Main Menu

পিপিই সংকট, ওসমানী হাসপাতালে রোগী ভর্তি বন্ধ

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: পর্যাপ্ত সুরক্ষা সরঞ্জাম না থাকায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রোগী ভর্তি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগে চিকিৎসকরা ভর্তি বন্ধের এ নোটিশ টানিয়ে দিয়েছেন।

রোববার (২২ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ নোটিশ টানানো হয়। নোটিশে লেখা রয়েছে ‘পর্যাপ্ত পিপিই সরবরাহ না করায় রোগী ভর্তি বন্ধ’।

জানা যায়, ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম বা পার্সোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই) না থাকায় রোগী ভর্তি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এদিকে ভর্তি হতে না পেরে অন্তঃসত্ত্বা নারীদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে প্রসূতি বিভাগের সামনে অপেক্ষা করতে দেখা গেছে।

তবে এ ব্যাপারে কোনো তথ্য জানা নেই বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের উপপরিচালক হিমাংশু লাল রায়। তিনি বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখছি।

দেশজুড়ে চিকিৎসক ও নার্সরা নভেল করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সতর্কতায় ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম বা পার্সোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই) সরবরাহের দাবি জানিয়ে আসছেন। পিপিই না পেয়ে চিকিৎসকদের ক্ষোভ প্রকাশ করতেও দেখা গেছে। এ পরিস্থিতির মধ্যে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগে ভর্তি বন্ধের নোটিশ ঝুলিয়ে দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

প্রসূতি বিভাগের সামনে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নিয়ে অপেক্ষমান সুদদেব দাস জানান, তিনি সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা থেকে হাসপাতালে এসেছেন স্ত্রীকে ভর্তি করাতে। এখন ভর্তি করাতে পারছেন না। স্ত্রী প্রসব বেদনায় কাতর।

প্রসূতি বিভাগের একজন নার্স বলেন, পর্যাপ্ত সুরক্ষা সরঞ্জাম না থাকায় চিকিৎসকের পাশাপাশি তারাও ঝুঁকিতে রয়েছেন। কারণ তাদের রোগীর সংস্পর্শে আসতে হয়। রোগীকে স্যালাইন, ইনজেকশন দিতে হয়, ওষুধ খাওয়াতে হয়। ব্যক্তিগত সুরক্ষার চিন্তা করে তিনি কাল সোমবার নিজ খরচে রেইনকোট কিনে নেবেন বলে ভাবছেন।

0Shares





Related News

Comments are Closed