Main Menu
শিরোনাম
সিলেটে দুই কমিউনিটি সেন্টারকে জরিমানা         কমলগঞ্জে শিশু নির্যাতনের ঘটনায় ইমাম আটক         সাংবাদিক মারুফ হাসানের পিতার ইন্তেকাল         বিশ্বনাথে খাল-বিলে অবাধে পোনা নিধন         সিলেট-৩ আসনকে নান্দনিক করতে সবাইকে নিয়ে কাজ করব : হাবিব         দক্ষিণ সুরমায় অসুস্থ বৃদ্ধের জায়গা আত্মসাতের চেষ্টা         কমলগঞ্জে ফ্যানের আঘাতে চা শ্রমিকের মৃত্যু, শ্রমিকদের কর্মবিরতি         সিলেটে আইনজীবী আনোয়ারের লাশ কবর থেকে উত্তোলন         সিলেটে করোনায় আরো৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬৮         গোয়াইনঘাটে একই পরিবারের ৩জনকে গলাকেটে হত্যা         শ্রীমঙ্গলের সীমান্ত এলাকা থেকে ভারতীয় নারী আটক         সিলেটে অটোরিকশায় যুবতিকে ‘গণধর্ষণ’, গ্রেপ্তার ২        

সংসার ভাঙ্গলো নায়িকা মাহিয়া মাহির!

বিনোদন ডেস্ক: অবশেষে গুঞ্জন সত্যি হলো। নায়িকা মাহির সংসারে ভাঙন দেখা দিল। নিজের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নিজেই খবরটি জানালেন মাহিয়া মাহি। তবে ঠিক কবে এবং কী কারণে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা জানাননি এ নায়িকা। শুধু জানিয়েছেন, স্বামীর সঙ্গে দাম্পত্য জীবনের ইতি টানছেন। মাহি বলেন, এর বেশি কিছু জানাতে চাই না৷

চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির সংসার ভাঙনের গুঞ্জন বেশ পুরনো। এতদিন শুধু গুঞ্জন হিসেবে থাকলেও জানা যায়, সত্যি সত্যি ডিভোর্স হয়ে গেছে জনপ্রিয় এ তারকার।

শনিবার (২২ মে) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে মাহি তার ফেসবুকে লেখেন, ‘এই পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটার সাথে থাকতে না পারাটা অনেক বড় ব্যর্থতা। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শ্বশুর বাড়ির মানুষগুলোকে আর কাছ থেকে না দেখতে পাওয়াটা, বাবার মুখ থেকে মা জননী, বড় বাবার মুখ থেকে সুনামাই শোনার অধিকার হারিয়ে ফেলাটা সবচেয়ে বড় অপারগতা। আমাকে মাফ করে দিও। তোমরা ভালো থেক। আমি তোমাদের আজীবন মিস করব।’

স্ট্যাটাসের সত্যতা যাচাই করতে রোববার (২৪ মে) সকালে মাহির ব্যক্তিগত নাম্বারে ফোন করে পাওয়া যায়নি তাকে।

তবে শনিবার রাতে দেশীয় একটি সংবাদমাধ্যমকে মাহি বলেন, ‘বিষয়টি সত্যি। তবে অনুরোধ করব নেতিবাচক কিছু না লেখার। আমি চাই পরস্পরের সম্মানবোধটা বাঁচুক।’

২০১৬ সালে জমকালো আয়োজনে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সেরেছিলেন মাহি। সিলেটের ব্যবসায়ী মাহমুদ পারভেজ অপুকে বিয়ে করেছিলেন মাহি। গেল কয়েক বছরে একাধিকবার বিচ্ছেদের গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল মাহির। যদিও সেগুলো উড়িয়ে দিয়েছিলেন তিনি। অপুর সাথে ফেসবুকে ছবি-স্ট্যাটাস, শ্বশুর বাড়ি ঘুরতে যাওয়ার ভিডিও প্রকাশ করেছিলেন নিজের ফেসবুকে। তা দেখে বোঝাই যাচ্ছিল মাহির সংসার ভালো চলছে। কিন্তু হঠাৎ সেখানে বিচ্ছেদের সুর বেজে উঠল। মাহিও কিছুদিন ধরে ফেসবুক স্ট্যাটাসে তা বোঝানোর চেষ্টা করেছেন।

শনিবার (২২ মে) একটি স্ট্যাটাসে মাহি লেখেন, ‘কখনো সম্পর্কের চেয়ে আত্মসম্মান বেশ গুরুত্বপূর্ণ।’

তার আগে গত ১২ মে অপুর সাথে দুটি ছবি শেয়ার করে মাহি লেখেন, ‘গত ৮৬৪০০ মিনিট ধরে ভাবছি তোমাকে নিয়ে গুনে গুনে ৫১টা লাইন লিখবো। কিন্তু কিভাবে যে লিখবো, ঠিক কোত্থেকে শুরু করবো সেটাই ভেবে পাচ্ছি না। আচ্ছা আমি কি আর কোনোদিন গুছিয়ে কথা বলাটা শিখব না তাই না? তুমি তো আমাকে কিছুই শিখাতে পারলা না, এটা কি ঠিক?’

এদিকে, চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি ৫ বছরের সংসার ভাঙার ঘোষণার পর রোববার বিকেলে একটি সংবাদ মাধ্যমকে স্বামী পারভেজ মাহমুদ অপু বলেন ‘দুজনের সম্মতিতেই আমরা এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি, পারিবারিক বা কোনো মহলের চাপ নয়, আমরা আমাদের সুন্দর ভবিষ্যতের জন্যই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বরং এ সিদ্ধান্তে আমার পরিবারের লোকজন আপসেট।’

এ বিষয়ে তার আর কোনো বক্তব্য নেই বলে জানালেন পারভেজ মাহমুদ অপু।

২০১৬ সালের ২৫ মে ঢালিউডের আলোচিত নায়িকা মাহিয়া মাহির সঙ্গে সিলেটের অপু জমকালো আয়োজনে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন। মাহমুদ পারভেজ অপু সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কদমতলি এলাকার বাসিন্দা আব্দুল মান্নানের ছেলে। চার ভাইয়ের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। বড় ভাই লন্ডন প্রবাসী এবং বাকি দুই ভাই লেখাপড়া করছেন। অপু যুক্তরাজ্য থেকে কম্পিউটার প্রকৌশল নিয়ে পড়ালেখা করে এখন তার বাবার কয়লা ব্যবসা ও দুটি ইটভাটা দেখাশুনা করেন।

জানা গেছে, মাহি-অপু বেশ কিছুদিন ধরেই আলাদা থাকছেন। ব্যক্তিগত কিছু বিষয়ের বোঝাপড়া না হওয়ায় সম্প্রতি তাঁরা বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন। বেশ কিছুদিন ধরেই মাহি ফেসবুকে মন খারাপের স্ট্যাটাস দিচ্ছিলেন। সর্বশেষ শনিবার (২২ মে) রাতে তিনি স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘এই পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটার সাথে থাকতে না পারাটা অনেক বড় ব্যর্থতা।’ পরে মাহি শ্বশুরবাড়ির লোকদের কাছ থেকেও ক্ষমা চেয়েছেন।

ঈদের আগে মাহিয়া মাহি সাংবাদিকদের জানান, তিনি এবং তাঁর স্বামী আলাদাভাবে নিজেদের বাসায় ঈদ করবেন। ঈদের নামাজ পড়ে তাঁর স্বামী অপু মাহমুদ চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাহিদের বাসায় আসবেন। পরে তাঁদের ঈদ শুরু হবে। শেষ পর্যন্ত এই ঈদে তেমনটা হয়নি। হঠাৎ এর মধ্যেই তাঁদের বিচ্ছেদের খবর প্রকাশ হলো।

মাহি এবারের ঈদ করতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে তাঁর গ্রামের বাড়িতে যান। সেখানে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটান। এই সময়ে তিনি কয়েকটি স্ট্যাটাস দেন। একটি স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘এরপরও আমরা দুজন মুখোমুখি হব, কেউ কারও দিকে না তাকিয়েও পেট ভরে দুজন দুজনকে দেখব, ঘ্রাণ নেব, স্পর্শ করব।’

একটি স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন, ‘মানুষের জীবনে অনেক কিছুই ঘটে। অনেক কিছু ভাগ্যের ওপর নির্ভর করে। এইটুকু বলব, আমি অপুকে সম্মান করি। আমাদের মধ্যে ব্যক্তিগত বোঝাপড়া নিয়ে কিছু বিষয়ে সমস্যা ছিল। যেটা হয়তো আমাদের সম্পর্ক টিকতে দিল না। হয়তো আরও কিছু বিষয় ছিল। আপনাদের কাছে অনুরোধ, তাঁর ও আমার কোনো অসম্মান হোক তেমন কিছু চাই না। আর আমরা কেন বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছি, সেটা বলতে পারছি না।’

মাহি-অপুর পরিবারের সম্মতিতে ২০১৬ সালের ২৫ মে তাঁদের বিয়ে হয়। আগামী পরশু (২৫ মে) হতে যাচ্ছিলো তাঁদের পঞ্চম বিবাহবার্ষিকী। এর ঠিক তার দুদিন আগে তাঁদের বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত জানালেন মাহিয়া মাহি। বিয়ের মাসেই বিচ্ছেদ ঘটলো মাহি-অপুর।

0Shares





Related News

Comments are Closed