Main Menu
শিরোনাম
মামুনুলকে নিয়ে পোস্ট, ৬ মাস পর কারামুক্ত ঝুমন         করোনা টিকার সাথে খাবার দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান         ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং সংগ্রাম পরিষদের স্মারকলিপি পেশ         সিলেটে মৃত্যুহীন দিনে ২৬ জনের করোনা শনাক্ত         সিকৃবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপিত         বিশ্বনাথে পূজা উদযাপন পরিষদের প্রতিবাদ সভা         নাজিরবাজার মাদরাসায় দারসে বুখারি ও দোয়া মাহফিল মঙ্গলবার         কানাইঘাটে ৫ শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা, প্রতিবাদে বিক্ষোভ         মাধবপুরে সড়কদূর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ৪         কমলগঞ্জে সবজি ক্ষেত থেকে বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার         বিশ্বনাথে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী নিখোঁজ         বড়লেখায় পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু        

স্ত্রীকে হত্যার পর উঠানে মাটিচাপা, স্বামী গ্রেপ্তার

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে নিখোঁজের ৩৬ দিন পর সুচিত্রা শব্দকর (৪০) নামে এক গৃহবধুর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় স্থানীয়দের সহযোগিতায় ঘাতক স্বামী সুবাস বাউরী ওরফে নুনুকে (৪৮) আটক করা হয়েছে।

বুধবার (২৮ জুলাই) সকাল ১১ টার দিকে উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের পাত্রখোলা চা বাগানের পশ্চিম লাইন এলাকায় নিজ বাড়ির আঙিনার পাশে মাটি খুঁড়ে অর্ধগলিত মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। এই দম্পতির ঘরে এক ছেলে রয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, স্বামী পরিত্যক্তা সুচিত্রা শব্দকর (৪০) পাত্রখোলা চা বাগানের বাজারে পরিচ্ছন্নতাকর্মীর কাজ করতো। সেই সুবাদে পাত্রখোলা চা বাগানের পশ্চিম লাইন এলাকার মৃত নিতাই বাউরীর ছেলে সুবাস বাউরী ওরফে নুনুর সাথে পরিচয় হয়। পরে তাদের মধ্যে সখ্যতা গড়ে উঠলে ১৩ বছর আগে সামাজিকভাবে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক বছর সংসার ভালো চললেও পরে দেখা দেয় পারিবারিক কলহ। প্রতিদিনই মদ্যপ অবস্থায় স্বামী স্ত্রীর মাঝে ঝগড়াঝাটি হতো।

এদিকে গত ২২ শে জুন থেকে সুচিত্রা নিখোঁজ ছিলেন। মাস খানেক থেকে মায়ের সাথে আগের স্বামীর মেয়ে সীমা শব্দকরের যোগাযোগ না হওয়ায় সৎ পিতা সুবাসের কাছে মায়ের খবর জানতে মুঠফোনে কল দিলে রহস্যজনক কথাবার্তা বলতো সুবাস।

মেয়ে সীমা শব্দকরের সন্দেহ হলে স্বামীর বাড়ি কমলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের তিলকপুর থেকে মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সৎ পিতা সুবাস বাউরীর বাড়ি পাত্রখোলা চা বাগানের পশ্চিম লাইনে আসে। প্রথম দিকে সীমার কথার উত্তর না দিলেও পরের দিন ২৮ জুলাই বুধবার সকালে সীমার জেরার মুখে সুবাস একপর্যায় স্বীকার করে ১ মাস পূর্বে তার মায়ের সাথে ঝগড়া হয়েছিল তাই সে রাগ করে কুড়ালের হাতল দিয়ে আঘাত করলে সুচিত্রার মৃত্যু হয়। তাই সে ভয়ে লাশ গোপনের জন্য আঙিনার পাশে মাটিতে পুঁতে রেখেছে।

একথা শুনে সীমা চিৎকার করে কাঁদতে শুরু করলে সুবাস পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে এলাকার লোকজনকে সাথে নিয়ে পাত্রখোলা জামে মসজিদ এলাকা থেকে ঘাতক সৎ পিতা সুবাসকে আটক করে গাছের সাথে বেধে রেখে কমলগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দেয়।

ঘাতক সুবাস বাউরী জানায়, পারিবারিক কলহের জেরে চলতি বছরের ২২ জুন সে তার স্ত্রী সুচিত্রাকে হত্যা করে বাড়ির আঙিনার পাশে পুঁতে রেখেছে।

খবর পেয়ে মৌলভীবাজার জেলার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার এএসপি ( শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ) সার্কেল শহীদুল হক মুন্সির নেতৃত্বে কমলগঞ্জ থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান, ওসি তদন্ত সোহেল রানা, এসআই ফজলে এলাহী, মহাদেব বাছাড়, সুরুজ আলী, মাহমুদ হাসান, উজ্জ্বল মিয়া, এএসআই আনিছুর রহমান, মিজানুর রহমানসহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যান।

সেখানে আটককৃত ঘাতক সুবাস বাউরীর দেখানোমতে বাড়ীর আঙিনার পাশে পুঁতে রাখা গৃহবধূর অর্ধগলিত মরদেহটি দুপুর দেড় টায় উদ্ধার করে মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় সীমা শব্দকর বাদি হয়ে সৎ পিতা সুবাস বাউরীকে আসামী করে কমলগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করেছে।

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা( ওসি) ইয়ারদৌস হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, স্ত্রী হত্যার অভিযোগে একজনকে আটক করা হয়েছে।

0Shares





Related News

Comments are Closed