সর্বশেষ
মাধবপুরে বিজিবির অভিযানে ১২ কেজি গাঁজা উদ্ধার         জামালগঞ্জে ভীমরুলের কামড়ে শিশুর মৃত্যু         রাজনগরে তৃতীয়বার তলিয়ে গেল কৃষকের স্বপ্ন         নবীগঞ্জে ৫ পলাতক আসামী গ্রেফতার         বিশ্বনাথে গ্রাম আদালত শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্টিত         ছাতকে মালামালসহ ৩ ডাকাত গ্রেফতার         ছাতকে ভিক্ষুক মহিলাকে ধর্ষণ, আটক ১         কমলগঞ্জের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ার খান আর নেই         মাধবপুরে ২১শ’ পিস ইয়াবাসহ আটক ৩         পৈত্রিক সম্পত্তি আত্মসাতে ভাইয়ের রোষানলে প্রবাসী মানিক         ধলাই নদের ৬টি স্থানে ভাঙ্গন, তলিয়ে গেছে আমন ফসল ও রাস্তা         কমলগঞ্জ ফারিয়া’র কমিটি গঠন        

লাব্বায়েক ধ্বনিতে মুখরিত আরাফাত ময়দান

বৈশাখী নিউজ ২৪ ডটকম । প্রকাশিতকাল : ১২:৪১:৩৭,অপরাহ্ন ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | সংবাদটি ৮৩ বার পঠিত

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: ২০ লাখের বেশি ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের সমবেত কণ্ঠে ‘লাব্বায়েক আল্লাহুম্মা লাব্বায়েক’ ধ্বনিতে মুখর হলো মক্কার আরাফাতের ময়দান। বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজের পরই মিনা থেকে মুসল্লিরা সমবেত হন আরাফাতের ময়দানে। সেখানে মুসল্লিদের উদ্দেশে খুতবা পাঠ ও বয়ান করা হয়। পরে জোহর ও আসরের নামাজ আদায় করে সূর্যাস্ত পর্যন্ত সেখানেই অবস্থান নেন।

পাপমুক্তি ও আত্মশুদ্ধির আকুল বাসনা নিয়ে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা বৃহস্পতিবার পবিত্র হজ পালন করেছেন। সূর্যোদয়ের পর হাজিরা সৌদি আরবের মিনা থেকে ট্রেনে-বাসে বা হেঁটে রওনা হন আরাফাতের ময়দানের উদ্দেশে।

হজের দিনে (৯ জিলহজ) এ ময়দানে অবস্থান করা হজ পালনকারীদের জন্য তিনটি ফরজের মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এ ময়দানেই মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) বিদায় হজের ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন। মূলত ৯ জিলহজ আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করাই হজ। ১২ জিলহজ হজের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হবে।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকেই হাজিরা ইহরাম বেঁধে ‘লাব্বাইকা আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনি উচ্চারণ করে পবিত্র মক্কা নগরী থেকে মিনার উদ্দেশে রওনা দেন। আর এর মধ্য দিয়েই শুরু হয় হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা। এরপর গতকাল মিনা থেকে তারা সমবেত হন আরাফাতের ময়দানে।

কেউ পাহাড়ের কাছে, কেউ সুবিধাজনক জায়গায় বসে দিনভর ইবাদত করেন। কেউ যান জাবালে রহমতের (রহমতের পাহাড়) কাছে। মসজিদে নামিরাহ থেকে হজের খুতবা দেন সৌদি আরবের গ্র্যান্ড মুফতি আবদুল আজিজ আল শাইখ।

হজ ভিসা নিয়ে যাঁরা সৌদি আরবে গিয়ে অসুস্থতার জন্য হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন, তাদেরও হজের গুরুত্বপূর্ণ এই ফরজ পালনে (আরাফাত ময়দানে উপস্থিতি) অ্যাম্বুলেন্সে আরাফাত ময়দানে স্বল্প সময়ের জন্য আনা হয়েছিল।

আরাফাত মিনা থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরে। এই ময়দানে অবস্থিত মসজিদে নামিরাহতে জামাতে অংশগ্রহণকারীরা এক আজান ও দুই ইকামতের সঙ্গে একই সময়ে পরপর জোহর ও আসরের নামাজ আদায় করেন। নামাজের আগে ইমাম সাহেব খুতবা দেন। যারা এ মসজিদে নামাজের জামাতে শামিল হতে পারেননি তারা নিজ তাবুতে জামাতে নামাজ আদায় করেন।

উল্লেখ্য, ‘লাব্বাইকা আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইকা লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হাম্‌দা ওয়ান্‌নি’মাতা লাকা ওয়াল মুল্‌ক, লা শারিকা লাক’ (আমি হাজির, হে আল্লাহ আমি হাজির, তোমার কোনো শরিক নেই, সব প্রশংসা ও নিয়ামত শুধুই তোমার, সব সাম্রাজ্যও তোমার, তোমার কোনো শরিক নেই) ধ্বনিতে বৃহস্পতিবার মুখরিত হলো পবিত্র আরাফাত ময়দান।






Comments are Closed