Main Menu

ওসমানীনগরে ৫ শতাধিক মানুষকে বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা

ওসমানীনগর প্রতিনিধি: সিলেটের ওসমানীনগরে সুবিধাবঞ্চিত ৫ শতাধিক মানুষদের বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) দিনব্যাপি উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের বেগমপুরস্থ শরৎ সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়ে সাদিপুর ইউনিয়ন ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকে ও ইয়ুথ গ্লোবাল ফাউন্ডেশনের আয়োজনে ৫ শতাধিক মানুষকে বিনা মূল্যে বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা সেবা, চশমা বিতরণ করা হয়।

চোখে ছানি পড়া ৬৬ জন রোগীকে সংগঠনের অর্থায়নে অপারেশনের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ইয়ুথ গ্লোবাল ফাউন্ডেশন ইউ.কে’র আহবায়ক সৈয়দ ছাদেক আহমদের সভাপতিত্বে ও ছাত্রলীগ নেতা আক্তার আহমদের পরিচালনায় অনুষ্টানে প্রধান অতিথি ছিলেন,বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের সহধর্মীনি ইয়ুথ গ্লোবাল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক ড. সীমা হামিদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, ওসমানীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শামীম আহমদ ভিপি, সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, সাদিপুর ইউপি চেয়ারম্যান সাহেদ আহমদ ভিপি মুছা, পৈলনপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম রব্বানি সুমন চৌধুরী, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মোব্বাশির আলী।

অনুষ্টানে বক্তারা বলেন, গ্রাম অঞ্চলের অনেক মানুষ আছেন যারা অর্থের অভাবে চোখের চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত। সমাজের সেই নিন্ম আয়ের মানুষের চিকিৎসার সাহায্যে সাদিপুর ইউনিয়ন ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকে ও ইয়ুথ গ্লোবাল ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বিনা খরচে চক্ষু পরীক্ষা, ছানি অপারেশন ও লেন্স সংযোজন করে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। দেশের সার্বিক অগ্রগতি তুরান্নিত করার পাশাপাশি মানুষের কল্যানে সাদিপুর ইউনিয়ন ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকে ও ইয়ুথ গ্লোবাল ফাউন্ডেশনের এসব মানবিক কার্যক্রম অব্যাহত রাখার আহব্বান জানান তারা।

অনুষ্ঠানে অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শরৎ সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মো: নুরুল ইসলাম, স্পেন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ফয়সল ইসলাম,সরকার নিবন্ধিত অনলাইন পোর্টাল সিলেট প্রতিদিনের সম্পাদক সাজলু লস্কর, সমাজ সেবী কামরুল ইসলাম, সাদিপুর ইউনিয়ন ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকে’র কেষাধ্যক্ষ সেলিম আহমদ রেজা, ফ্রান্স প্রবাসী ফখরুল ইসলাম, ইউপি সদস্য মাহমদ আলী, শামছুল ইসলাম শামীম, আছারুন বেগম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে এসে বিনামূল্যে চক্ষু সেবা পেয়ে খুশি মনে বাড়ি ফিরতে দেখা যায় এলাকার শতাধিক অসহায় পরিবারের সদস্যদের। তাদের মধ্যে অনেকে অনুষ্ঠানস্থলে দু-হাত তুলে আয়োজকদের জন্য দোয়া করতেও দেখা যায়।

0Shares





Related News

Comments are Closed