Main Menu
শিরোনাম
ডা. সিকান্দার-সবতেরা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্বোধন         বাউল কামাল পাশার ১২০তম জন্মবার্ষিকী পালিত         সিলেটে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১জন নিহত         বগির জয়েন্ট খুলে হঠাৎ দুই ভাগ চলন্ত ট্রেন         বেফাঁস মন্তব্যে বহিষ্কৃত গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র রাবেল         গোয়াইনঘাটে ২২৫ বোতল বিদেশী মদসহ গ্রেপ্তার ৩         গোলাপগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে পল্লী বিদ্যুৎতের লাইনম্যানের মৃত্যু         ছাতকে রুহুল আমিন ফাউন্ডেশনের ৫ম বর্ষপূর্তি পালিত         নৌপথে ভারতে প্রবেশের দায়ে পাথর বোঝাই ট্রলার জব্দ         জৈন্তাপুরে স্কুলছাত্রের উপর চোরাকারবারীদের হামলা         ডা. সিকান্দার-সবতেরা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু সোমবার         সিলেট সেনানিবাসে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ‘বজ্রকন্ঠ’র উদ্ধোধন        

পাবনায় মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় প্রাণ গেল কিশোরের

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: পাবনায় মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় আহত তিন স্কুলছাত্রের একজন মারা গেছেন। মঙ্গলবার রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় ইমন প্রামাণিক (১৬) নামে ওই ছাত্র।

এরআগে গত শুক্রবার (১৯ নভেম্বর) পাবনা সদরের কুলোনিয়া বাজারে দুর্ঘটনার পর থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন ইমন। তার দুই বন্ধু এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ইমন সদরের দোগাছি ইউনিয়নের খয়েরসূতি পশ্চিপাড়া মহল্লার রবিউল প্রামাণিকের ছেলে ও খয়েরসূতি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির কমার্স বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন।

আহতরা হলেন- খয়েরসূতি পশ্চিমপাড়া গ্রামের বাবলু মোল্লার ছেলে ফুয়াদ হোসেন (১৬), মহেন্দ্রপুর এলাকার ফিরোজ আলীর ছেলে সুমন মিয়া (১৭)। এ দু’জনও খয়েরসূতি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র।

সাইফুল ইসলাম নামে স্থানীয় একজন জানান, তিন বন্ধু মোটরসাইকেলে বেড়াতে গিয়েছিল। দুর্ঘটনার পর তাদের প্রথমে জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা রাজশাহী মেডিকেলে স্থানান্তর করে। এরপর মঙ্গলবার রাতে হাসপাতালে মারা যায়।

নিহতের বাবা রবিউল প্রামাণিক বলেন, ছেলেকে নিয়ে অনেক স্বপ্ন ছিল। সে বিদেশে গিয়ে চাকরি করে সংসারের হাল ধরবে। কিন্তু মোটরসাইকেল আমার সব আশা কেড়ে নিল। নিমেষেই স্বপ্ন ধ্বংস হয়ে গেছে। এ ঘটনা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছি না।

পাবনা সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম ঢাকা পোস্টকে বলেন, মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার চারদিন পরে মঙ্গলবার রাতে একজন রাজশাহী মেডিকেলে মারা যায়। হাসপাতাল থেকে আমাকে ফোনে বিষয়টি জানানো হয়েছে। পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় দাফনের জন্য মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

0Shares





Related News

Comments are Closed