Main Menu
শিরোনাম
নবীগঞ্জে মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু         সিলেটে ১ হাজার ৪০৬ গৃহহীন পেলেন নতুন বাড়ি         সিলেটে করোনায় আরো ৬ জন আক্রান্ত, সুস্থ ৪৭ জন         ধোপাগুলে শিশুকে ধর্ষণ, যুবক আটক         খাদিমে নাঈম খুন, ডেকে নেওয়া বন্ধু আটক         সিলেটে বিচারককে ঘুষ প্রদানের চেষ্টা, এসআই ক্লোজড         সিলেটে মদসহ ৩ মাদককারবারী আটক         দক্ষিণ সুরমায় পুলিশী অভিযানে ৬ জুয়াড়ী আটক         জকিগঞ্জে যুবলীগ নেতা আহাদকে দল থেকে বহিস্কার         ‘পাঙ্গাস মাছের মড়ক রোধ করবে বায়োফিল্ম ভ্যাক্সিন’         জকিগঞ্জে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হিরা বহিস্কার         সিলেটে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন        

এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ১

বৈশাখী নিউজ ২৪ ডটকম: সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগ নেতা সাইফুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ঘটনার একদিন পর রোববার সকালে সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার নোয়ারাই ইউনিউনের নোয়ারাই ঘাট এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সাইফুর ছাড়া বাকি ৫ আসামি এখনও পলাতক রয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান।

তিনি বলেন, পুলিশ গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করে। রবিবার সকালে ছাতক খেয়াঘাট সংলগ্ন এলাকা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ছাতক থানার এসআই হাবিবুর রহমান পিপিএম এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ থাকে গ্রেফতার করে।

শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটক রেখে নারীকে ছাত্রলীগের ৬ জন নেতাকর্মী গণধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই দম্পত্তিকে ছাত্রাবাস থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরবর্তীতে ধর্ষণের শিকার তরুণীকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দক্ষিণ সুরমার নবদম্পতি শুক্রবার বিকেলে প্রাইভেটকারে যোগে এমসি কলেজে বেড়াতে যান। বিকেলে এমসি কলেজের ছাত্রলীগের ছয়জন নেতাকর্মী স্বামী-স্ত্রীকে ধরে ছাত্রাবাসে নিয়ে প্রথমে মারধর করেন। পরে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তারা। ছাত্রলীগ নেতাদের প্রত্যেকেই ছাত্রাবাসে থাকেন। তারা টিলাগড় কেন্দ্রীক আওয়ামী লীগের এক নেতার অনুসারী।

এ ঘটনায় শনিবার ভোর রাতে ৬ জনের নামোল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ২/৩ জনকে অভিযুক্ত করে নগরের শাহপরান থানায় এ মামলা (২১(৯)২০২০) দায়ের করেন ধর্ষিতার স্বামী। এজাহার নামীয় আসামিরা হলো- সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার চান্দাইপাড়া গ্রামের তাহিদ মিয়ার ছেলে এমসি কলেজের ৫ম ব্লক হোস্টেলের বাসিন্দা সাইফুর রহমান (২৮), সুনামগঞ্জ সদরের নিসর্গ-৫৭ বাসার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে মেজরটিলা দিপীকা আবাসিক এলাকার বাসিন্দা তারেকুল ইসলাম তারেক (২৮), হবিগঞ্জ সদরের বাগুনীপাড়ার শাহ মো. জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে এমসি কলেজ হোস্টেল, ৭নং ব্লকের ২০৫ নং কক্ষের বাসিন্দা শাহ মো. মাহবুবুর রহমান রনি (২৫), সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার আটগ্রামের কানু লস্করের ছেলে বর্তমানে শাহপরান রাজপাড়া এলাকার বাসিন্দা অর্জুন লস্কর (২৫), সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার বড়নগদীপুর গ্রামের বাসিন্দা বর্তমানে এমসি ছাত্রাবাসে বসবাস রবিউল ইসলাম (২৫), সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার গাছবাড়ি এলাকার মাহফুজুর রহমান মাসুম (২৫)।

এছাড়া অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় পৃথক আরেকটি মামলা দায়ের করেন শাহপরান (র.) থানা পুলিশের উপ পরিদর্শক (এসআই) মিল্টন সরকার। ছাত্রলীগ ক্যাডার সাইফুর রহমানকে আসামি করে মামলা (নং-২২(৯)২০২০) দায়ের করেন তিনি।

0Shares





Related News

Comments are Closed