Main Menu

এলপিজির ১২ কেজি সিলিন্ডারের নতুন দাম ১১৭৮ টাকা

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: দেশে ভোক্তাপর্যায়ে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) প্রতি ১২ কেজি সিলিন্ডারের দাম ৫০ টাকা কমিয়ে এক হাজার ১৭৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর আগে ১২ কেজি এলপিজির সিলিন্ডারের দাম ছিল এক হাজার ২২৮ টাকা। এছাড়া নতুন দামের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে এলপিজির অন্যান্য পরিমাণের দামও একই অনুপাতে কমবে।

সোমবার (৩ জানুয়ারি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নতুন দাম ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)।

ঘোষণা অনুযায়ী, মোটরগাড়ির জন্য অটোগ্যাসের দামও বর্তমানে প্রতি লিটার ৫৭ দশমিক ২৪ টাকা থেকে কমিয়ে ৫৪ দশমিক ৯৫ টাকা করা হয়েছে।

বিইআরসি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল এ ঘোষণা দিয়ে বলেন, বিশ্বব্যাপী সৌদি চুক্তি মূল্যের বাল্ক এলপিজি (সিপি) কমে যাওয়ায় খুচরা এলপিজির দাম কমেছে।

এক ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, সৌদি সিপির দাম আগের দাম প্রতি মেট্রিক টন ৭৬৫ দশমিক ৭৫ মার্কিন ডলার থেকে কমিয়ে ৪২০ মার্কিন ডলার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বৈশ্বিক বাজারদরের সঙ্গে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন এলপি গ্যাস কোম্পানির এলপিজির দাম অপরিবর্তিত থাকবে।

এক প্রশ্নের জবাবে বিইআরসি চেয়ারম্যান বলেন, বিইআরসি নির্ধারিত মূল্যে পণ্যের বিক্রয় নিশ্চিত করতে রিটেল এলপিজি আউটলেটে একটি ইলেকট্রনিক ড্যাশবোর্ড স্থাপনের উদ্যোগ নেবে কমিশন।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে বিইআরসির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বেশিরভাগ বাংলাদেশি প্রাইভেট কোম্পানি সৌদি সিপির ভিত্তিতে মধ্যপ্রাচ্য থেকে তাদের বাল্ক এলপিজি আমদানি করে এবং স্থানীয়ভাবে বাজারজাত করে।

শিল্প সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের মতে, সৌদি সিপি সাধারণত প্রতি মাসের শেষে ঘোষণা করা হয়, যাতে পরবর্তী মাসের জন্য এটি কার্যকর হয় এবং দেশে জ্বালানির চালান আসতে ৭-১০ দিন সময় লাগে।

গত ১২ এপ্রিল দেশে প্রথমবারের মতো এলপিজির দাম নির্ধারণ করেছিল বিইআরসি। তার পর থেকে প্রতি মাসে একবার দাম সমন্বয় করা হচ্ছে।

জানা গেছে, এলপিজি তৈরির মূল উপাদান প্রপেন ও বিউটেন বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা হয়। প্রতি মাসে এলপিজির এই দুই উপাদানের মূল্য প্রকাশ করে সৌদি আরামকো। এটি সৌদি কার্গো মূল্য (সিপি) নামে পরিচিত। এই সৌদি সিপিকে ভিত্তি মূল্য ধরে দেশে এলপিজির দাম সমন্বয় করেছে বিইআরসি।

0Shares





Related News

Comments are Closed