Main Menu
শিরোনাম
সিলেটের তিন উপজেলায় নেই সিএনজি ফিলিং ষ্টেশন         ডা. সিকান্দার-সবতেরা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্বোধন         বাউল কামাল পাশার ১২০তম জন্মবার্ষিকী পালিত         সিলেটে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১জন নিহত         বগির জয়েন্ট খুলে হঠাৎ দুই ভাগ চলন্ত ট্রেন         বেফাঁস মন্তব্যে বহিষ্কৃত গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র রাবেল         গোয়াইনঘাটে ২২৫ বোতল বিদেশী মদসহ গ্রেপ্তার ৩         গোলাপগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে পল্লী বিদ্যুৎতের লাইনম্যানের মৃত্যু         ছাতকে রুহুল আমিন ফাউন্ডেশনের ৫ম বর্ষপূর্তি পালিত         নৌপথে ভারতে প্রবেশের দায়ে পাথর বোঝাই ট্রলার জব্দ         জৈন্তাপুরে স্কুলছাত্রের উপর চোরাকারবারীদের হামলা         ডা. সিকান্দার-সবতেরা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু সোমবার        

পাকিস্তানে শিক্ষকদের জিনস-আঁটসাঁট পোশাক নিষিদ্ধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানে শিক্ষকদের জন্য পোশাক বিধিমালা জারি করা হয়েছে। এতে নারী শিক্ষকদের জিনস ও আঁটসাঁট পোশাক পরতে না করা হয়েছে। আর পুরুষদের বলা হয়েছে, তারা যাতে জিনস ও টি-শার্ট পরে শ্রেণিকক্ষে না যায়।

গত মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) দেশটির কেন্দ্রীয় শিক্ষা পরিদপ্তর (এফডিই) এমন নীতিমালা প্রকাশ করেছে। এছাড়া সব অধ্যক্ষ ও প্রধান শিক্ষককে বলা হয়েছে, তারা যাতে স্কুলে কিংবা কলেজের নারী ও পুরুষ সবকর্মীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বাধ্য করে। বিশেষ করে তারা যাতে নিয়মিত চুল, দাড়ি ও নখ কেটে আসেন এবং পারফিউম ব্যবহার করেন।

চিঠির মাধ্যমে পোশাক ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে স্কুল ও কলেজের প্রধানকে নির্দেশ দিয়েছে এফডিই। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচালকদের দেওয়া এক চিঠিতে বলা হয়েছে, প্রতিষ্ঠানের সব প্রধান কিংবা দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা যাতে কর্মীদের ভালোভাবে উপস্থিতি ও শারীরিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করেন।

স্বাস্থ্যবিধির মধ্যে আছে, চুল ও নখ কাটা, দাড়ি ছাঁটা, নিয়মিত গোসল, দুর্গন্ধনাশক কিংবা পারফিউম ব্যবহার করা। এছাড়া স্কুলের প্রহরীকে নির্দেশিত উর্দি কিংবা তাদের মাঝে বিতরণ করা নির্ধারিত পোশাক পরে আসতে বলা হয়েছে।

পোশাকবিধির ব্যাখ্যায় বলা হয়েছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, আনুষ্ঠানিক কর্মসূচি কিংবা বৈঠকে থাকাকালে সব কর্মীকে পোশাকবিধি মেনে চলতে হবে।

চিঠিতে বলা হয়, শিক্ষার্থীদের পড়ানোর সময় শিক্ষকদের গাউন ও গবেষণাগারে ব্যবহারিক কাজে ল্যাব কোট পরতে হবে। যারা শিক্ষক না, এমন কর্মীদের প্রদর্শনযোগ্য পোশাক পরে আসতে হবে। পরিচ্ছন্ন ও যথাযথ ইস্ত্রি করা পোশাক ও জুতা পরতে হবে।

নারীদের জন্য পোশাকবিধিতে বলা হয়েছে, শিক্ষিকাদের সাদামাটা সালওয়ার-কামিজ, ট্রাউজার, দোপাট্টা কিংবা শালসহ শার্ট পরে ক্লাসে আসতে হবে। পর্দা করা নারীরা পরিচ্ছন্ন ও পরিপাটি ওড়না কিংবা হিজাব পরতে পারবেন। স্কুলে দীর্ঘ সময় থাকতে হচ্ছে বলে স্নিকার ও স্যান্ডলের মতো আরামদায়ক জুতা পরা যাবে। কিন্তু স্লিপার পরে স্কুলে আসা যাবে না।

শীতের মৌসুমে কোট, ব্লেজার, সোয়েটার, কার্ডিগান ও শালসহ শালীন রঙ ও ডিজাইনের পোশাক পরা যাবে। পুরুষকর্মীদের জন্য চিঠিতে বলা হয়, তারা সাদামাটা শালীন সালওয়ার কামিজসহ আবহাওয়া অনুসারে ফতুয়া পরতে পারবে। টাইসহ ফুলহাতার শার্ট ও ট্রাউজার পরা যাবে। কিন্তু কোনোভাবেই জিনস পরার সুযোগ দেওয়া যাবে না।

গ্রীষ্মে হাফহাতা শার্ট কিংবা বুশ শার্ট পরা যাবে। কিন্তু কোনোভাবেই টি-শার্ট পরা যাবে না।

0Shares





Related News

Comments are Closed