Main Menu

অভিনেতা ঋষি কাপুর মারা গেছেন

বিনোদন ডেস্ক: ইরফান খানের মৃত্যুর শোক কাটতে না কাটতেই মারা গেলেন জনপ্রিয় আরেক বলিউড অভিনেতা ঋষি কাপুর।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে মারা গেছেন তিনি।

৬৭ বছর বয়সী এই অভিনেতা দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সারের সাথে লড়াই করছিলেন। খবর এনডিটিভির।

বলিউডে ঋষির পরিবারের প্রায় সবাই সিনেমা জগতের সাথে জড়িত। তার বাবা রাজ কাপুর ভারতের অন্যতম অভিনেতা এবং চলচ্চিত্র নির্মাতাদের মধ্যে একজন ছিলেন।

ঋষির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে টুইট করেছেন তার বন্ধু অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন।

ববি এবং চাঁদনি সিনেমা দিয়ে পরিচিতি পান ঋষি। ২০১৮ সালে তার ক্যান্সার ধরা পড়ে এবং তিনি নিউইয়র্কে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

তিনি স্ত্রী নিতু কাপুর, ছেলে রনবীর কাপুর এবং মেয়ে রিদ্ধিমা কাপুরকে রেখে গেছেন।

কিংবদন্তি অভিনেতা রাজ কাপুরের দ্বিতীয় ছেলে ঋষির জন্ম ১৯৫২ সালের ৪ সেপ্টেম্বর। ১৯৭৩ সালে ডিম্পল কাপাডিয়ার বিপরীতে ‘ববি’ সিনেমার মাধ্যমে রূপালি জগতে নায়ক হিসেবে পা রাখেন তিনি। এর আগে রাজ কাপুরের স্মরণীয় সিনেমা ‘শ্রী ৪২০’ ও ‘মেরা নাম জোকার’-এ অভিনয় করেন শিশুশিল্পী হিসেবে।

অমর আকবর অ্যান্টনি, লায়লা মজনু, রাফো চক্কর, সারগাম, কর্জ, বোল রাধা বোল-সহ অনেক হিট সিনেমা করেছেন তিনি। ক্যানসারের শেষ পর্যায়ে মুক্তি পেয়েছে কাপুর অ্যান্ড সন্স, ডি-ডে, মুলক ও নট আউট। মুক্তির অপেক্ষায় আছে ‘দ্য বডি’।

ঋষির দুই সন্তান। এর মধ্যে ছেলে রণবীর কাপুর বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা।

অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন এক টুইট বার্তায় ঋষি কাপুরের মৃত্যুর খবরটি শেয়ার করে লেখেন, ঋষি চলে গেলেন মাত্র।

কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধিও টুইটে শোকপ্রকাশ করেছেন। তিনি লেখেন, ইরফান খানের পরেই ঋষি কাপুরের চলে যাওয়া বিরাট ক্ষতির মুখে দাঁড় করাল হিন্দি ছবির দুনিয়াকে। প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে ঋষির অনুরাগীরা তার প্রতিভায় বুঁদ হয়েছিলেন। ভারতীয় সিনে দুনিয়া এবং চলচ্চিত্রপ্রেমীরা তাকে স্মরণ করবেন আজীবন। বর্ষীয়ান অভিনেতার মৃত্যুতে গভীর শোকাহত।

একের পর এক মৃত্যুর খবরে দিশাহারা চলচ্চিত্র জগৎ। মাত্র একদিন আগেই বুধবার (২৯ এপ্রিল) মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে প্রয়াত হয়েছেন অভিনেতা ইরফান খান।

 

0Shares





Related News

Comments are Closed