Main Menu

লন্ডনে বিবিসি’র কার্যালয়ের সামনে গুম দিবসে মানবন্ধন

প্রবাস ডেস্ক: আন্তর্জাতিক গুম প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষ্যে সেন্টার ফর ডেমোক্রেসি এন্ড গুড গভর্নেন্স ইন বাংলাদেশ এর উদ্যোগে লন্ডনে বিবিসি’র প্রধান কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মানবাধিকার পরিস্থিতি বিশ্বের কাছে তুলে ধরার দাবীতে ও গুমের শিকার ব্যক্তিদের স্মরণে মঙ্গলবার (৩০ আগষ্ট) স্থানীয় সময় দুপুর ১২ টায় এ মানববন্ধন অনুষ্টিত হয়।

সংগঠনের প্রধান সমন্বয়কারী মানবাধিকার কর্মী ও যুব সংগঠক সোয়ালেহীন করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও অন্যতম সংগঠক ও সাবেক ছাত্রনেতা আবদুল কাইয়ূমের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশী বিভিন্ন ধরণের প্লে-কার্ড প্রদর্শনের পাশাপাশি মুখে কালো কাপড় বেঁধে অংশগ্রহণ করে। অনেকের হাতে ছিলো গুমের শিকার ব্যক্তি-পরিবার ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার দাবী সংবলিত প্লে-কার্ড।

মানববন্ধন শেষে সভায় সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য দেন টাওয়ার হেমলেট কাউন্সিলের সাবেক ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলর অহিদ আহমেদ, বিশিষ্ট মানবাধিকার কর্মী ও সাবেক সেনা কর্মকর্তা মেজর (অবঃ) সিদ্দিক, যুক্তরাজ্য বিএনপির অন্যতম সিনিয়র নেতা শরিফুজ্জামান চৌধুরী তপন, এমদাদ হোসেন টিপু, ওয়াদুদ আলম ও মানবাধিকার কর্মী তাসলিমা তাজ।

বক্তারা তাদের বলেন, বিগত প্রায় এক যুগ থেকে বর্তমান ফ্যাসিস্ট আওয়ামী সরকার বিরোধী মতকে দমন করতে গিয়ে দেশে গুম ও খুনের মাধ্যমে এক আতঙ্কের সংস্কৃতি চালু করেছে। বাংলাদেশে আজ মত প্রকাশের কোনো অধিকার নেই। আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে আছে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অকাট্য প্রমাণ। এমন পরিস্থিতিতে বিবিসি’র মতো মূলধারার মিডিয়াকে ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিজমের মাধ্যমে সঠিক মানবাধিকার পরিস্থিতি বিশ্বের কাছে তুলে ধরার ও মানবাধিকার নিশ্চিত করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। তারা মানবতা বিরোধী অপরাধের সাথে জড়িতদের বিচারের আওতায় আনার দাবী জানান।

সভায় আরও যারা সংহতি প্রকাশ করে উপস্থিত ছিলেন যুবনেতা দেওয়ান আবদুল বাছিত, আবদুল জলিল চৌধুরী খোকন, সাবেক ছাত্রনেতা আমজাদ হুসেন মানিক, হুমায়ুন কবির হিমু, দিপু চৌধুরী, আব্দুল গাফফার গুটলু, জাকির হোসেন, এস রহমান রাব্বি, জাবের চৌধুরী, মুজিবুর রহমান, সাংস্কৃতিক সংগঠক রাজ হাসান, মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, যুবনেতা বাবুল গণি, আহমেদ আলী, তানভীর আহমদ তারেক আহসানুল আম্বিয়া শুভন, আনছার আহমদসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

এদিকে, দুপুর ২ টায় লন্ডনের বৃটিশ পার্লামেন্টের সামনে গুম দিবস উপলক্ষে আরও একটি মানববন্ধন অনুষ্টিত হয়। সভায় বক্তারা সরকারের গুম-খুনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপ কামনা করেন এবং আয়না ঘর নামক বন্ধিশালা বন্ধ করার দাবী জানান। তারা বলেন, সরকার রাষ্ট্রীয় বাহিনী ব্যবহার করে ভিন্ন মতের মানুষকে গুম করে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতংক সৃষ্টি করতে চায়। সভায় বক্তব্য রাখেন, গুমের শিকার হওয়া ব্যক্তি ও পরিবারে সদস্যরা। বিজ্ঞপ্তি

0Shares





Related News

Comments are Closed