Main Menu
শিরোনাম
সিলেটে করোনায় আক্রান্ত বেড়ে ১২২৭৯, মৃত্যু ২১১         জাফলংয়ে হচ্ছে দেশের প্রথম ‘ভূতাত্ত্বিক জাদুঘর’         রাতারগুলের ওয়াচ টাওয়ারে উঠতে নিষেধাজ্ঞা জারি         সিলেট তথ্য অফিসের উপ পরিচালক মিলি করোনাক্রান্ত         সিলেটের দুই ল্যাবে ২০ জনের করোনা শনাক্ত         শাবির ল্যাবে ৭ জনের করোনা শনাক্ত         জৈন্তাপুরে ভারতীয় ৫৪ গরু-মহিষ আটক, নিলামে বিক্রি         জকিগঞ্জে ৩ দফা পুলিশি বাধায় সভা করলো যুবদল         সিলেটে করোনায় আক্রান্ত বেড়ে ১২২৬৫, মৃত্যু ২১১         মাধবপুরে এনা বাসের চাপায় বৃদ্ধার মৃত্যু         আজমিরীগঞ্জে অগ্নিকান্ডে ৩৯টি দোকান পুড়ে ছাই         ওসমানীর ল্যাবে ২০ জনের করোনা শনাক্ত        

প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজনের প্রাণ কাড়ছে করোনা!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ফলে গোটা বিশ্বে মোট মৃত্যুর সংখ্যা সাত লক্ষ পেরিয়ে গেল। এই ৭ লাখ মৃতের মধ্যে সর্বাধিক মৃত্যু দেখেছে চারটি দেশ। তা হল- আমেরিকা, ব্রাজিল, ভারত ও মেক্সিকো।

বর্তমানে গড়ে প্রতি ২৪ ঘণ্টায় গোটা বিশ্বে ৫,৯০০ জনের মৃত্যু হচ্ছে করোনায়। এমনটাই জানানো হয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্স সূত্রে।

গত দু’সপ্তাহের তথ্য অনুসন্ধান একটি রিপোর্ট রয়টার্স প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, এই সময়ের মধ্যে আক্রান্ত ও মৃত্যু বিপুল হারে বেড়েছে ভারতে। অন্যদিকে গোটা বিশ্বের হিসেব কষে জানানো হয়েছে, বর্তমানে বিশ্বে প্রতি ঘণ্টায় গড়ে ২৪৭ জনের মৃত্যু হচ্ছে করোনায়।

অর্থাৎ গড়ে প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজনের প্রাণ কাড়ছে কোভিড ১৯। মৃত্যুর নিরিখে অবশ্য আমেরিকাই সর্বোচ্চ স্থানে রয়েছে। তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করে চলেছেন যে পরিস্থিতি তার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। যতটা নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব, আমেরিকার সরকার ততটাই নিয়ন্ত্রণে রেখেছে বলে দাবি করেন তিনি।

অন্যদিকে ব্রাজিলে ক্রমশ করোনা ভাইরাস প্রভাব বিস্তার করলেও প্রেসিডেন্ট বোলসনারো লকডাইন করতে নারাজ। তিনি নিজেও করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, তার মন্ত্রিসভার সদস্যরাও কোভিড পজিটিভ। তা সত্ত্বেও লকডাউন করে দেশের ধুঁকতে থাকা অর্থনীতিকে আর কোনও ভাবেই খাদের ধারে নারাজ তিনি।

দক্ষিণ আমেরিকায় করোনা অনেক দেরিতে পৌঁছলেও ছড়াচ্ছে দ্রুতগতিতে। বিশেষজ্ঞদের মতে, দারিদ্রসীমার নীচে বসবাসকারী মানুষের সংখ্যা এবং জনঘনত্ব অনেক বেশি হওয়ার কারণে ল্যাটিন আমেরিকায় এত বেশি গতিতে করোনা ছড়িয়ে পড়ছে। একই কারণে মৃত্যুও হচ্ছে বেশি।

0Shares





Related News

Comments are Closed