Main Menu
শিরোনাম
‘জাফলংয়ের সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় আনুন’         ধানের শীষ প্রতীক পেলেন ড. রেজা কিবরিয়া         শ্রীমঙ্গলে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস পালিত         গোলাপগঞ্জে দুই ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার         সিলেটে একমাত্র স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রতীক সিংহ         সিলেটের ৬টি আসনের প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ         গোয়াইনঘাটে গরুচোরদের হামলায় নিহত ১         হবিগঞ্জে ৭ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার         পীরেরবাজারে ট্রাক চাপায় স্কুলছাত্র নিহত         গোলাপগঞ্জে যুবদল সভাপতি গ্রেফতার         মৌলভীবাজারে ৫ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার         সুনামগঞ্জে ৯ জনের প্রার্থীতা প্রত্যাহার        

বিয়ানীবাজার মুক্ত দিবস আজ

প্রকাশিত: ১১:১২:২৯,অপরাহ্ন ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | সংবাদটি ১৯ বার পঠিত

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: আজ ৬ ডিসেম্বর, বিয়ানীবাজার মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালে এই দিনে বিয়ানীবাজার উপজেলা হানাদার মুক্ত হয়েছিল। দীর্ঘ নয় মাসের মুক্তি সংগ্রামের পর উপজেলার কয়েক হাজার মানুষ পাকবাহিনী ও রাজাকার দ্বারা নির্যাতিত হয়েছিলেন। মুক্তিযুদ্ধে বিয়ানীবাজারে শহীদ হন ১২৪ জন।

সর্বশেষ ৬ ডিসেম্বর ভোরে উপজেলার মুডিয়া ইউনিয়নের তাজপুরে পাক সেনাদের সাথে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মুখ যুদ্ধ হয়েছে। ওই দিনই বিয়ানীবাজার থানায় পাক সেনাদের ক্যাম্প থেকে সকল সৈন্য পালিয়ে যায়।

স্থানীয় মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও মুক্তিযোদ্ধারা বিয়ানীবাজার থানা টিলায় বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। পাক সেনারা উপজেলার কাঁঠালতলা বধ্যভূমি ও রাঁধা টিলায় স্থানীয়দের ধরে এনে নির্যাতন করতো।

নির্যাতিতদের মধ্যে কাঁঠাল তলায় প্রায় ৬০ জনের উপরে এবং রাধা টিলা প্রায় ৩০ জনকে পাক সেনারা গুলি করে হত্যা করে। দেশের একমাত্র প্রবাসী বাউল কমর উদ্দিনকেও কাঁঠাল তলায় হত্যা করে পাকবাহিনী।

রাধা টিলায় সুপাতলার ঘোষ পরিবারের ১২জনকে এক সাথে হত্যা করে। যুদ্ধের পর মুক্তিযোদ্ধারা উপজেলায় ৬টি গণকবর আবিষ্কার করেন।






Related News

Comments are Closed