Main Menu

সিলেটে ১১ ডাকাতের ১০ বছরের কারাদন্ড

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি ঘটনার মামলায় আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ১১ জনের প্রত্যেককে ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো ১বছর করে সশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে।

সিলেটের যুগ্ম দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক যুগ্ম দায়রা জজ আলী মনসুর ১৫ নভেম্বর দায়রা ৪৩৬/২০১০ নং মামলায় এ রায় ঘোষনা করেন।

দন্ডপ্রপ্তরা হচ্ছ- সিলেটের বিশ্বনাথ থানার দুর্লভপুর ডাকাতপাড়ার মৃত এতিম উল্লাহর পুত্র মোঃ ছবির, একই গ্রাম ও পাড়ার মৃত ইর্শাদ আলীর পুত্র জয়নাল (পলাতক), সুনামগঞ্জের ছাতক থানার গোপালনগরের মৃত চান্দ আলী ডাকাতের পুত্র সুরুজ আলী,সিলেটের বিশ্বনাথ থানার জাগিরওয়ালা গ্রামের মৃত মুসলেম আলীর পুত্র সফিক মিয়া ওরফে লম্বা শফিক, সুনামগঞ্জের ছাতক থানার আলসপুরের জলিল মিয়ার পুত্র লতিফ, সিলেটের বিশ্বনাথ থানার দুর্লভপুর ডাকাতপাড়ার মোঃ রোশন আলীর পুত্র বশির আলী, একই থানার দুর্লভপুরের মৃত তৈয়ব আলীর পুত্র আখলুছ, দুর্লভপুর ডাকাতপাড়ার মোঃ রোশন আলীর পুত্র ইব্রাহীম (পলাতক), বিশ্বনাথ থানার যুগীরগাঁও-এর মৃত সোজাত আলী ওরফে সোজাদ আলীর পুত্র আরিজ আলী (পলাতক), বিশ্বনাথ থানার দুর্লভপুর ডাকাতপাড়ার মখন ডাকাতের পুত্র নুর উদ্দিন ওরফে নুরু উদ্দিন এবং বিশ্বনাথ থানার লামাকাজী ইউনিয়নের নোয়াগাঁওয়ের মৃত আব্দুল করিমের পুত্র কামাল (পলাতক)। রায় ঘোষনার পর উপস্থিত আসামীদের কারাগারে প্রেরণ ও পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা ইস্যু করা হয়।

বিগত ২০০৯ সালের ২৭ আগষ্ট ভোররাত ২টায় দূর্ধর্ষ এ ডাকাতি সংঘটিত হয়। সিলেটের বিশ্বনাথের যুক্তরাজ্য প্রবাসী তৈয়বুর রহমানের বাড়িতে ডাকাতদল প্রবেশ করে মারধোর ও গুলি ছুড়ে ৩ লাখ ৬১ হাজার টাকার মাল লুটে নেয়। এ ঘটনায় তৈয়বুর রহমানের বড়ভাই মোঃ সাজিদুর রহমান বিশ্বনাথ থানায় একটি ডাকাতি মামলা {নং-১২(৮)০৯ } দায়ের করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করলে বিচারান্তে তাদের এ দন্ড প্রদান করা হয়।

 

 

0Shares





Related News

Comments are Closed