Main Menu

করোনাভাইরাস: নিউ ইয়র্কে জরুরি অবস্থা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নিউ ইয়র্কে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এক রাতের মধ্যে নতুন ২১ জনের দেহে এই ভাইরাস ধরা পড়ায় যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে এই জরুরি অবস্থা জারি করা হয়।

নিউ ইয়র্কে এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৬ জনে, তাদের মধ্যে ১০ জন হাসপাতালে ভর্তি আছেন বলে নিউ ইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো জানিয়েছেন।

৭ মার্চ শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে নভেল করোনাভাইরাস মোকাবেলায় রাজ্যে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন নিউ ইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো।

যুক্তরাষ্ট্রে ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে নতুন করে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে এ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৭-তে দাঁড়িয়েছে। গত শুক্রবার থেকে যুক্তরাষ্ট্রের আরও আটটি অঙ্গরাজ্যে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। এগুলো হলো-সাউথ ক্যারোলাইনা, হাওয়াই, ইন্ডিয়ানা, ওকলাহোমা, নেব্রাস্কা, কেনটাকি, মিনেসোটা ও পেনসিলভানিয়া। এ নিয়ে দেশটির ৫০টি অঙ্গরাজ্যের প্রায় অর্ধেকেই এ ভাইরাস সংক্রমিত হয়েছে।

গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো জানান, বিগত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে যাওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। পুরো দেশে এখন পর্যন্ত ৩৭৭ জনের মধ্যে এই ভাইরাস পাওয়া গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া স্টেটের সান ফ্রান্সিসকো উপকূলে আটকে পড়া প্রমোদ তরীর ২১ যাত্রীর দেহে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েছে। যাত্রী ও নাবিক মিলিয়ে ৩ হাজার ৫৩৩ জন মানুষ এখন ওই প্রমোদ তরীতে আটকা আছেন।

দেশজুড়ে করোনা ভাইরাস আতঙ্কের মধ্যেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছেন, আরেকটি পেশাতেও তিনি উন্নতি করতে পারতেন। আর তা হলো চিকিৎসা বিজ্ঞান। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে হিমশিম খাওয়া চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীদের সঙ্গে সাক্ষাতের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেন তিনি। এমআইটি-তে পড়াশোনা করা নিজের অসাধারণ প্রতিভাধর চাচা-র কথা তুলে ধরে ট্রাম্প দাবি করেন, হয়তো তাদের পরিবারের জিনেই চিকিৎসা বিজ্ঞানে ভালো করার দিকটি রয়েছে।

0Shares





Related News

Comments are Closed