Main Menu

বিশ্বনাথে ধর্ষণে শ্যালিকা অন্তঃসত্ত্বা, দুলাভাই গ্রেপ্তার

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি : সিলেটের বিশ্বনাথে ১৪ বছর বয়সী নিজ শ্যালিকাকে ধর্ষণ করে অন্তঃসত্ত্বা করার অভিযোগে লম্পট দুলাভাইকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পাশবিক নির্যাতনের শিকার হওয়া ওই কিশোরীর মা বাদি হয়ে বিশ্বনাথ থানায় অভিযোগ দায়ের করলে রোববার (১০ ফেব্রুয়ারি) রাতে ভিকটিমের দুলাভাই অভিযুক্ত রাসেল মিয়া (২৫) কে আটক করে থানা পুলিশ। সে উপজেলার পুরান সৎপুর গ্রামের ইছদ্দর আলীর ছেলে। তাকে আটকের পর রাতেই থানায় মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। মামলা নং- ৫।

জানা গেছে, প্রায় ২ বছর পূর্বে নিজ গ্রামের বাসিন্দা জনৈকা রহিমা বেগমকে বিয়ে করে অটোরিক্শা (টমটম) চালক রাসেল মিয়া। বিয়ের প্রায় বছর খানেক পর তাদের ঘরে জন্মগ্রহন করে একটি কন্যা সন্তান। একই গ্রামে শশুর বাড়ি হওয়ার সুবাদে প্রতিদিন সেখানে যাতায়াত করে রাসেল। তার হতদরিদ্র শশুর প্রতিবন্ধী থাকায় শাশুড়ি প্রতিদিন গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে গিয়ে দিনমজুরের কাজ করেন। এই সুযোগে রাসেল তার নিজ শ্যালিকা (১৪ বছর বয়সী কিশোরী) কে জোরপূর্বক ধর্ষণ করতে থাকে। একপর্যায়ে ওই কিশোরী প্রায় ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে ঘটনাটি লোকমুখে এলাকার সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি স্থানীয় মাতব্বরা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করলে তা জানতে পারে থানা পুলিশ। এরপর রোববার রাতে অভিযুক্ত রাসেল মিয়া ও তার শ্যালিকা (ভিকটিম) কে থানায় ডেকে আনে পুুলিশ। এসময় পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে ভিকটিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করলে ও ভিকটিম কিশোরীর মা থানায় অভিযোগ দিলে অভিযুক্ত রাসেল মিয়াকে আটক করে পুলিশ। এরপর রোববার রাতেই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০৩ এর সংশোধনী ৯ (ক) ধারায় থানায় মামলা রেকর্ড করা হয়।

মামলা দায়ের ও অভিযুক্ত রাসেল মিয়াকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামসুদ্দোহা পিপিএম।






Related News

Comments are Closed