Main Menu
শিরোনাম
হবিগঞ্জ সদরে ৪ ইউপিতে আ.লীগ, বাকি চারে অন্যরা         শান্তিগঞ্জে ২টিতে নৌকা, বাকি ৬টিতে অন্যরা জয়ী         সুনামগঞ্জে সবক’টি ইউনিয়নে নৌকার ভরাডুবি         সিলেটে ৯ ইউপিতে নৌকার জয়, বিদ্রোহীসহ অন্যরা ৭         সিকৃবিতে প্যারাসাইট রিসোর্স ব্যাংক উদ্বোধন         ছাতকে ক্রাশিং চুনাপাথর বিক্রি বন্ধে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ         কমলগঞ্জে বসতঘর থেকে তরুনীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার         মাধবপুরে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহির মৃত্যু         বিশ্বনাথে আমন ধানের বাম্পার ফলন, কৃষকের মুখে হাসি         সিলেটের ১৬ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ চলছে         জৈন্তাপুরে ফ্রি সুন্নতে খতনা ক্যাম্প অনুষ্টিত         সুখী ও সমৃদ্ধ সমাজ গঠনে কাজ করছে ক্যাপ ফাউন্ডেশন        

চবির হল খুলছে সোমবার, খুশি শিক্ষার্থীরা

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: দীর্ঘ ১৯ মাস করোনার স্থবিরতা কাটিয়ে সোমবার (১৮ অক্টোবর) থেকে খুলছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) আবাসিক হল। কেবল আবাসিক ও অনুমতিপ্রাপ্তরাই উঠতে পারবেন হলে।

ইতোমধ্যে হল সংস্কার ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিতে বিভিন্ন প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে হল কর্তৃপক্ষ।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকাল ১০টায় খুলে দেওয়া হবে আবাসিক হলগুলো। আবাসিক শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা অন্তত এক ডোজ টিকা দিয়েছে তাদের টিকা কার্ড ও হলের পরিচয়পত্র দেখে হলে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে।

হলে প্রবেশের সময় শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিতে বিভিন্ন হলের থাকবে বিভিন্ন রকম আয়োজন। শিক্ষার্থীদের দেওয়া হবে ফুল, মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার। কোনো কোনো হলে দেওয়া হবে একবেলার খাবার। আবার কোনো কোনো হলে দেওয়া হবে কলম ও চকলেট।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্টার এস এম মনিরুল হাসান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, হল খোলার পর কেবল আবাসিক ও অনুমতিপ্রাপ্তরা হলে উঠতে পারবে। তাছাড়া হলে অবস্থানরত কোনো শিক্ষার্থীর শারীরিক সমস্যা হলে তাৎক্ষণিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে যোগাযোগ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

চবি প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া বলেন, ‘আগামীকাল সকাল ১০ টা থেকে আমরা হল খুলে দেব। কর্তৃপক্ষ থেকে অনুমোদিত এবং যারা এক ডোজ টিকা নিয়েছেন তাদের হলে প্রবেশ করার সুযোগ থাকবে। আমরা সার্বিক বিষয় সঠিকভাবে সম্পন্ন করতে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেলে শিক্ষার্থী-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টিকার ব্যাবস্থা করা হয়েছে।’

এদিকে ১৯ মাস পর আবাসিক হলে উঠার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছেন শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া হলের আবাসিক শিক্ষার্থী তানহা ইসলাম ছোঁয়া বলেন, ‘আমরা যারা হলে থাকি কালকের দিনটার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি। দীর্ঘ ১৯ মাস পর হলে উঠব, সবার সাথে দেখা হবে। সবকিছু আবার আগের মতো করেই শুরু করব। এটার যে একটা অনুভূতি তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না।’

হল খোলায় স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে এ এফ রহমান হলের আবাসিক শিক্ষার্থী রাকিব হোসাইন বলেন, ‘ক্লাস শুরু হওয়ার আগে হল খোলায় বেশ উপকার হচ্ছে। অন্যথায় বেশ ভোগান্তিতে পড়তে হতো। এতদিন বাড়িতে থেকে অনেকেরই পড়াশোনার ক্ষতি হয়েছে। অবশেষে তা স্বাভাবিক হচ্ছে, এর চেয়ে বড় স্বস্তি আর কিছু নেই।’

0Shares





Related News

Comments are Closed