Main Menu
শিরোনাম
ডা. সিকান্দার-সবতেরা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্বোধন         বাউল কামাল পাশার ১২০তম জন্মবার্ষিকী পালিত         সিলেটে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১জন নিহত         বগির জয়েন্ট খুলে হঠাৎ দুই ভাগ চলন্ত ট্রেন         বেফাঁস মন্তব্যে বহিষ্কৃত গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র রাবেল         গোয়াইনঘাটে ২২৫ বোতল বিদেশী মদসহ গ্রেপ্তার ৩         গোলাপগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে পল্লী বিদ্যুৎতের লাইনম্যানের মৃত্যু         ছাতকে রুহুল আমিন ফাউন্ডেশনের ৫ম বর্ষপূর্তি পালিত         নৌপথে ভারতে প্রবেশের দায়ে পাথর বোঝাই ট্রলার জব্দ         জৈন্তাপুরে স্কুলছাত্রের উপর চোরাকারবারীদের হামলা         ডা. সিকান্দার-সবতেরা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু সোমবার         সিলেট সেনানিবাসে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ‘বজ্রকন্ঠ’র উদ্ধোধন        

বিকাশের ‘খরচ কমলো’ বিজ্ঞাপনে শুভঙ্করের ফাঁকি: টিক্যাব

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: বিভিন্ন শর্তে মাত্র একটি প্রিয় এজেন্ট নাম্বারে বিকাশের ক্যাশ আউট চার্জ ১৪.৯০ টাকা করে এ নিয়ে ‘খরচ কমলো’ বলে ব্যাপক প্রচার—প্রচারণার সমালোচনা করে এ অফারকে প্রকৃত অর্থ গ্রাহকদের সাথে ‘শুভঙ্করের ফাঁকি’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে টেলি কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টিক্যাব)।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে একথা বলেন টিক্যাবের আহ্বায়ক মুর্শিদুল হক।

মুর্শিদুল হক বলেন, “মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস বিকাশের ক্যাশ আউট চার্জ পূর্বে ছিল প্রতি হাজারে অ্যাপে ১৭.৫০ টাকা এবং *২৪৭# ডায়াল করে ১৮.৫০ টাকা। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি একটি প্রিয় এজেন্ট নাম্বারে সর্বোচ্চ ২৫,০০০ টাকা পর্যন্ত ক্যাশ আউট চার্জ ভ্যাটসহ ১৪.৯০ পয়সা নির্ধারণ করে। এক ক্যালেন্ডার মাসে প্রিয় এজেন্ট পরিবর্তন করতে না পারা, ক্যাশ আউট লিমিট বেঁধে দেয়া এমন অনেক শর্ত একদমই হাইলাইট না করে শুধুমাত্র ‘বিকাশে খরচ কমলো’ বিজ্ঞাপন ব্যাপকভাবে প্রচারের মাধ্যমে গ্রাহকদের বিভ্রান্ত করা হয়েছে বলে আমরা মনে করি। এমনকি এ সময়েই বিকাশ থেকে অ্যাপের মাধ্যমে ক্যাশ আউট চার্জ ১৭.৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৮.৫০ টাকা করা হয়েছে। এখন বিকাশে অ্যাপ অথবা *২৪৭# ডায়াল করে যেভাবেই গ্রাহক ক্যাশআউট করুক চার্জ ১৮.৫০ টাকা।”

তিনি বলেন, “টিক্যাবের পক্ষ থেকে সাধারণ গ্রাহক ও এজেন্টদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বেশির ভাগ গ্রাহকই বিকাশের বিজ্ঞাপন দেখে ক্যাশ আউট করতে এসে বিভ্রান্ত হয়েছেন। অনেক গ্রাহক এজেন্টদের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়েছেন। এজেন্টরা তখন বাধ্য হয়ে বিজ্ঞাপনের নিচে ছোট করে লেখা শর্তগুলো দেখাচ্ছেন। আমাদের দেশের মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহারকারী বেশির ভাগ গ্রাহক নিম্ন মধ্যবিত্ত হওয়ায় তারা এত শর্তের মারপ্যাচে ক্যাশ আউট চার্জ ১৪.৯০ টাকার সুফল নিতে পারছেন না। তাদের মধ্যে অনেকেই বুঝতে না পারায় প্রিয় এজেন্ট সংযুক্ত করতে পারেননি। আবার অনেকে একেক দিন একেক নাম্বারে ক্যাশ আউট করায় প্রিয় এজেন্ট যুক্ত করতে আগ্রহী হননি। আবার অনেকে এসব শর্তকে ঝামেলা মনে করে বিষয়টিকে এড়িয়ে চলছেন। গ্রাহকরা সুবিধা নিক আর না নিক বিকাশ কিন্তু ঠিকই অ্যাপ থেকে ক্যাশআউট চার্জ বাড়িয়ে এবং ব্যাপক ভাবে ‘খরচ কমলো’ প্রচারণা চালিয়ে তাদের ব্যবসায়িক সুবিধা তুলে নিয়েছে।”

টিক্যাব আহ্বায়ক আরো বলেন, “একই ভাবে আরেকটি মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস ‘নগদ’ ক্যাশ আউট চার্জ ৯.৯৯ টাকা বলে প্রচারনা চালালেও বাস্তবতা হচ্ছে অ্যাপ থেকে প্রতি হাজারে ভ্যাটসহ ক্যাশ আউট চার্জ ১১.৪৯ টাকা এবং ইউএসএসডিতে (*১৬৭# ডায়াল করে) ক্যাশ আউট চার্জ ১৪.৯৪ টাকা।”

মুর্শিদুল হক অবিলম্বে সত্য গোপন করে বিভ্রান্তিকর এহেন প্রচারনা বন্ধের জোর দাবি জানান। পাশাপাশি মোবাইল ব্যাংকিং এর ক্যাশ আউট চার্জ কমিয়ে সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনার দাবি জানান।

0Shares





Related News

Comments are Closed