Main Menu
শিরোনাম
দিরাই পৌর নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী ইকবাল চৌধুরী         সিলেটে আরও ৩৮ জনের করোনা শনাক্ত         বাহুবলে গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা, শ্বশুর গ্রেপ্তার         কমলগঞ্জে কলেজ ছাত্রীর বিষপানে আত্মহত্যা         সিলেটে গত ২৪ ঘন্টায় ৪১ জনের করোনা শনাক্ত         কামালবাজার ইউপি নির্বাচনে একঝাঁক প্রার্থী মাঠে         গোয়াইনঘাটে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, স্বামী আটক         কমলগঞ্জে গ্রেপ্তার আতংকে ঘরে ঘরে ঝুলছে তালা         সিলেট শিক্ষা বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান রমা বিজয় সরকার         সিলেটে একদিনে আরো ৩৬ জনের করোনা শনাক্ত         সিলেটে মাস্ক না পরায় ১০৭ জনকে জরিমানা         গোলাপগঞ্জে বিজ্ঞান মেলার উদ্বোধন        

তিন মামলায় আরিফকে আসামি করে অভিযোগ গঠন

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের উপর গ্রেনেড হামলা চালিয়ে হত্যাচেষ্টা মামলায় সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীকে আসামি করে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) দুপুরে সিলেটের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহারিয়ার কবিরের আদালতে এই মামলার অভিযোগ গঠন করেন।

একই আদালতে সুরঞ্জিত সেনের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার ঘটনায় দায়েকৃত বিস্ফোররক মামলা এবং সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএসএম কিবরিয়া হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত বিস্ফোরক মামলারও চার্জ গঠন করা হয় আজ।

এই দুটি মামলায়ও সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীকে আসামি করা হয়েছে।

সিলেটের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পিপি সরওয়ার হোসেন আবদাল বলেন, সুরঞ্জিত সেনের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার ঘটনার দুটি মামলায় সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, হবিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র জিকে গৌছকে আসামি করা হয়েছে। আর শাহ এএসএম কিবরিয়ার সমাবেশে গ্রেনেড হামলার বিস্ফোরক মামলায় সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর-মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীদের আসামি করা হয়েছে। অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে আজ থেকে এই তিন মামলার বিচারিক কার্যক্রম শুরু হলো বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, আজ কিবরিয়া হত্যা মামলার স্বাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ থাকলেও সাক্ষীরা হাজির না হওয়ায় এই মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ পিছিয়ে গেছে। এই মামলাও দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে চলমান রয়েছে।

এরআগে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয় কিবরিয়া হত্যা মামলায় কারাগারে থাকা আসামি সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরকে সিলেট আদালতে আনা হয়। আর জামিনে থাকা সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও হবিগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র জিকে গৌছও আদালতে হাজির হন। মোট ১১ জন আসামি বৃহস্পতিবার আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ২১ জুন দিরাই বাজারে একটি রাজনৈতিক সমাবেশে বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। সমাবেশে তখন প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। ওই বোমা হামলায় এক যুবলীগকর্মী নিহত ও ২৯ জন আহত হন। ওই ঘটনায় এসআই হেলাল উদ্দিন বাদী হয়ে দিরাই থানায় মামলা দায়ের করেন।

অপরদিকে, ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভা শেষে ফেরার পথে দুর্বৃত্তদের গ্রেনেড হামলায় নিহত হন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া, তার ভাতিজা শাহ মঞ্জুর হুদাসহ ৫ জন। এ ঘটনায় আহত হন ৭০ জন।

এ ঘটনায় ওই এলাকার আওয়ামী লীগ নেতা এডভোকেট মো. আব্দুল মজিদ খান বাদি হয়ে সদর থানায় হত্যা এবং বিস্ফোরক আইনে পৃথক দুটি মামলা করেন। এ হত্যা মামলায় ১০ জনকে আসামি করা হয়। পরে ২০১১ সালে তদন্তের প্রেক্ষিতে আরও ২৬ জনকে আসামি করা হয়। পরে তৃতীয় দফায় সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুৎফর জামান বাবর, বিএনপি নেতা হারিছ চৌধুরী ও সিলেটের সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীসহ প্রায় ৩৫ জনকে আসামি করা হয়। এর মধ্যে দু’জন মারা গেছেন।

0Shares





Related News

Comments are Closed