Main Menu
শিরোনাম
‘জাফলংয়ের সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় আনুন’         ধানের শীষ প্রতীক পেলেন ড. রেজা কিবরিয়া         শ্রীমঙ্গলে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস পালিত         গোলাপগঞ্জে দুই ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার         সিলেটে একমাত্র স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রতীক সিংহ         সিলেটের ৬টি আসনের প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ         গোয়াইনঘাটে গরুচোরদের হামলায় নিহত ১         হবিগঞ্জে ৭ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার         পীরেরবাজারে ট্রাক চাপায় স্কুলছাত্র নিহত         গোলাপগঞ্জে যুবদল সভাপতি গ্রেফতার         মৌলভীবাজারে ৫ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার         সুনামগঞ্জে ৯ জনের প্রার্থীতা প্রত্যাহার        

ফের ভারতীয় কয়লা আমদানি শুরু হচ্ছে

প্রকাশিত: ১২:২৮:৩৬,অপরাহ্ন ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | সংবাদটি ১৬ বার পঠিত

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সিলেটের তামাবিল, সুনামগঞ্জের বড়ছড়াসহ দেশের ছয় স্থল শুল্ক ষ্টেশন দিয়ে ফের ভারতীয় কয়লা আমদানি শুরু হতে যাচ্ছে।
৫ ডিসেম্বর বুধবার ভারতীয় উচ্চ আদালত ও সেখানকার রফতানিকারক প্রতিষ্টানের বরাত দিয়ে সিলেট ও সুনামগঞ্জের তাহিরপুর কয়লা আমদানিকার গ্রুপের দায়িত্বশীল সুত্র আগামি ১০ ডিসেম্বর সোমবার থেকে ফের কয়লা আমদানি শুরু হবে বলে নিশ্চিত করেছেন।
ফলে দীর্ঘ কয়েকমাস বন্ধ থাকার পর সিলেটের তামাবিল, সুনামগঞ্জের সীমান্তবর্তী তাহিরপুরের বড়ছড়া, চারাগাঁও, বাগলী সহ দেশের ছয় শুল্ক ষ্টেশন দিয়ে আবারো ভারতের মেঘালয় থেকে কয়লা আমদানির সুযোগ সৃষ্টি হল।
ভারতীয় আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ২০১৯ সালের ৩১ জানুয়ারী পর্যন্ত শুধুমাত্র মেঘালয় রাজ্যের সীমান্তঘেষা সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের তিন শুল্ক ষ্টেশই নয় সিলেটের তামাবিল, ময়নসিংহের হালুয়াঘাটের গোবরাকুড়া এবং কড়ইতলী সহ একযোগে দেশের ছয় স্থল শুল্ক ষ্টেশন দিয়েই ভারতীয় কয়লা আমদানি শুরু হবে।
দায়িত্বশীল সুত্র জানায়, ভারতের মেঘালয়ের পরিবেশবাদী সংগঠন ডিমাহাসাও জেলা ছাত্র ইউনিয়নের মামলার ভিত্তিতে ২০১৪ সালের ১৭ এপ্রিল সে দেশের ন্যাশনাল গ্রীণ ট্রাইব্যুনাল (এনজিটি) আদালত মেঘালয় সরকারকে অপরিকল্পিত ভাবে কয়লা খনন ও পরিবহন বন্ধের নির্দেশ দেন। একই বছরের ৬ মে সংশ্লিষ্ট বিভাগের বিভাগীয় মুখ্যসচিব মেঘালয় রাজ্যের প্রতিটি জেলার জেলা প্রশাসককে ওই নির্দেশনা কার্যকর করতে বলা হয়। আইনি বাধ্যবাধকতার কারনে ২০১৪ সালের ১৩ মে থেকে মেঘালয়ের সীমান্ত জেলাগুলোয় ১৪৪ ধারা জারি করে কয়লা পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।
এরপর থেকে বাংলাদেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সবচেয়ে বড় শুল্কবন্দর সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের বড়ছড়া-চারাগাঁও, বাগলী, সিলেটের তামাবিল, ময়মনসিংহের গোবড়া এবং কড়ইতলী সহ ছয় শুল্ক ষ্টেশন দিয়ে ভাতের মেঘালয় থেকে কয়লা আমদানি বন্ধ হয়ে যায়।
পরবর্তীতে ভারতীয় রপ্তানীকারক প্রতিষ্টািনগুলো আইনি লড়াই করে প্রথমে ২০১৫ সালে উত্তোলিত কয়লা ৩ মাস এবং ওই সময়সীমা ৫ দফা বাড়িয়ে গত ৫ বছরে প্রায় ২১ মাস উত্তোলিত কয়লা রফতানি করার সুযোগ পান। একই ভাবে চলতি বছরের ৫ ডিসেম্বর আবারো ভারতের সুপ্রিম কোর্ট ২০১৯ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত ভারতে উত্তোলিত কয়লা বাংলাদেশে ফের রফতানির সুযোগ দেয়া হয়।
তাহিরপুর কয়লা আমদানীকারক গ্রুপের সচিব রাজেশ তালুকদার বলেন, ভারতের রফতানিকারক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ফের কয়লা রফতানি বিষয়টি সেদেশের উচ্চ আদালত থেকে আদেশপ্রাপ্ত হয়ে তাহিরপুর কয়লা আমদানিকারক গ্রুপকে অবহিত করেছেন, এখন আগামি ৮ ডিসেম্বর শনিবার আমদানিককারক ও রফতানিকারক সংগঠনের নেতৃবৃন্ধের যৌথ বৈঠকের পর ১০ ডিসেম্বর সোমবার থেকে ফের কয়লা আমদানি শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের বড়ছড়া রাজস্ব কর্মকর্তার কার্যালয় সুত্র জানায়, নতুন করে আদানিকারকগণ ৯ ডিসেম্বর রোববার ব্যাংকে এলসি করার পর সোমবার থেকেই ভারত থেকে কয়লা আমদানি-রফতানি কাযক্রম শুরু হবে।






Related News

Comments are Closed