Main Menu
শিরোনাম
বিএনপি প্রার্থীর গাড়িবহর থেকে ১৫ নেতাকর্মী আটক         ড. মোমেনের নির্বাচনী কার্যালয় ও প্রচার গাড়িতে হামলার অভিযোগ         অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ইলিয়াসপত্নী লুনা         কুলাউড়ায় ইউপি চেয়ারম্যান কমরু গ্রেপ্তার         সিলেটে ৩০ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন         সুনামগঞ্জে ১৫ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন         বিশ্বনাথে অটোরিকশা চালক হত্যার ঘটনায় মামলা         বিশ্বনাথে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি বাড়িয়েছে শীতের অনুভূতি         দিরাইয়ে আ’লীগের ৩শ’ নেতাকর্মীর বিএনপিতে যোগদান         স্কুলের ফ্লোর ধ্বসে শিক্ষকসহ ২০ শিক্ষার্থী আহত         লোভাছড়া পাথর কোয়ারীতে প্রশাসনের অভিযান         ছাতক ও বড়লেখায় তিন জামায়াত নেতা গ্রেপ্তার        

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্বামী হত্যায় স্ত্রীসহ ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত: ৬:০০:৫৫,অপরাহ্ন ০৯ অক্টোবর ২০১৮ | সংবাদটি ৪১ বার পঠিত

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় স্বামীকে হত্যার দায়ে স্ত্রীসহ চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার (৯ অক্টোবর) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ শেখ সুলতানা রাজিয়া নয় বছর আগের এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- নবীনগর উপজেলার জালশুকা গ্রামের আবুল খায়ের, গোলাপ মিয়া ও দোহা ওরফে দুইখ্যা ও কোহিনূর বেগম।

তাদের মধ্যে আবুল খায়ের ছাড়া অন্য সবাই পলাতক রয়েছেন। এছাড়া এ মলায় মোখলেছুর রহমান ও আল আমিন নামে দুই আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পিপি দ্বীন ইসলাম বলেন, নবীনগর উপজেলার আমতলি গ্রামের আবদুল বারেক খানের ছেলে মো. শাহজাহান খান ২০০৯ সালের ২ ডিসেম্বর খুন হন। সৌদি প্রবাসী শাহজাহান ছুটিতে বাড়ি এসেছিলেন। বাড়িতে আসার পর থেকে স্ত্রী কোহিনূরের পরকীয়া নিয়ে মনোমালিন্য চলছিল। ২ ডিসেম্বর রাত ১২টার দিকে শাহজাহানের চিৎকার শুনে তার বাবা বারেক গিয়ে বিছানায় গলাকাটা লাশ দেখতে পান। এ সময় ওই ঘরে তাদের তিন শিশুসন্তানও ছিল।

এ ঘটনায় পুত্রবধূ কোহিনূরকে প্রধান আসামি করে হত্যা মামলা করেন বারেক খান। পুলিশ ছয়জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়।

গ্রেপ্তারের পর কোহিনূর আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দেন জানিয়ে পিপি দ্বীন ইসলাম বলেন, পরে কোহিনূর জামিন পেয়ে পালিয়ে যান। আসামিরা গ্রেপ্তার হওয়ার পর রায় কার্যকর হবে।

আসামিপক্ষের আইনজীবী এ কে এম আবদুল হাই জানান, আসামিরা এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।






Related News

Comments are Closed