সর্বশেষ

তানোরে আমণ চাষে পার্চিং পদ্ধতি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে

বৈশাখী নিউজ ২৪ ডটকম । প্রকাশিতকাল : ৫:৪১:০৭,অপরাহ্ন ০৬ অক্টোবর ২০১৭ | সংবাদটি ৩৮ বার পঠিত

আলিফ হোসেন, তানোর থেকে: রাজশাহীর তানোরে আমণখেতের পোকা দমনে কৃষি বিভাগের পরামর্শে কৃষকরা জমিতে কিছু দুর পর পর ধঞ্চে, কলাগাছ ও গাছের ডাল পুঁতে দিচ্ছেন। ধানখেতে পুঁতে রাখা এসব গাছ ও ডালগুলোতে বিভিন্ন রকমের পাখি বসছে এবং ধানখেতের পোকা ধরে খাচ্ছে। ফলে কীটনাশক ও বিভিন্ন ধরণের ওষুধ ছাড়াই পোকার আক্রমণ থেকে ধানগাছ রক্ষা পাচ্ছে। ফসলের জমিতে পাখি বসার উপযোগী গাছ ও ডাল পুঁতে পোকা দমন করার এ পদ্ধতির নাম পার্চিং পদ্ধতি বলে কৃষিবিদরা জানিয়েছেন। অল্প সময়ের মধ্যে এই পদ্ধতি স্থানীয় কৃষকদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। ফলে ফসলের পোকা দমনে পার্চিং পদ্ধতি দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।
সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, তানোরে চলতি মৌসুমে প্রায় সাড়ে ২১ হাজার হেক্টর জমিতে আমণ চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এলাকার অধিকাংশ আমণখেতে পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে। উপজেলার তাঁতিহাটি গ্রামের কৃষক আব্দুর রাজ্জাক (৪৫) বলেন, আমারে এলাকার সব জমিতে পুকা লাগিছে। এমনিতে এ বছর ধানের বিছন (চারা) কিনতে যায়া মেলা ট্যাকা খরচ করিছি। এখন ধানের জমিত পুকা লাগিছে কিন্ত বিষ ও ওষুদ কিনার লগদ ট্যাকা নাই। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শফিবুল ইসলাম স্যারের কাছে গেলে তিনি আমাকে জমিত বিভিন্ন গাছের ডাল পুঁত্যা র‌্যাকতে বুলিছে। স্যারের কথা শুন্যা জমিত ডাল পুঁত্যা রাখিছি। আমি মেল্যা উপকারও পালসি। আমার জমিত এখন পুকার আক্রমণ ম্যালা কম্যা গেলছে।
তানোরের গোল­াপাড়া গ্রামের স্বর্ণ পদকপ্রাপ্ত আদর্শ কৃষক নুরমোহাম্মদ (৪৫) বলেন, এ পদ্ধতিতে পোকা দমন আমাদের এলাকায় প্রায় নতুন। তিনি বলেন, এ পদ্ধতিতে পোকা দমন করায় ফসলে ক্ষতিকর কীটনাশক ব্যবহার করার প্রয়োজন হয় না। ফলে শ্রম ও আর্থিকভাবে কৃষকরা উপকৃত হচ্ছে। যে কারণে পার্সিং পদ্ধতিতে ফসলের পোকা দমন দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তিনি এ পার্চিং পদ্ধতিতে পোকা দমনের বিষয়ে ব্যাপক-প্রচার ও প্রচারণার দাবি জানান।
তানোর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন, তানোরে কৃষকদের কাছে পোকা দমনের পার্চিং পদ্ধতি অনেকটা নতুন। এলাকার অধিকাংশ আমণক্ষেতে ইতিমধ্যে পার্চিং পদ্ধতিতে পোকা দমন করা হচ্ছে। এটা পরিবেশবান্ধব এবং এই পদ্ধতি ব্যবহারে জমিতে ক্ষতিকারক কীটনাশক ব্যবহার কমবে। এছাড়াও কৃষকরা অতিরিক্ত অর্থখরচ ও শ্রম দুটি বিষয়ে উপকৃত হবে। তিনি বলেন, এ বিষয়ে কৃষকদের মধ্যে গণসচেতনতা সৃষ্টির জন্য কৃষি বিভাগ থেকে ব্যাপকভাবে প্রচারণা করা হচ্ছে।






Related News

  • সবজি উৎপাদনের কলাকৌশল বিষয়ে কৃষক প্রশিক্ষণ
  • ডোমারে মালটা চাষে সফল আব্দুল্লাহ
  • চুয়াডাঙ্গায় আমের সঙ্গে মানকচু চাষ
  • তানোরে আমণ চাষে পার্চিং পদ্ধতি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে
  • নদীতে ভাসমান সবজি চাষ করে সফল সহিদ তালুকদার
  • তানোরে আমণখেতে ইঁদুরের উপদ্রব
  • পার্বতীপুরে হাইব্রীড এসিআই আমন ধান কাটা উদ্বোধন
  • দক্ষিণ সুরমায় কৃষকদের সাথে বিএডিসি উপ-পরিচালকের মতবিনিময়
  • Comments are Closed