Main Menu
শিরোনাম
শাবির ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন, ভিসির পদত্যাগ দাবি         মধ্যরাতেও ভিসির পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল শাবি         শাবিপ্রবি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা         তাহিরপুরে অবৈধ কোয়ারীর মাটি চাপায় শ্রমিককের মৃত্যু         শাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থি-পুলিশ সংঘর্ষ, আহত ৩০         বিয়ানীবাজারে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় ১জনের মৃত্যু         ‘সম্পত্তির লোভে ছেলে-পুত্রবধূর ষড়যন্ত্রে দিশেহারা সৌদিফেরত জমসেদ আলী’         কানাইঘাটে সাংবাদিকের হাত-পায়ে কুপিয়েছে সন্ত্রাসীরা         শাবির উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থিরা         সিলেটে একদিনে আরো ১৪৮ জনের করোনা শনাক্ত         ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা শাবি শিক্ষার্থীদের         বিয়ের প্রলোভনে গৃহবধূকে ‘ধর্ষণ’, গ্রেপ্তার ১        

টি-ব্যাগের চায়ে কী বিপদ লুকিয়ে আছে?

লাইফস্টাইল ডেস্ক : অনেকেই আছেন, যাদের ঘণ্টায় ঘণ্টায় চা না খেলে কাজে মন বসে না! আর সহজে চা পানের জন্য টি-ব্যাগ হাতে তুলে নিচ্ছেন অনেকেই। কিন্তু এতে কী ভয়ংকর বিপদ অপেক্ষা করছে, তা জানলে আজ থেকেই সাবধান হবেন হয়তো।

ফুটন্ত পানিতে টি-ব্যাগ ডোবালে তা থেকে লাখ লাখ প্লাস্টিকের কণা বের হয়। ফুটন্ত পানির তাপমাত্রায় ওই কণাগুলোর সক্রিয়তা বেড়ে যায়। চা খাওয়ার সময় সেসব কণা শরীরে প্রবেশ করে। আর প্লাস্টিকের এই বিষে শরীর ক্ষতিগ্রস্ত হতে বেশি দেরি হবে না।

সম্প্রতি কানাডার মন্ট্রিলের ম্যাকগিল বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষকের প্রকাশিত রিপোর্টে এমন ভয়ানক তথ্যই উঠে এসেছে। গবেষণাটি প্রকাশ হয়েছে আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটি জার্নাল এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজিতে।

ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের প্রতিবেদনে জানা গেছে, গবেষকরা চার রকম টি-ব্যাগ পরীক্ষা করে দেখেছেন। প্রতিটিতেই প্লাস্টিকের উপস্থিতি দেখা পয়েছেন তারা।

হঠাৎ কেন টি-ব্যাগ নিয়ে গবেষণা শুরু করলেন বিজ্ঞানীরা? জানা গেছে, কয়েক বছর আগে রাতে কাজে যাওয়ার সময় কানাডার এক নারী নাতালি তুফেনকেজি রাস্তার পাশে একটি ক্যাফেতে গিয়ে এক কাপ চায়ের অর্ডার দেন। সেখানে তাকে টি ব্যাগ সমেত কাপে চা দেওয়া হয়। চায়ে চুমুক দিতে গিয়ে তার চোখে পড়ে, সাদা সাদা গুঁড়া ভাসছে। প্রথমে বুঝতে না পারলেও, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার নাতালি টের পান যে ওগুলো প্লাস্টিকের খুব সুক্ষ্ম কণা। এরপরই তার মনে আশঙ্কা জাগে, টি-ব্যাগে চা খাওয়ার আড়ালে আসলে আমাদের শরীরে কত পরিমাণ প্লাস্টিক ঢুকছে, তা জানা দরকার।

এরপর ওই চায়ের নমুনা সংগ্রহ করে ম্যাকগিল বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে গবেষণা শুরু করেন। তাতেই উঠে আসে এমন চিন্তার বিষয়। জানা গেছে, এক হাজার ১০০ কোটি মাইক্রোপ্লাস্টিক এবং ৩০০ কোটি ন্যানোপ্লাস্টিক কণা থাকে একটি টি-ব্যাগেই, যা সাধারণ চোখে দেখা যাওয়ার প্রশ্নই নেই। এমনকি মাইক্রোস্কোপেও গোটা অস্তিত্ব ধরা পড়ে না। ফলে কী বিপদ যে লুকিয়ে আছে, তা টেরও পাওয়া যায় না। কিন্তু ম্যাকগিল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা প্রকাশ্যে আসায় তো সবই জানা গেল। এবার তো সাবধান হন।

 

0Shares





Comments are Closed