Main Menu

মিথ্যা ধর্ষণ মামলা করায় নারীকে কারাদণ্ড

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: মানিকগঞ্জে মিথ্যা ধর্ষণ মামলা করায় দায়ে আমেনা বেগম (৩৯) নামের এক নারীকে ১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (২২ এপ্রিল) বিকেলে আসামির অনুপস্থিতিতে মানিকগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক বেগম তানিয়া কামাল এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডিত আমেনা বেগম নওগাঁর আত্রাই উপজেলার ভূপাড়া এলাকার মোহাম্মদ আরিফ হোসেনের স্ত্রী। তিনি মানিকগঞ্জের শিবালয়ে টেপড়া এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। ভুক্তভোগী শাহীনুজ্জামান বাবু মানিকগঞ্জের শিবালয়ের শিবরামপুর এলাকার মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে।

রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি একেএম নুরুল হুদা রুবেল জানান, ২০১৭ সালের ২৬ মে শাহীনুজ্জামান বাবুকে আসামি করে শিবালয় থানায় নারী ও নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ মামলা করেন আমেনা বেগম। এরপর ২০১৭ সালের ৯ জুন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। মামলায় ৪ মাস কারাভোগের পর বাবু জামিনে বের হন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পুলিশ পরিদর্শক জাহাঙ্গীর আলম অভিযোগটি তদন্ত করেন এবং মামলার অভিযোগের বিষয়ে কোনো সত্যতা পাননি। ফলে অভিযোগটি মিথ্যা বলে ট্রাইব্যুনালে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। একই সঙ্গে মামলার বাদী আমেনা বেগমের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১৭ ধারায় আইনগত ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। পরে ২০১৮ সালের ২৩ জানুয়ারি মামলাটি খারিজ করেন বিচারক। এর পর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১৭ ধারায় আমেনা বেগমের বিরুদ্ধে শাহীনুজ্জামান বাবু বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলার পর থেকে আসামি আমেনা পলাতক রয়েছেন।

মামলায় ৫ জনের স্বাক্ষ্যগ্রহণ ও আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক শেষে বিচারক এ রায় দেন।

Share





Related News

Comments are Closed