Main Menu
শিরোনাম
সিলেটের দুই ল্যাবে আরো ১৬৪ জনের করোনা শনাক্ত         জকিগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২         রাজনগরে সড়কে প্রাণ গেল ছাত্রলীগ নেতার         বিমানের সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট শুরু         বিশ্বনাথে এমপি মোকাব্বির খানের গাড়িতে হামলা         শাবির ল্যাবে আরো ২২ জনের করোনা শনাক্ত         কমলগঞ্জে এক বৃদ্ধের মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল         জৈন্তাপুরে ভারতীয় পাতার বিড়িসহ গ্রেফতার ১         গোয়াইনঘাটে ধর্ষণ চেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন         শ্রীমঙ্গলে স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামীর আত্মহত্যা!         সিলেট এমসি কলেজের ছাত্রী পপির আত্মহত্যা         ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে        

হজের আনুষ্ঠানিকতা আজ শুরু

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: ‘লাব্বাইকা আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনির মাধ্যমে আজ রাত থেকেই শুরু হচ্ছে পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা। প্রতিবছর ৭ জিলহজ দিনগত সন্ধ্যায় মক্কা থেকে মিনার মাঠের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন হজযাত্রীরা।

বুধবার (৮ জিলহজ) সারা দিন অবস্থানের পর বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজ আদায় শেষে আরাফাতের উদ্দেশে যাত্রা করবেন হাজিরা।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার পালিত হবে পবিত্র হজ। দীর্ঘ ৯০ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম সৌদি আরবের বাইরের কোনও দেশ থেকে কেউ হজে অংশ নিতে পারছে না। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

চলতি বছর করোনার কারণে সীমিতাকারে হজ অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেয় সৌদি কর্তৃপক্ষ। এরই অংশ হিসেবে এ বছর মাত্র এক হাজার মুসল্লি হজ করতে পারছেন। এই হাজিদের মধ্যে সৌদি আরবসহ অন্যান্য দেশের নাগরিকও রয়েছে। হজে অংশ নেয়া এক হাজারের মধ্যে ৭০০ জন বিদেশি নাগরিক এবং ৩০০ জন সৌদি নাগরিক। এছাড়া অংশ গ্রহণকারী হাজীদের বয়স ২০ থেকে ৫৫ বছরের মধ্যে রাখা হয়েছে।

বিধি অনুযায়ী, চলতি বছর হজ পালনকারীরা কাবা শরিফ ও কালো পাথর (হুজরে আসওয়াদ) চুমু খেতে বা স্পর্শ করতে পারবেন না। ৯ জিলহজ আরাফাতের ময়দান ছাড়া সব সময় মাস্ক পরিধান করতে হবে। এখানে হাজিরা জোহর এবং আসরের নামাজ একসঙ্গে আদায় করবেন।

পরদিন ১০ জিলহজ শয়তানের উদ্দেশ্যে পাথর ছুড়ে মারবেন। এজন্য আগে থেকে জীবাণুমুক্ত প্যাকেটজাত পাথর ব্যবহার করতে হবে। সৌদি কর্তৃপক্ষ এসব পাথর সরবরাহ করবে। তাই এ বছর মুজদালিফা থেকে শয়তানকে ছুড়ে মারা কংকর সংগ্রহ করতে হবে না।

এরপর মাথা মুণ্ডন করে কোরবানি দিতে হবে। এভাবে পর পর আরও দুইদিন শয়তানের উদ্দেশ্য কংকর মারতে হবে। এছাড়া প্রথম দিনের কংকর মারা শেষ হলে চলমান হজ কার্যক্রম শেষ না হওয়া পর্যন্ত সব হাজিকে মিনায় নির্দিষ্ট আবাসনে থাকতে হবে।

0Shares





Comments are Closed