Main Menu
শিরোনাম
সিলেটে দুই কমিউনিটি সেন্টারকে জরিমানা         কমলগঞ্জে শিশু নির্যাতনের ঘটনায় ইমাম আটক         সাংবাদিক মারুফ হাসানের পিতার ইন্তেকাল         বিশ্বনাথে খাল-বিলে অবাধে পোনা নিধন         সিলেট-৩ আসনকে নান্দনিক করতে সবাইকে নিয়ে কাজ করব : হাবিব         দক্ষিণ সুরমায় অসুস্থ বৃদ্ধের জায়গা আত্মসাতের চেষ্টা         কমলগঞ্জে ফ্যানের আঘাতে চা শ্রমিকের মৃত্যু, শ্রমিকদের কর্মবিরতি         সিলেটে আইনজীবী আনোয়ারের লাশ কবর থেকে উত্তোলন         সিলেটে করোনায় আরো৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬৮         গোয়াইনঘাটে একই পরিবারের ৩জনকে গলাকেটে হত্যা         শ্রীমঙ্গলের সীমান্ত এলাকা থেকে ভারতীয় নারী আটক         সিলেটে অটোরিকশায় যুবতিকে ‘গণধর্ষণ’, গ্রেপ্তার ২        

আজমিরীগঞ্জে দুই পক্ষের সংঘর্ষে যুবক নিহত

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে কামাল মিয়া (৩৬) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন অন্তত আরও ২০ জন।

আহতদের মধ্যে ৫ জনকে হবিগঞ্জ জেলা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ও স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১১ মে) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার রাহেলা গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত কামাল মিয়া ওই গ্রামের ইয়াকুব মিয়ার ছেলে।

আজমিরীগঞ্জ উপজেলার কাকাইলছেও ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বাবুল জানান, আধিপত্ত বিস্তারকে কেন্দ্র করে গ্রামের লোকজন দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে যায়। এক গ্রুপের নেতৃত্ব দেন ইয়াকুব মিয়া ও অপর গ্রুপের শের আলী। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে মামলা-মোকদ্দমাও রয়েছে।

সোমবার বিকেলে খলায় ধান শুকানোকে কেন্দ্র করে ইয়াকুব মিয়া ও শের আলীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরে উপস্থিত লোকজন বিষয়টি সমাধান করে দেন।

মঙ্গলবার সকালে আবারও দুইজনের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পরেন। এতে ঘটনাস্থলেই কামাল মিয়া মারা যান। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত আরও ২০ জন। আহতদের মধ্যে ৫ জনকে হবিগঞ্জ জেলা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ও স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

স্থানীয় কয়েকজন অভিযোগ করেন, সোমবার দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে আজমিরীগঞ্জ থানায় খবর দেয়া হয়। কিন্তু পুলিশ বিষয়টি আমলে নেয়নি। তাদের দাবি তখন পুলিশ ভুমিকা রাখলে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটতো না।

 

 

0Shares





Related News

Comments are Closed