Main Menu
শিরোনাম
বিশ্বনাথে স্বেচ্ছাসেবক দল নেতৃবৃন্দের মধ্যে ফরম বিতরন         বিশ্বনাথে সাইফুলের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল         ছাতকে ১০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল         ছাতকে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে বৃদ্ধ গ্রেপ্তার         বিশ্বনাথে দুই হত্যা মামলার প্রধান আসামী সাইফুল গ্রেপ্তার         কোম্পানীগঞ্জে বজ্রপাতে দুইজনের মৃত্যু         গোলাপগঞ্জে গৃহবধূকে ধর্ষণ, যুবক গ্রেপ্তার         শান্তিগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই চাচাতো বোনের মৃত্যু         কামাল উদ্দিন রাসেল’র উপর মামলা প্রত্যাহারের দাবি         বিশ্বনাথে ‘ব্লাকমেইল’ করে গৃহবধুকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক         দক্ষিণ সুরমা কলেজে শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা         গোলাপগঞ্জে ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা সেবা অনুষ্ঠিত        

বিএনপি নেতা রিজভীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) গোপালগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক শরিফুল রহমান এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

গোপালগঞ্জের সরকারি কৌশলী অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেনের দায়ের করা মামলায় আদালত এই পরোয়ানা জারি করেছেন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, বিগত ২০১৮ সালের ২৪ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দলের ২১ নেতা কর্মীসহ গোপালগঞ্জ জজ কোর্টের সরকারি কৌশলী অ্যাডভোকেট দেলোয়ার এবং তার পিতা হাসেম সরদারের নাম উল্লেখ বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সাংবাদিক সম্মেলন করেন। সেখানে তাদের রাজাকার, পাকিস্তানি দোসর ও যুদ্ধাপরাধী বলেন। ২০১৯ সালের ২০ জানুয়ারি অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে গোপালগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালত দণ্ডবিধির ৪২০/৪৬৭/৪৬৮/৪৬৯/৪৭১/৫০০/৫০১/৩৪ ধারায় বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম, প্রকাশক সালমা ইসলামকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন (মামলা নম্বর সিআর-২১/২০১৯)।

আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য সিআইডিকে নির্দেশ দেন। সিআইডি দীর্ঘ ২ বছর ১ মাস তদন্ত করে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম, প্রকাশক সালমা ইসলামের নাম মামলা থেকে বাদ দেন। অন্যসব ধারা বাদ দিয়ে শুধু দণ্ডবিধির ৫০০ ধারা (মানহানি) রেখে চলতি বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়। ওই দিন গোপালগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক শরিফুল রহমান রুহুল কবির রিজভীর বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। সমনে হাজির না হওয়ায় মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) তার বিরুদ্ধে আদালত গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে।

মামলার বাদী অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন সরদার বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময় আমার বয়স ছিল ১০ বছর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের ২১ জন নেতাসহ আমি ও আমার পিতাকে রাজাকার, যুদ্ধাপরাধী ও পাকিস্তানি দোষর বলে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সাংবাদিক সম্মেলন করে। পত্রিকায় দেখার পর আমি মামলা করেছি। আজ আদালত সেই মামলায় কবির রিজভীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন।’

0Shares





Related News

Comments are Closed