Main Menu
শিরোনাম
ছাতকে অজ্ঞান করে সাংবাদিকের বাসায় চুরি         কমলগঞ্জে কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধার         গোলাপগঞ্জে ঘরের ভেতর মাছ চাষ পদ্ধতির উদ্বোধন         শাবির টিলায় শিশু ধর্ষণের চেষ্টা, লম্পট আটক         নবীগঞ্জে ভারতীয় নাসির বিড়িসহ গ্রেফতার ১         শাহ মাদার (র:) মাজারে ওরস ২৬ জানুয়ারী         কুলাউড়ায় অবৈধভাবে পাহাড় কাটায় জরিমানা         সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ছাত্রলীগের হামলা, আহত ৪         জকিগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হবেন যারা         সিলেট সিক্সার্সের খেলা দেখতে মাঠে মুহিত         সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন         প্রতীকের আত্মহত্যা: পরিবারকে দুষলেন শাবি ভিসি        

এবার ক্ষমা চাইতে মাসুদা ভাট্টিকে নোটিশ

প্রকাশিত: ৪:১৩:৪৬,অপরাহ্ন ২২ অক্টোবর ২০১৮ | সংবাদটি ৬২ বার পঠিত

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: নবগঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের কাছে ক্ষমা চাওয়ার জন্য দৈনিক আমাদের অর্থনীতির নির্বাহী সম্পাদক মাসুদা ভাট্টিকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী এসএম জুলফিকার আলী জুনু।

সোমবার (২২ অক্টোবর) তিনি এ লিগ্যাল নোটিশ প্রেরণ করেন।

নোটিশে বলা হয়, মাসুদা ভাট্টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন। এতে তার সম্মানহানি হয়েছে। এ জন্য আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জাতির সামনে তথ্যপ্রমাণসহ তুলে ধরার জন্য অনুরোধ করেন।

মাসুদা ভাট্টি উপযুক্ত তথ্যপ্রমাণ তুলে ধরতে ব্যর্থ হলে প্রকাশ্যে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের কাছে ক্ষমা চাইতে অনুরোধ করেন। অন্যথায় যথোপযুক্ত আইনের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট আদালতে ক্ষতিপূরণ ও শাস্তি চেয়ে মানহানির মামলা দায়ের করা হবে।

এ ছাড়া সামাজিক মাধ্যমে মইনুল হোসেনকে নিয়ে মন্তব্য করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তাকে কেন অপরাধী করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

লিগ্যাল নোটিশের এক কপি ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়ার কাছে পাঠানো হয়। নোটিশ প্রাপ্তির এক সপ্তাহের মধ্যে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৬ অক্টোবর বেসরকারি টেলিভিশন একাত্তর টিভির টকশোতে মাসুদা ভাট্টি ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে প্রশ্ন করেছিলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বলা হচ্ছে যে, আপনি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে জামায়াতের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত থাকেন। আসলেই আপনি জামায়াতের প্রতিনিধি হিসেবে ওখানে উপস্থিত থাকেন কি না?’

এই প্রশ্নের জবাবে মইনুল বলেন, ‘আপনার দুঃসাহসের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। আপনি চরিত্রহীন বলে আমি মনে করতে চাই। আমার সঙ্গে জামায়াতের কোনো কানেকশন নেই। আপনার এ প্রশ্ন আমার জন্য অত্যন্ত বিব্রতকর।’

পরদিন আপত্তিকর মন্তব্যে ক্ষুব্ধ মাসুদা ভাট্টি তা প্রত্যাখান করে ব্যরিস্টার মঈনুলকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান। এছাড়াও ব্যারিস্টার মইনুলকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি তোলেন নারী সাংবাদিকরা।

এঘটনায় ফোন ও বিবৃতি প্রকাশ করে দুঃখ প্রকাশ করলেও রবিবার (২১ অক্টোবর) আদালতে মানহানির মামলা করেন সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি। এছাড়াও একই অভিযোগে জামালপুর ও কুড়িগ্রামে ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। তবে ওইদিনই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এই অন্যতম উদ্যোক্তাকে ৫ মাসের আগাম জামিন দিয়েছেন বিচারপতি মুহাম্মদ আবদুল হাফিজ ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের হাইকোর্ট বেঞ্চ ।






Related News

Comments are Closed