Main Menu
শিরোনাম
মামলা প্রত্যাহার না হলে কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা শিক্ষার্থীদের         ওসমানীনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জনের মৃত্যু         শান্তিগঞ্জে মাস্ক পরিধান সম্পর্কে থানা পুলিশের প্রচারণা         সিলেট জেলা মহিলা দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন         শান্তিগঞ্জে কার খাদে পড়ে চালক নিহত, আহত ৪         গোলাপগঞ্জ উপজেলা বিএনপির কাউন্সিল সম্পন্ন         কমলগঞ্জে ঐতিহ্যবাহী চুঙ্গা পিঠা উৎসব         কমলগঞ্জে জলাশয় থেকে নারীর লাশ উদ্ধার         নবীগঞ্জে সিএনজির ধাক্কায় বৃদ্ধের মৃত্যু         শাবির ৩০০ শিক্ষার্থীকে আসামি করে পুলিশের মামলা         সিলেটে একদিনে করোনায় দুই শতাধিক রোগী শনাক্ত         রাষ্ট্রপতির কাছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ‘খোলা চিঠি’        

বিশ্বনাথে স্কুলছাত্রীকে নিতে এসে ২ যুবক আটক

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি : সিলেটের বিশ্বনাথে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে স্কুল থেকে নিতে এসেছিলেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নতুন জীবনপুর গ্রামের ফুরকান মিয়ার ছেলে ইয়ামুল হক (১৮)।

এ সময় একই গ্রামের নুর উদ্দিন নামে এক সহযোগীসহ তিনি স্কুলছাত্রদের হাতে ধরা পড়েন।

শনিবার (৯ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিশ্বনাথ উপজেলার লামাকাজী ইউনিয়নের উত্তর বিশ্বনাথ দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

বিদ্যালয় সূত্র জানায়, শনিবার দুপুরে বিদ্যালয়ে ক্লাস চলাকালীন সিএনজিচালিত অটোরিকশায় এসে দু’জন অপরিচিত যুবক ওই স্কুলছাত্রীর নাম ধরে তাকে খুঁজতে থাকে।

সন্দেহ হওয়ায় ছাত্ররা তাদের অফিস কক্ষে নিয়ে যায়। তাদের দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা জানায়, স্কুলছাত্রীকে তারা নিয়ে যেতে এসেছে।

এ সময় ইয়ামুল হকের মুঠোফোন ঘেটে দেখা যায় ওই স্কুলছাত্রীর সাথে তার মন দেওয়া-নেওয়া চলছিল।

খবর পেয়ে থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ ফখরুল ইসলাম, স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি জসিম উদ্দিন খান, সাবেক সদস্য জহিরুল ইসলাম, ইয়ামুল হকের ফুফাতো ভাই ইসলাম উদ্দিন ও ছাত্রীর অভিভাবকরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন।

তাদের উপস্থিতিতে ওই দিন রাত ৮টার দিকে অভিযুক্ত দু’জনকে দশবার করে কান ধরে উঠবস করানো হয়। পরে মুচলেকা নিয়ে ইয়ামুলের ফুফাতো ভাই ইসলাম উদ্দিনের জিম্মায় তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

বিশ্বনাথ থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ ফখরুল ইসলাম বলেন, আমার উপস্থিতিতে মুচলেকা নিয়ে ওই দুই যুবককে তাদের অভিভাবকের জিম্মায় দেওয়া হয়েছে।

উত্তর বিশ্বনাথ দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দরবেশ আলী জানান, ওই দুই যুবক আমাদের বিদ্যালয় থেকে একজন ছাত্রীকে নিয়ে যেতে এসেছিল।

ছাত্ররা তাদের দু’জনকে আটক করে। যথাযথ প্রক্রিয়ায় তাদের অভিভাবকের জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

0Shares





Related News

Comments are Closed