Main Menu
শিরোনাম
বিশ্বনাথে ‘ধানের শীষ’র নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন         জৈন্তাপুরে শুকসারী ঘাট নির্মাণে গচ্ছা গেল ২০ লক্ষ টাকা         জাফলংয়ে ব্যবসায়ীকে হয়রানীর অভিযোগ         ধানের শীষ প্রতীক পেলেন ড. রেজা কিবরিয়া         শ্রীমঙ্গলে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস পালিত         গোলাপগঞ্জে দুই ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার         সিলেটে একমাত্র স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রতীক সিংহ         সিলেটের ৬টি আসনের প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ         গোয়াইনঘাটে গরুচোরদের হামলায় নিহত ১         হবিগঞ্জে ৭ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার         পীরেরবাজারে ট্রাক চাপায় স্কুলছাত্র নিহত         গোলাপগঞ্জে যুবদল সভাপতি গ্রেফতার        

ওয়াদি আল ফাতাহ ; ওমানের দৃষ্টিনন্দন পর্যটন স্থল

প্রকাশিত: ৪:৩৬:১৫,অপরাহ্ন ১৬ নভেম্বর ২০১৮ | সংবাদটি ২৪ বার পঠিত

পর্যটন ডেস্ক: বিশাল আরব দেশ ওমানের ওয়াদি আল ফাতাহ হচ্ছে দেশটির অন্যতম সুবিখ্যাত পর্যটন কেন্দ্র। এটা আল দাহিরাহ প্রদেশের উইলিয়াতের উপত্যকায় অবস্থিত। ওয়াদিটি উইলিয়াতের উত্তরে এবং এর কেন্দ্রে থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এই উপত্যকাটি পর্বতমালার মধ্যে দিয়ে গেছে এবং সারা বছরই এখানে পর্যাপ্ত পানি থাকে। বৃষ্টিপাত হলে তা বৃদ্ধি পায়। সারা উপত্যকা জুড়ে নানা ধরনের গাছপালা বিদ্যমান। পাহাড়ী উপত্যকার ঘাফ, সিদর ও রোহিদা এলাকাসমূহে প্রচুর বৃক্ষরাজি রয়েছে। গ্রীষ্মে এসব এলাকা সবুজ গাছপালায় সুশোভিত হয়ে ওঠে। পর্যটক ও দর্শনার্থীরা উপত্যকার প্রাকৃতিক মনোমূগ্ধকর শোভা উপভোগের জন্য এখানে ছুটে আসেন। ঝোপঝাড়ের ছায়ায় ঝর্ণার ধারে তাদের আনন্দ মেতে ওঠতে দেখা যায়।

ওয়াদি আল ফাতাহে আরো রয়েছে নানা আকৃতি ও বর্ণের পাথুরে পাহাড় যেগুলোর মধ্যে দাগবিহীন সাদা পাথর সবচেয়ে দর্শনীয় বস্তু। উচুঁ পর্বতমালা ঘিরে আছে এসব সাদা পাথুরে পাহাড় বা টিলা। স্থানীয়ভাবে কথিত ‘ঘালি ফালাজ’ নামক ঝর্ণা বয়ে গেছে এই উপত্যকার মধ্যে দিয়ে। বৃষ্টিপাতের পর এই ¯্রােতস্বী উচ্ছুসিত হয়ে ওঠে। এটা খেজুর বীথি ও নানা ধরনের গাছ পালার মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। এখানে দর্শনার্থীদের কাছে আরেকটি আকর্ষনীয় বিষয় হচ্ছে প্রাচীন ওমানী পানিসেচ ব্যবস্থা। এটা অনন্য শৈল্পিক ও স্থাপত্যের নিদর্শন।

প্রাকৃতিক পরিবেশকে ব্যবহার করে সৃষ্ট এই সেচ ব্যবস্থা থেকে যুগ যুগ ধরে ওমানের জনগন উপকৃত হচ্ছে। ওমানের এই সেচ ব্যবস্থা ‘আফলাজ’ নামে পরিচিত এবং এটা এক হাজার বছরের পুরোনো পদ্ধতি, যা এ অঞ্চলের ৫ হাজার বছর আগের কানাত বা কারিজ সেচপদ্ধতির পরবর্তী সংষ্করন। কানাত ও কারিজ ফার্সী শব্দ। ‘আফলাজ’ শব্দের অর্থ বিভিন্ন ভাগে বিভক্ত হওয়া। আফলাজ সেচ পদ্ধতি ওমানের দাখিলিয়া, শারকিয়াহ ও বাতিনাহ এলাকায় জনপ্রিয় ছিলো।

ওমানী নাগরিক শেখ হামাদ বিন সাঈদ আল সাঈদী বলেন, বছরের কয়েক মাস ওয়াদী আল ফাতাহের দৃষ্টপটে পরিবর্তন লক্ষ করা যায়, যখন বিভিন্ন প্রকৃতির অতিথি পাখি এসে এখানে ভিড় করে। এটা উপত্যকার প্রাকৃতিক শোভা ও বৈচিত্র বৃদ্ধি করে। এই ওয়াদি ওমান সুলতানাতের অভ্যন্তরীন পর্যটক ও বিদেশী পর্যটকদের কাছে সমান জনপ্রিয়। এই উপত্যকা ‘আল ফাতাহ’ নামক শহরে অবস্থিত। এখানে বহু সুন্দর সুন্দর দর্শনীয় ও প্রাকৃতিক ভারসাম্য সৃষ্টিকারী বিচিত্র বস্তু রয়েছে। পাহাড়ী গুহা, সমতল ভূমি ও কৃষিক্ষেতগুলো এই বৈচিত্রের উদাহরণ। সর্বোপরি ধূসর পাহাড়ের পাশাপাশি সবুজের সমারোহ ওয়াদি আল ফাতাহকে অনন্য সৌন্দর্য প্রদান করেছে।

শহরটির চারদিকে অনেকগুলো জন অধ্যুষিত গ্রাম রয়েছে। এসব গ্রামের বাসিন্দাদের অনেকে মেষ চরায় এবং পশুপালন করে। ধাংকের উইলিয়াতে অবস্থিত ওয়াদি আল ফাতাহ এমন একটি প্রাকৃতিক রিসোর্ট বা অবকাশ কেন্দ্র যেখানে সারা বছর পর্যটকদের আগমন ঘটে। বিশেষভাবে সপ্তাহান্তে ও হালকা শীতল দিনসমূহে ভিড় জমে। দলে দলে দেশ বিদেশী পর্যটক দর্শনার্থী ছুটে আসেন এর মনোরম প্রাকৃতিক দৃশ্য এবং পর্বতমালা থেকে নেমে আসা পানির ঝর্ণা ধারার সৌন্দর্য উপভোগের জন্য।
অনুবাদঃ নিজাম উদ্দিন সালেহ
সূত্রঃ টাইমস্ অব ওমান






Related News

Comments are Closed