Main Menu

হোল্ডিং টেক্স সহনীয় পর্যায়ে আনতে সিসিক মেয়রের কাছে প্রস্তাবনা পেশ

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জননেতা মকসুদ হোসেন এর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল রোববার (৫ মে) রাত ৯টায় হোল্ডিং টেক্স সহ নাগরিক দুর্ভোগ নিরসনের লক্ষ্যে ৭ দফা প্রস্তাবনা নিয়ে নগর ভবনের কনফারেন্স হলে মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সাথে মতবিনিময়ে মিলিত হন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ সভাপতি ইকবাল হোসেন চৌধুরী, কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা শিক্ষাবিদ সমাজসেবক নেছারুল হক চৌধুরী বুস্তান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মামুন রশীদ এডভোকেট, সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ অরুণ কুমার দেব, সিনিয়র সদস্য সরোজ ভট্টাচার্য্য, যুব ফোরামের সভাপতি ইমাম হোসেন প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় মেয়র মহোদয়ের হাতে লিখিত প্রস্তাবনা পেশ করেন ফেরামের নেতৃবৃন্দ।

৭ দফা প্রস্তাবনার মধ্যে রয়েছে- বর্তমানে আরোপিত হোল্ডিংটেক্স বাড়ানোর কার্যক্রমে নগরবাসীর মধ্যে চাপা উত্তেজান বিরাজ করছে। এটি নিরসনে বৈসম্যহীন কর আরোপ চায় নগরবাসী। বিশেষ করে দেশপ্রেমিক নিঃস্বার্থ ব্যক্তি ও গণমাধ্যমে কর্মরত ব্যক্তিগণদের হোল্ডিংটেক্স মওকুফের বিষয়ে বিবেচনা।

ক্লিন ও গ্রীন সিলেট বাস্তবায়নের লক্ষ্যে পানির স্তর, পরিবেশের ভারসাম্য ও নিষ্কাশন ব্যবস্থা সঠিক রাখতে সিলেট নগরীর সকল পুকুর, দিঘি, খাল, ছড়া ও জলাশয় রক্ষা, সংরক্ষণ, খনন, পুনঃখনন, সংস্কার ও উন্নয়নে কার্যক্রম অব্যাহত রেখে এ কার্যক্রমের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণ।

অবৈধ স্ট্যান্ড ও পার্কিং বন্ধ করার লক্ষ্যে সিসিক এর উদ্যোগে পার্কিং জোন ও স্ট্যান্ড তৈরি করা আশু জরুরী। এছাড়াও বড় বড় বিপণী ও মার্কেটগুলোর নিজস্ব পার্কিং ব্যবস্থা গড়ে তোলার লক্ষ্যে মেয়রের হস্তক্ষেপ কামনা।

স্বল্প আয়ের নগরবাসীর যাতায়াতের অন্যতম বাহন হচ্ছে রিক্সা ও অটোরিক্সা। ১/১১ সরকারের আমলে রিক্সা ভাড়া নিয়ন্ত্রণে একটি উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছিল। সেই উদ্যোগে বাস্তাবিয়ত না হওয়ায় নগরবাসী হয়রানী শিকার হওয়ার পাশাপাশি প্রায় প্রতিদিন রিক্সা চালকের সাথে যাত্রীদের হাতাহাতির ঘটনা ঘটছে। এই দুর্ভোগ নিরসনে পর্যাপ্ত টাউন বাস সার্ভিস চালু, রিক্সা ও অটোরিক্সা (সিএনজি) ভাড়া দ্রুত নির্ধারণ করে স্বল্প আয়ের নগরবাসীর সমস্যা সমাধানের উদ্যেগ গ্রহণ।

নগরীর সৌন্দর্য রক্ষায় মুক্ত আকাশ ও নৈসর্গিক পরিবেশ এবং বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থাপনাগুলোতে কোন ধরনের পোস্টার, বিলবোর্ড না লাগানোর বিষয়ে হস্তক্ষেপ কামনা।

বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে সৌর বিদ্যুৎ উৎপাদনের ব্যবস্থা এবং সিলেট নগরীকে লোডশেডিং মুক্ত করার লক্ষ্যে সিসিকের উদ্যোগে সৌর বিদ্যুৎ প্ল্যান্ট স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহনের দাবী।

সম্রাট আওরঙ্গজেবের আমলে নির্মিত সিলেট নগরীর অন্যতম ঐতিহ্যবাহী শাহী ঈদগাহ’র রক্ষণা-বেক্ষণ ও দুই ঈদের প্রধান জামাতের প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থাপনা করে থাকে সিলেট সিটি কর্পোরেশন। সেহেতু শাহী ঈদগাহ’র পরিচালনা পরিষদ মেয়র এর নেতৃত্বে গঠন করার দাবী সহ ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন উপমহাদেশের প্রথম শহীদ হচ্ছেন সিলেটের দুই সহোদর হাদা মিয়া ও মাদা মিয়া। তাঁদের স্মৃতি রক্ষার্থে সিলেট ক্বীন ব্রিজের দুই পাশে দুটি তোরণ তাদের নামে নামকরণের দাবী জানানো হয়েছে।

সিসিক মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী ধৈর্য্য সহকারে নেতৃবৃন্দের কথা শুনেন এবং প্রস্তাবগুলো পড়েন। তিনি নেতৃবৃন্দকে আশ্বস্থ করেন হোল্ডিং টেক্স সহনীয় পর্যায়ে থাকবে এবং কোন বৈষম্য হবে না। তিনি নগর উন্নয়নে সর্বস্তরের নাগরিকদের সহযোগিতা কামনা করেন। বিজ্ঞপ্তি

Share





Related News

Comments are Closed