Main Menu
শিরোনাম
কোম্পানীগঞ্জে যুবককে পিটিয়ে হত্যা         দক্ষিন সুরমায় রিক্সাচালককে পিটিয়ে হত্যা, গ্রেপ্তার ১         গোয়াইনঘাটে বাড়ির সীমানা নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১         বিশ্বনাথে বিএনপি নেতা ফয়জুর রহমানের ইন্তেকাল         শমশেরনগরে রেলওয়ের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান         বিশ্বনাথে ৯টি ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে জরিমানা         বালাগঞ্জে ডাকাতি, গৃহকর্তাসহ আহত ৪         কমলগঞ্জে আবেদনের ৫ মিনিটেই বিদ্যুৎ সংযোগ         বাংলাদেশের প্রথম ডিজিটাল সিটি হবে সিলেট: পররাষ্ট্রমন্ত্রী         বিশ্বনাথে ভারতীয় মদসহ আটক ১         তাহিরপুরে চার বছরের শিশুকে ধর্ষণ, আটক ১         গোয়াইনঘাটে ব্রীক ফিল্ডে শ্রমিক নিহত        

পাঁচবিবিতে ৩৪টি স্কুলে প্রধান শিক্ষক পদ শূন্য

প্রকাশিত: ৮:৩৩:২৬,অপরাহ্ন ২০ এপ্রিল ২০১৮ | সংবাদটি ৯১ বার পঠিত

মোঃ অালী হাসান: জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে ৯৬টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ৩৪টিতে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য।
অবসর জনিত ও সিনিয়র শিক্ষকদের পদোন্নতি জটিলতার কারণে এসব বিদ্যালয়ে দীর্ঘ দিন ধরে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে। এসব বিদ্যালয়ে একজন সহকারী শিক্ষককে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব দিয়ে দাপ্তরিক কাজ চালানো হচ্ছে। এতে বিদ্যালয়ের
প্রশাসনিক কাজসহ শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা বিঘ্নিত হচ্ছে। প্রধান শিক্ষক না থাকায় প্রায়ই বিদ্যালয়ের কাজে উপজেলা শিক্ষা অফিসসহ বিভিন্ন জায়গায় যেতে হয়। এতে দুইজন শিক্ষকের ঘাটতি পড়ে যায়। আবার ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে অনেকে মানতেও চায়না। ফলে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় বিঘ্ন ঘটে। আগে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার প্রস্তাব অনুযায়ী
জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সিনিয়র সহকারী শিক্ষকদের পদোন্নতি দিয়ে আসতেন। বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের পদটি দ্বিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত হওয়ায় পদোন্নতির বিষয়টি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওপর ন্যস্ত। এতে করে সিনিয়র সহকারী শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতির বিষয়টি দীর্ঘসূত্রতার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে প্রশাসনিক কার্যক্রমে জটিলতাসহ পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। বিশেষ করে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য থাকায় চার শিক্ষকের বিদ্যালয় গুলিতে পড়ালেখায় হ-য-ব-র-ল অবস্থা বিরাজ করছে। ঠিক মতো ক্লাস না হওয়ায় অভিভাবকরা ক্ষিপ্ত।
পাঁচবিবি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সোলাইমান মিঞা পাঠদান ব্যাহত হওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য থাকা বিদ্যালয়ের তালিকা সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন
কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে।






Related News

Comments are Closed