Main Menu
শিরোনাম
এসএসসি ২০০২ ব্যাচের শীতবস্ত্র বিতরণ         জৈন্তাপুরে ৪৪৫ পিস ইয়াবাসহ ১জন গ্রেপ্তার         সিলেটে আরও ১৫ জনের করোনা শনাক্ত         বাগলী স্থল শুল্ক ষ্টেশনে মানববন্ধন অনুষ্টিত         জুড়ীতে আগুনে পুড়ল ৬টি দোকান         সিলেটে করোনায় আরও এক মৃত্যু, শনাক্ত ১০         বিশ্বনাথে ঐতিহ্যবাহী ‘পলো বাওয়া’ উৎসব পালিত         জৈন্তাপুরে এসএসসি-২০০২ ব্যাচের শীতবস্ত্র বিতরণ         কুলাউড়া পৌরসভায় আ.লীগ প্রার্থী সিপারের জয়         জগন্নাথপুরে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আক্তার জয়ী         কমলগঞ্জে দ্বিতীয় মেয়াদে মেয়র হলেন জুয়েল আহমদ         সুনামগঞ্জে দ্বিতীয় মেয়াদে মেয়র হলেন নাদের বখত        

সাংবাদিক খন্দকার মোজাম্মেল হক আর নেই

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক : গেদুচাচা খ্যাত কলামিস্ট, সাংবাদিক খন্দকার মোজাম্মেল হক আর নেই। তিনি আজ সোমবার বিকালে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না… রাজিউন)।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিউনের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ বলেন, সাংবাদিক খোন্দকার মোজাম্মেল হক আজ বিকাল ৪টার রাজধানীর বাড্ডার একটি বেসরকারি হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। গত ২৭ জুন থেকে এই হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

পারিবারিক ভাবে জানা গেছে, আগামীকাল মঙ্গলবার তার মরদেহ গ্রামের বাড়ি ফেনীতে নেয়া হবে। বাদ যোহর সেখানে দাফন করা হবে।

খন্দকার মোজাম্মেল হকের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি আজ এক শোক বার্তায় প্রয়াতের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের খোন্দকার মোজাম্মেলের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন। তিনি মরহুমের বিদেহী অত্মার শান্তি কামনা করেন এবং তার শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদও সাপ্তাহিক আজকের সূর্যোদয় পত্রিকার সম্পাদক খন্দকার মোজাম্মেল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান আজ তার শোকবার্তায় মোজাম্মেল হকের কর্মময় জীবনের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। তিনি প্রয়াতের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন ও শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

জাতীয় পার্টির সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসাইন এরশাদের শাসনামলে ৮০ এর দশকে ‘সুগন্ধা’ নামে একটি সাপ্তহিক পত্রিকায় ‘গেদু চাচার খোলা চিঠি’ কলাম লিখে দেশে সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন খন্দকার মোজ্জামেল হক। এই কলামে তৎকালীন সরকারের সমালোচনা করে সমাজের নানা সমস্যা, সংকট তার লেখনীর মাধ্যমে তুলে ধরে করণীয় সম্পর্কে পরামর্শ দিতেন।

খন্দকার মোজাম্মেল হক পরে ‘সাপ্তাহিক সূর্যোদয়’ নামে আরেকটি সাপ্তাহিক পত্রিকার সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। পরে,আজকের সূর্যোদয় নামের আরেকটি সাপ্তাহিক পত্রিকায় প্রধান সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বপালন করেন।

খন্দকার মোজাম্মেল হক চট্টগ্রাম বিভাগ সাংবাদিক সমিতির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। এছাড়া ফেনী সাংবাদিক ফোরামের (ঢাকা) উপদেষ্টা ছিলেন।-বাসস

0Shares





Related News

Comments are Closed