের আবির্ভাব। বাংলা ভাষার মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় সংসদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

সভাপতির বক্তব্যে এডভোকেট মুজিবুর রহমান চৌধুরী বলেন, মাতৃভাষা আল্লাহর মহান দান। বাংলা ভাষার দুর্দিনে সাহিত্য সংসদ অসামান্য অবদান রেখেছে।

 

0Shares





Related News

Comments are Closed