Main Menu
শিরোনাম
হবিগঞ্জে বাস চাপায় স্কুল ছাত্র নিহত         কুলাউড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে স্কুলছাত্রের মৃত্যু         শ্রীমঙ্গলে কলা পাতা দিয়ে ঢাকা নারীর লাশ         কোম্পানীগঞ্জে পাথরের গর্তে নেমে শ্রমিক নিহত         শ্রীমঙ্গলে চলতি মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড         বিশ্বনাথে ৬ জুয়াড়ি আটক         শ্রীমঙ্গলে ধরা পড়ল ৮ ভূয়া পিইসি পরীক্ষার্থী         ওসমানীনগরে কিশোরীর আত্মহত্যা         প্রবাসী স্ত্রীকে লাইভে রেখে স্বামীর আত্মহত্যা!         বিশ্বনাথের রামপাশা-বৈরাগীবাজার রাস্তার বেহাল দশা         ফেঞ্চুগঞ্জে ট্রেনে কাটা পড়ে বৃদ্ধের মৃত্যু         বাহুবলে ট্রাকচাপায় স্কুলছাত্র নিহত        

একসঙ্গে ৬ মৃত সন্তান প্রসব!

প্রকাশিত: ১১:০০:১৯,অপরাহ্ন ১৫ আগস্ট ২০১৮ | সংবাদটি ৮৫ বার পঠিত

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: একসঙ্গে ৬টি অপরিপক্ব ও মৃত সন্তানের জন্ম দিয়েছেন মাহিনুর আক্তার (২৮) নামে এক গৃহবধূ। বুধবার (১৫ আগস্ট) বিকালে আশুগঞ্জের নুর মেডিকেল সেন্টার নামে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে এ সন্তানগুলোর জন্ম হয়।

তবে নির্ধারিত সময়ের প্রায় অর্ধেক সময়ের আগেই ভূমিষ্ঠ হওয়ায় এসব সন্তানের কিছুটা শারীরিক গঠন ও লিঙ্গ হলেও পরিপক্বতা হয়নি।

মৃত সন্তানের জন্ম দেয়া মাহিনুর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার শাখাইতি গ্রামের মো. আব্বাস আলীর মেয়ে এবং একই উপজেলার দেউবাড়িয়া গ্রামের সৌদিপ্রবাসী আবুল কালামের স্ত্রী।

জানা গেছে, প্রায় চার বছর আগে সরাইল উপজেলার শাখাইতি গ্রামের আব্বাস আলীর মেয়ে মাহিনুরের সঙ্গে একই উপজেলার দেউবাড়িয়া গ্রামের লাবু মিয়ার সৌদিপ্রবাসী ছেলে আবুল কালামের বিয়ে হয়।

বিয়ের প্রায় এক বছর পর কালাম দেশে আসেন এবং ৪-৫ মাস অবস্থান করলেও এ দম্পতির কোনো সন্তান হয়নি। পরে কালাম বিদেশে চলে গেলে উভয় পরিবারের লোকজন সন্তানের জন্য মাহিনুরকে বিভিন্ন কবিরাজি ওষুধ খাওয়ান। প্রায় ২ বছর পর কালাম আবারও দেশে আসলে তার স্ত্রী মাহিনুর সন্তান ধারণ করেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, মাহিনুরের সন্তানধারণের সময় প্রায় ৫ মাস চলে। বর্তমানে তার স্বামী বিদেশে অবস্থান করছেন।

গত মঙ্গলবার বিকালে খাবারের পর মাহিনুরের শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়। পরে তাকে বুধবার সকালে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে আসা হয়। চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মাহিনুরের গর্ভে ৪টি সন্তান থাকতে পারে বলে জানান।

এদিকে চিকিৎসক দেখানোর পর বিকালে বাড়ি ফেরার পথে নৌকায় উঠতে গেলে তার আবার শারীরিক সমস্যা দেখা দেয় এবং নৌকাতেই একটি সন্তান প্রসব হয়। পরে তাকে দ্রুত নুর মেডিকেল সেন্টারে আনা হলে চিকিৎসকের সহায়তায় একে একে আরও ৫টি সন্তান প্রসব হয়।

চিকিৎসক জানান, কোনো প্রকার অস্ত্রোপচার ছাড়াই (৪টি ছেলে ও ২টি মেয়ে) ৬টি অপরিপক্ব বাচ্চা ভূমিষ্ঠ হয়েছে। সব বাচ্চার কেবল হাত-পাসহ শারীরিক গঠন হয়েছে।

মাহিনুরের বাবা আব্বাস আলী ও শুশুর লাবু মিয়া বলেন, সন্তানের জন্য মাহিনুরকে তার মা ও শাশুড়ি কিছু কবিরাজি ওষুধ খাইয়েছিলেন।

এ ব্যাপারে নুর মেডিকেল ক্লিনিকের চিকিৎসক শাহান আরা জানান, গর্ভধারণে সহায়ক যে কোনো ওষুধ গ্রহণসহ নানা কারণে মাতৃগর্ভে একাধিক ভ্রূণের জন্ম হতে পারে। মাত্র ৪-৫ মাস বয়সী এ বাচ্চাগুলোর শারীরিক গঠন পূর্ণাঙ্গতা পায়নি। ফলে তারা মৃত অবস্থায় ভূমিষ্ঠ হয়েছে। বর্তমানে মায়ের শারীরিক অবস্থা মোটামুটি ভালো।






Related News

Comments are Closed