Main Menu

নিস্তব্ধ লিটল বাংলা খ্যাত জ্যাকসন হাইটস

এমদাদ চৌধুরী দীপু, নিউইয়র্ক থেকে: হঠাৎ অ্যাম্বুলেন্সের শব্দে আতকে উঠেন মানুষ। দোয়ারে দানব। প্রতিদিনই আসছে দুঃসংবাদ। দেহ গৃহবন্ধী হলেও তথ্যের দরোজা খোলা। অর্ধলক্ষাধিক (৫২,৩১৮) মানুষ এ যাবত আক্রান্ত আর ৭২৮ জনের মৃত্যুর খবর ছড়িয়েছে রাজ্যজুড়ে। শোক আর সমবেদনায় শংকাময় পরিবেশ।

বিশ্বব্যাপী তান্ডব সৃষ্টিকারী প্রাণঘাতি ভাইরাস করোনা ওলটপালট করে দিয়েছে পুরো বিশ্বের বড় বড় সব শহর। এর ব্যতিক্রম নয় নিউইয়র্ক।

নিউইয়র্ককে বলা হয় এ সিটি নেভার স্লিপ। ঘুমহীন শহরের নাম নিউইয়র্ক। আকাশছোঁয়া অট্রালিকার সারি, আর ঘনবসতির এই শহরটি বিশ্বকে অবাক করে ঘুমিয়ে পড়েছে, করোনা নামক এক দানবের আঘাতে যেন এক অনির্ধারিত বিশ্রামে রয়েছে। পুরো নিউইয়র্ক ঘুরলে সে চিত্রই চোখে পড়বে।

অলস সময় পার করছেন সদা ব্যস্ত এবং কোলাহলের নগরী নিউইয়র্কের বাসিন্দারা। অভ্যন্তরীন এয়ারপোর্ট লাগোর্ডিয়ায় ফ্লাইট উঠা-নামা করলেও নেই যাত্রী। অলস সময় পার করছেন এয়ারপোর্ট এর সাথে সংশ্লিষ্টরা। যেখানে এয়ারপোর্টে যারা যাত্রী পিকআপ করতে যান তাদেরও ঘন্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষায় থাকতে হয়। এখানকার হাইওয়ে গুলোতে হাতেগোনা গাড়ি চলাচল করছে। রাস্তাঘাট খাঁ খাঁ করছে।

বাংলাদেশীদের লিটল বাংলা খ্যাত জ্যাকসন হাইটস রয়েছে বিশ্রামে। ২৪ ঘণ্টা যেসব গ্রোসারী শপ খোলা থাকতো সেগুলো বন্ধ রয়েছে। বাংলাদেশের হরতালের মত নীরবতা জেকসনহাইটস জুড়ে। মাত্র একটি সুপারশপে ক্রেতাদের ঢুকতে হচ্ছে লাইন মেনে। অভ্যন্তরীন রাস্তাগুলো যানবাহনশূন্য। সাবওয়েতে হাতেগুনা যাত্রী, বাসচলাচল স্বাভাবিক নেই, কমিয়ে দেয়া হয়েছে সংখ্যা, আগের সেই ভিড় নেই বাসগুলোতে।

0Shares





Related News

Comments are Closed