Main Menu

সিলেটে ৩দিনব্যাপী কিতাব মেলা শুরু

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: প্রথম দিনেই জমে উঠেছে কিতাবমেলা। পাঠক-লেখক, প্রকাশকদের আড্ডা হবে ৩দিন। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে এ মেলা।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) সকাল ১০টায় শুরু হওয়া এই বইমেলায় সিলেটের বিভিন্ন মাদরাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এসেছেন। পছন্দ করছেন তাদের প্রিয় লেখক-প্রকাশনীর বই।

আয়োজক সূত্র জানিয়েছে, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত নারীদের প্রবেশাধিকারের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে সন্ধ্যার পর মেলা বেশি জমজমাট হবে বলে ধারণা করছেন তারা।

ভাষা বইমেলা, একুশে বইমেলাসহ আরো কত নামে সিলেটে হয়ে থাকে সাহিত্যের চর্চা। এবার আধ্যাত্মিক পূণ্যভূমি সিলেট নগরীতে হচ্ছে ‘কিতাবমেলা’। জাগতিক শিক্ষিতরা ভাবছেন এটা আবার কীসের মেলা। চিন্তার কারণ নেই। এটাও আপনাদের কাঙ্খিত বইমেলা। কিতাব আরবি শব্দ। যার অর্থ বই। তবে এই বইমেলায় পাবেন ইসলামের প্রতিটি দিকনির্দেশনার এক অনবদ্য রচনা। জীবনচলার পাথেয় হিসেবে ইসলামি ঘরানার দেশ-বিদেশের সব নামকরা স্কলারদের রচনা সম্ভারই এই বইমেলার মূল আকর্ষণ। আপনি যদি বিবাহিত হোন, তাহলে স্ত্রীকে সাথে নিয়ে এই কিতাবমেলায় ইসলামের জ্ঞান খোঁজতে আসলে ‘দম্পতিকে’ আয়োজকরা উপহার হিসেবে দিবেন জাস্টিস মুফতি তাকি ওসমানীর সদ্য প্রকাশিত ‘পারিবারিক কলহ ও প্রতিকার’ বই।

এমন একটি আকর্ষণীয় বইমেলা হয়নি কখনো। তাহলে এই সুযোগ হাতছাড়া নয়।
দেশের নামকরা ইসলামি প্রকাশনা মাকতাবাতুল আযহারের উদ্যোগে সারাদেশে আঞ্চলিক কিতাবমেলার ধারাবাহিকতায় ২০তম এবং কালান্তর প্রকাশনী ও মাকতাবাতুল আযহারের যৌথ আয়োজনে সিলেটে তৃতীয় কিতাবমেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

মেলা উপলক্ষে প্রতিটি প্রকাশনীর বই অতিরিক্ত ১০% ছাড়ে বিক্রি হবে। এ ছাড়াও বিভিন্ন পুরস্কারের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে বলে আয়োজকরা জানান। তিনদিনে যারা সর্বোচ্চ টাকার বই ক্রয় করবেন, তাদের মধ্য থেকে তিনজনকে বিশেষভাবে পুরস্কৃত করা হবে। এ ছাড়া প্রতিদিন ২ হাজার টাকার বেশি বই যারা ক্রয় করবেন তাদের মধ্য থেকে তিনজনকে পুরস্কৃত করা হবে। এভাবে তিনদিনে ৯ জনকে পুরস্কৃত করা হবে।

এব্যাপারে কথা হলে মাকতাবাতুল আযহার সিলেট শাখার পরিচালক সালমান বিন মালিক বলেন, আমরা এধরণের ইসলামি কিতাবমেলা আগে দু’বার করেছি। সিলেটনগরীর মানুষ ইসলামপ্রিয়। মাদরাসা পড়ুয়া ছাড়াও বিশেষকরে কলেজ-ভার্সিটির অনেক তরুণ-তরুণীরা আছেন যারা ইসলামি বই অধ্যয়নে ভালবাসেন। কোথায় পাওয়া যায়? কী বই পড়া যায়? অনেকক্ষেত্রে তারা বইপছন্দ করতে ধাক্কা খেয়ে থাকেন। তাদের কথা মাথায় রেখে আমাদের এ আয়োজন।

কালান্তর প্রকাশনীর প্রকাশক আবুল কালাম আজাদ বলেন, কিতাবমেলা এটি একটি ব্যতিক্রমী আয়োজন। এই ইসলামি বইমেলার দ্বারা সমাজ ও পরিবারে ইসলামের দাওয়াত পৌঁছবে। সমাজ বিনির্মানে ভূমিকা রাখবে বলে আশাকরি।

0Shares





Related News

Comments are Closed