Main Menu

তাহিরপুরে সীমানা নিয়ে বিরোধে ভাতিজার হাতে চাচা খুন

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় বাড়ির সীমানা নিয়ে হাতাহাতির এক পর্যায়ে গ্রামের সম্পর্কে ভাতিজা কিবরিয়ার আঘাতে চাচা রহমত আলী (৫৫) কে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (১ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় উপজেলার সদর ইউনিয়নের বীর নগর গ্রামে নিহতের নিজ বাড়িতে ঘটনাটি ঘটে।

নিহত রহমত আলী উপজেলা সদর ইউনিয়নের বীরনগর গ্রামের ফজুর রহমানের ছেলে। আর অভিযুক্ত কিবরিয়া একই গ্রামের বাসিন্দা মগুল হোসেনের ছেলে কিবরিয়া।

এ ঘটনার পর ঘাতক কিবরিয়া (৩৫) ও তার ছোট ভাই হোসাইন (৩০) কে গ্রামবাসী মিলে আটক করেছে।

স্থানীয়রা জানান, নিহত রহমত আলীর সাথে মগুল হোসেনের ছেলে গ্রাম সম্পর্কে ভাতিজা কিবরিয়ার বাড়ির জায়গা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। আজ সকালে বাড়ির সামনে বন (উজাউরি বন) কাটা নিয়ে রহমত আলী নিজ বাড়ির পাশের বাসিন্দা কিবরিয়াকে বাধা ও নিষেধ দিলে দু জনের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে লাফল নিয়ে হাতাহাতি হয়। এ সময় বাড়ির অন্যান্য লোকজন বাধা দেয়। এসময় রহতম আলী মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। সাথে সাথে স্থানীয় এলাকাবাসীর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের ছোট ভাই আলী মর্তুজা জানান, গ্রাম সম্পর্কে কিবরিয়া ভাতিজা হয়। বাড়ির সীমানা নিয়ে গত ১৫ বছর ধরে বিরোধ ছিল। বিচার শালিসি করে সীমানা নির্ধারণ করে দিলেও সমাধান হয়নি। এর জের ধরে আজ এই ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছি।

এই বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার মির্জা রিয়াদ হাসান জানান, নিহত রহমত আলী হাসপাতালে নিয়ে আসার পূর্বেই মারা গেছেন। কি কারণে মারা গেছেন তা ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে বলতে পারব।

তাহিরপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সৈয়দ ইফতেখার হোসেন নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করা ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। এখনো পর্যন্ত লিখিত অভিযোগ পাইনি।

0Shares





Related News

Comments are Closed