Main Menu

ফারমার্স ব্যাংক এখন থেকে পদ্মা

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক “দি ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেড”-এর নাম পরিবর্তন করে “পদ্মা ব্যাংক লিমিটেড” নির্ধারণ করা হয়েছে।

ফারমার্স ব্যাংকের নাম পরিবর্তনের বিষয়টি বুধবার (৩০ জানুয়ারি) বাংলাদেশ ব্যাংক এক প্রজ্ঞাপন জারি করে দেশের কার্যরত সব তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ২৯ জানুয়ারি ২০১৯ মোতাবেক ১৬ মাঘ ১৪২৫ রোজ মঙ্গলবার হতে তফসিলি ব্যাংকসমূহের তালিকায় “দি ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেড” এর নাম “পদ্মা ব্যাংক লিমিটেড” হিসেবে পরিবর্তন করা হয়েছে। ১৯৭২ (রাষ্ট্রপতির ১৯৭২ সালের ১২৭ নম্বর আদেশ) এর ৩৭(২)(সি) ধারার প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ নাম পরিবর্তন করা হয়।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক ২৯ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে জারিকৃত প্রজ্ঞাপন নং-বিআরডিপি(পি)/৭৪৪(৯৩)/২০১৯-৮৯৮।

জানা যায়, দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনায় দেউলিয়া হয়ে যাওয়া চতুর্থ প্রজন্মের বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক ফারমার্স ব্যাংক। ব্যাংকটি ব্যবস্থাপনা থেকে শুরু করে আয়-ব্যয়সহ সবক্ষেত্রে অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। শেষে ব্যাংক চালাতে ব্যর্থ হওয়ায় ২০১৭ সালের ২৭ নভেম্বর পদত্যাগ করেন ফারমার্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর এবং নিরীক্ষা কমিটির চেয়ারম্যান ও পরিচালক মাহাবুবুল হক চিশতী।

ব্যাংকের এমডি এ কে এম শামীমকে অপসারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপর গ্রাহকরা টাকা তুলে নেওয়া শুরু করে। সর্বশেষ ব্যাংকটিকে উদ্ধারে রাষ্ট্রায়ত্ত পাঁচ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান এগিয়ে আসে। পাশে এসে দাঁড়ায় সরকার।

রাষ্ট্রায়ত্ত পাঁচটি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান ব্যাংকটিকে ইতিমধ্যে ৭১৫ কোটি টাকা মূলধন সরবরাহ করেছে। ফারমার্স ব্যাংককে মূলধন দেওয়া রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো হলো-সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী ও ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি)।

ফারমার্স ব্যাংকের অন্য একটি সূত্র জানায়, নাম পরিবর্তন হওয়ার ফলে ব্যাংকটি নতুন করে শুরু করতে পারবে। এর ফলে ফারমার্স ব্যাংক নিয়ে মানুষের যে নেতিবাচক মনোভাব তৈরি হয়েছে তা দূর হবে। পাঁচ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান মূলধন সরবরাহ করার পর এই পাঁচ প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী ফারমার্স ব্যাংকের পরিচালক হিসেবে যুক্ত হয়েছেন।

ফারমার্স ব্যাংক পরিচালনার ক্ষেত্রে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকে তাদের অভিজ্ঞতা কাজে লাগানো সম্ভব হচ্ছে। ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে বিস্তর অভিজ্ঞতা নিয়ে প্রাইম ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক এহসান খসরু যোগ দিয়েছেন। ব্যাংকটিকে এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে তিনিও ভূমিকা রাখছেন। ব্যাংকটির শুধু নাম পরিবর্তনই নয়, মূলধনের যাতে কোনো সমস্যা না হয় সেজন্য আরও ৫০০ কোটি টাকার বন্ড ছাড়ার কার্যক্রম চলছে।






Related News

Comments are Closed