সর্বশেষ
বিশ্বনাথে নদী ভাঙ্গনে আরো ১৫টি পরিবার গৃহহারা         দক্ষিণ সুরমায় তীর খেলার সামগ্রীসহ ৩ যুবক আটক         কোম্পানীগঞ্জে শাহ আরপিন টিলায় শ্রমিকের মৃত্যু         দক্ষিণ সুরমায় সিএইচসিপিদের কর্মবিরতী পালন         কমলগঞ্জে কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরত সিএইচসিপির কর্মবিরতি         মৌলভীবাজারে দুই বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার         গোলাপগঞ্জে দিপু হত্যা: চাচী গ্রেপ্তার, আদালতে স্বীকারোক্তি         শাবির ছাত্রী হলের গ্রিল কেটে ল্যাপটপ ও মোবাইল চুরি         জাতীয় আচার প্রতিযোগিতায় সুনামগঞ্জের পান্না সেরা         দিরাইয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস খাদে, আহত ৩০         শাবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন         শ্রীমঙ্গলে জনগনের মুখোমুখি জনপ্রতিনিধি        

হানিপ্রীতকে নিয়ে অজানা স্থানে পুলিশ, তৈরি ৩০০ প্রশ্ন

বৈশাখী নিউজ ২৪ ডটকম । প্রকাশিতকাল : ১:১১:৫০,অপরাহ্ন ০৯ অক্টোবর ২০১৭ | সংবাদটি ৭৪ বার পঠিত

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: গত মঙ্গলবার চন্ডিগড়ের কাছ থেকে গ্রেফতার করা হয় ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের বিতর্কিত ধর্মগুরু গুরুমিত রাম রহিম সিংহের ‘পালিতা কন্যা’ হানিপ্রীত ইনসানকে। এরই মধ্যে দু’দফা জিজ্ঞাসাবাদে করা হয়েছে তাকে। কিন্তু পুলিশের দাবি, জিজ্ঞাসাবাদে তার কাছ থেকে কোনো সন্তোষজনক উত্তর মেলেনি।

প্রাথমিক জেরার পর এটা বুঝেছে পুলিশ যে, হানিপ্রীতি ভাঙবে কিন্তু মচকাবে না। এরপর থেকে শুরু হয় পুলিশের নতুন কৌশল। এবার হানিকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গিয়ে চলবে জিজ্ঞাসাবাদ। এজন্য তৈরি করা হয়েছে ৩০০ প্রশ্নের একটি তালিকাও।

প্রায় ৩৮ দিন পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে থাকার পর হানিপ্রীতকে গ্রেফতার সম্ভব হয়। কিন্তু জেরা করতে গিয়ে পুলিশ দেখে, হানিপ্রীত বেশ শক্ত নারী। ক্রমাগত মিথ্যা তথ্য দিয়ে একের পর এক পুলিশকে বিভ্রান্ত করেছেন তিনি। অসুস্থতার ভান ধরে হাসপাতালেও গেছেন। কখনও আবার কান্নায় ভেঙে পড়ছেন।

অবশ্য এসব কৌশলে কাজ হয়নি। শারীরিক পরীক্ষায় দেখা গেছে, পুরো সুস্থ হানি। এরপর আবার জেরা শুরু হলে বহু প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে যান তিনি। সাধ্বিদের সঙ্গে ডেরা প্রধান রাম রহিমের গোপন যৌনতা থেকে শুরু করে তার সাজা ঘোষণার পর সিরসার সহিংসতার ঘটনা নিয়ে হানিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। কিন্তু বেশির ভাগ প্রশ্ন হয় এড়িয়ে গেছেন, না হয় মিথ্যা উত্তর দিয়েছেন। রাম রহিম সম্পর্কেও মুখ খুলতে নারাজ তার এই কথিত পালিত কন্যা।

এরপর থেকে ভিন্ন কৌশল হাতে নেয় পুলিশ। তাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে জেরার পরিকল্পনা করা হয়। তবে হানিকে গোপন স্থানে নিতে বেশ কৌশলি হতে হয় পুলিশকে। নারী পুলিশ কর্মকর্তাকে হানিপ্রীত সাজিয়ে দু’টি আলাদা কনভয় আগে বের করে দেওযা হয়। ফলে সংবাদমাধ্যমের দৃষ্টি সেদিকে চলে যায়। এরপর আসল হানিপ্রীতকে নিয়ে অজ্ঞাত স্থানের উদ্দেশে বেরিয়ে যায় পুলিশ।

জানা গেছে, হানিপ্রীতের জন্য তৈরি তিনশ’ প্রশ্নের তালিকা থেকে চলবে জিজ্ঞাসাবাদ। যতোদিন পর্যন্ত সদুত্তর না মেলে, ততোদিন অজ্ঞাত স্থানে রাখা হবে তাকে। এখন হানিপ্রীতকে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে গত ৩৮ দিনের চোর-পুলিশ খেলার পুনরাবৃত্তির অবস্থা তৈরি করছে পুলিশ। এরপর কোনো জেলখানায় নিয়ে জেরা করা হতে পারে তাকে। এবার হানিপ্রীত সত্য বলতে বাধ্য হবেন বলে আশা করছে পুলিশ। সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে






Related News

  • তুরস্কে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৩
  • সিউলে মোটেলে আগুন, ৫ জনের মৃত্যু
  • কাজাখস্তানে বাসে আগুন লেগে নিহত ৫২
  • নাইজেরিয়ায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ১০
  • মিয়ানমারে পুলিশের গুলিতে ৭ বিক্ষোভকারী নিহত
  • ষাট বছরের বৃদ্ধাকে গণধর্ষণের পর হত্যা
  • জাপানে পটকা মাছে সতর্কতা
  • কলম্বিয়ায় নির্মাণাধীন সেতু ধসে নিহত ১০
  • Comments are Closed