Main Menu
শিরোনাম
সম্মেলন সফলে বাউল কল্যাণ সমিতির সভা         দুই বছরেও উদ্ধার হওয়া লাশের পরিচয় মিলেনি         বিশ্বনাথে রুমি হত্যাকারীর ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন         ওসমানীনগরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০         কমলগঞ্জে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে তরুণীর মৃত্যু         বিয়ানীবাজারে অটোরিকশার ধাক্কায় বৃদ্ধের মৃত্যু         শাহ্ আরফিনে টাস্কফোর্সের অভিযানে পে-লোডার জব্দ         সিলেটে অগ্নিকান্ডে ৫টি দোকান ও ৩টি ঘর ভস্মিভূত         তামাবিল স্থল বন্দরে প্রশাসনিক ভবনের উদ্বোধন         সিকৃবিতে স্বয়ংক্রিয় কৃষি-আবহাওয়া স্টেশন স্থাপিত         ফেঞ্চুগঞ্জে ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের মৃত্যু         সুরমা নদীতে নিখোঁজ যুবকের লাশ উদ্ধার        

ঢাবি হলের ২৫ ছাত্রীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

প্রকাশিত: ২:২৭:৫০,অপরাহ্ন ১৮ মে ২০১৮ | সংবাদটি ৮৯ বার পঠিত

বৈশাখী নিউজ ডেস্ক: কোটা সংস্কার আন্দোলন চলাকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি সুফিয়া কামাল হলে ছাত্রলীগের সভাপতি ইফফাত জাহানকে ‘পরিকল্পিতভাবে লাঞ্ছিত ও মারধর করার অপরাধে’ ২৫ ছাত্রীকে কারণ দর্শাতে বলেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (১৭ মে) হলের কার্যালয়ে ছাত্রীদের ডেকে কারণ দর্শানোর এ নোটিশ দেওয়া হয়। নোটিশে বিভ্রান্তিকর তথ্য পরিবেশন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারেরও ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার প্রক্টর কার্যালয় থেকে পাঠানো ওই নোটিশে বলা হয়েছে, ‘আপনি ওই রাতে ছাত্রীদের মধ্যে পরিকল্পিতভাবে মিথ্যা, অসত্য ও গুজব রটিয়েছেন। পূর্বপরিকল্পনা অনুসারে সংঘবদ্ধ হয়ে ইফফাতকে মারধর ও লাঞ্ছিত করেছেন। জোরপূর্বক তাঁকে জুতার মালা পরিয়েছেন।’

ছাত্রীদের কাছ থেকে দুই সপ্তাহের মধ্যে এই নোটিশের জবাব চাওয়া হয়েছে। নোটিশে বলা হয়, ওই ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি ছাত্রীদের সম্পৃক্ততার প্রমাণ পেয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় শৃঙ্খলা পরিষদ ও সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্তের আলোকে কেন তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, এই ছাত্রীদের আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্রিয়ার একটি অংশ।

উল্লেখ্য, কোটা সংস্কার আন্দোলনে যোগ দেওয়ায় কয়েকজন ছাত্রীকে কক্ষে আটকে নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে ইফফাতের বিরুদ্ধে। শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে গত ১০ এপ্রিল রাতে সুফিয়া কামাল হল থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়। গভীর রাতে ছাত্রীরা তাকে কক্ষে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ শুরু করেছিলেন। ছাত্রলীগ, হল ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ওই সময় তাকে বহিষ্কার করা হলেও পরে তা প্রত্যাহার করা হয়। উল্টো ২৬ ছাত্রীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়। যদিও ছাত্রীরা বলেছেন, ইফফাতের নির্যাতনের প্রতিবাদে তাঁরা ক্ষুব্ধ হয়ে তাঁকে বহিষ্কারের দাবি করেছিলেন।






Related News

Comments are Closed