Main Menu
শিরোনাম
শাবির ল্যাবে আরো ২২ জনের করোনা শনাক্ত         কমলগঞ্জে এক বৃদ্ধের মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল         জৈন্তাপুরে ভারতীয় পাতার বিড়িসহ গ্রেফতার ১         গোয়াইনঘাটে ধর্ষণ চেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন         শ্রীমঙ্গলে স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামীর আত্মহত্যা!         সিলেট এমসি কলেজের ছাত্রী পপির আত্মহত্যা         ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে         বিশ্বনাথে বৃদ্ধ ও এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার          সিলেটে করোনায় আক্রান্ত বেড়ে ৮৫৮২, মৃত্যু ১৫৩          ওসমানীর ল্যাবে আরো ৬১ জনের করোনা পজিটিভ         বিশ্বম্ভরপুরে বজ্রপাতে কৃষক নিহত         শ্রীমঙ্গলে ঘরে বসে সততা পরীক্ষার আয়োজন        

জনগণের টাকায় ভোগবিলাস নয় : প্রধানমন্ত্রী

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: জনগণের টাকা কারও ভোগবিলাসের জন্য ব্যবহার করতে দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। তিনি বলছেন, সন্ত্রাস, মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে চলমান অভিযান চলবে। জনগণের টাকা কারও ভোগবিলাসের জন্য ব্যবহার করতে দেয়া হবে না। মনে রাখতে হবে অবৈধ, চোরা টাকায় বিরিয়ানি-পোলাও খাওয়া সম্মানের নয়। সৎ টাকায় সাদাসিধে জীবনযাপন করা সম্মানের।’

শনিবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর ও দক্ষিণের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, ‘সবসময় মনে রাখতে হবে বিএনপি, জাতীয় পার্টির মত দলগুলো অবৈধভাবে হত্যা, ক্যূ’র মধ্য দিয়ে জন্ম হয়েছে। এরা মাটি থেকে উঠে আসেনি। তারা সুবিধাভোগী, খাওয়া পার্টি। মানুষকে কিছু দিতে পারে না। কিন্তু আওয়ামী লীগের তো একটা লক্ষ্য উদ্দেশ্য আছে। জনগণের কল্যাণের চিন্তা করে প্রথম বিরোধী দল হিসেবে যাত্রা শুরু করে আওয়ামী লীগ। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছে।’

আওয়ামী লীগের নীতি আদর্শের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, ‘আমাদের নীতি আদর্শ হচ্ছে জনগণের ভাগ্যের পরিবর্তন করা। উন্নত জীবনমান দেয়া। বঙ্গবন্ধু যেটা করেছেন। নিজে কি পেলেন না পেলেন সেই চিন্তা তিনি কখনো করেননি। সেই আদর্শ বুকে ধারণ করে আমাদের চলতে হবে। জনগণের জন্য কতটুকু করতে পারলাম, কি দিতে পারলাম সেটা চিন্তা করতে হবে।’

অসৎ পথে আয় করার মধ্যে কোনো সম্মান নেই এমন মন্তব্য করে সরকারপ্রধান বলেন, ‘সৎপথে কামাই করে যে থাকবে সে সমাজে সম্মান পাবে। চোরা টাকায় বিলাসী জীবন যাপন করলেও মানুষ পেছনে গালি দেবে এই লোকটা চোর। হয়ত সামনে কিছু বলবে না। জাতির পিতা এটা বলে গেছেন।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘টাকা বানানো একটা রোগ, এটা ব্যারাম। একবার বানানো শুরু করলে বানাতেই থাকে। কিন্তু অন্যদিকে পরিবার ধ্বংসের দিকে যাচ্ছে, ছেলে মেয়ে বিপথে যাচ্ছে কিন্তু সেদিকে তাকানোর সময় নেই। শুধু ছুটছে তো ছুটছে টাকার পেছনে। এটা বন্ধ করতে হবে।’

বিএনপির সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা দেশের সম্পদ লুটে খায়, দেশের জনগণের জন্য বোঝা হয়ে ঘাড়ে বসে থাকে তাদের হাত থেকে জনগণকে রক্ষা করাই আমাদের লক্ষ্য।

নিজের সরকারের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা বলতে গিয়ে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, আমরা ২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করবো। ২০২০ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালন করবো। আমরা দেশকে দারিদ্রমুক্ত করবো। উন্নত সমৃদ্ধ করার জন্য অনেক কাজ করছি। আরও কাজ করবো। প্রতিটি ক্ষেত্রে মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। ঢাকা থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে দ্রুত যোগাযোগ করা যায় এজন্য সড়ক ভালো করছি এবং দ্রুত গতির ট্রেন লাইন নির্মাণ হচ্ছে।

বিএনপি প্রধান বেগম খালেদা জিয়ার দুর্নীতির মামলা প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, এতিমের টাকা লুট করার জন্য তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সেই মামলায় কারাগারে আছেন। এটা কোনো রাজনৈতিক মামলা নয়। সরাসরি দুর্নীতির মামলা। আমরা কোনো রাজনৈতিক মামলা দেইনি। বরং খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে আমার বিরুদ্ধে ১২টি মামলা দিয়েছিল। দুজন সংসদ সদস্যকে হত্যা করা হয়েছিল। কত নেতাকর্মী মারা গেছে তাদের সময়। ৬৩টি জেলায় একই দিনে বোমা হামলা হয়েছে।

এর আগে শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা।

0Shares





Related News

Comments are Closed