Main Menu
শিরোনাম
সুনামগঞ্জ সফরে ভারতীয় হাই কমিশনার         বিশ্বনাথে মেছো বাঘ আটক         ছাতকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষাথীদের বিদায়ী অনুষ্টান         জৈন্তাপুরে ট্রাক চাপায় শিশু নিহত, অাহত ৫         ছাতকে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু         লাউড় রাজ্যের রাজবাড়িতে প্রত্নতত্ব অধিদপ্তরের উৎখনন         সিলেটে মাজার জিয়ারতে স্পিকার শিরীন শারমিন         সুনামগঞ্জ সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ’র পতাকা বৈঠক         জাফলংয়ে ভারতীয় তীর খেলার বইসহ আটক ২         কমলগঞ্জে চার খাবার হোটেলে জরিমানা         প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদকের মুক্তির দাবিতে সুনামগঞ্জে মানববন্ধন         হবিগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে ডাকাতি        

দিবা হত্যার বিচার দাবিতে স্মৃতিসৌধে মোমবাতি প্রজ্বলন

প্রকাশিত: ১১:৪২:৩৪,অপরাহ্ন ১৯ অক্টোবর ২০১৭ | সংবাদটি ২৫৬ বার পঠিত

সারোয়ার জাহান সাগর, গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি: সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের সি এস ই বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী দিল আফরোজ দিবার মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবীতে মোমবাতি প্রজ্বলন কর্মসূচি পালন করেছে গণবি শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (১৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধের মূল ফটকে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েক শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেন।

বক্তারা বলেন, আমরা আজ সহপাঠী হত্যার বিচার চাইতে এসেছি। দিবা মেধাবী ছাত্রী ছিলো, পড়ালেখার প্রতি সে সিরিয়াস ছিলো, এমন মেয়ে আত্মহত্যা করতে পারে না। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিলো, তাকে যৌতুকে দাবীতে হত্যা করা হয়েছে, তারা অবিলম্বে হত্যাকারীদের বিচারের আওতায় এনে ফাঁসির দাবী জানান, হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার না হলে তাদের এই অন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে জানান।

জানা যায়, গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের সি এস ই বিভাগের শিক্ষার্থী দিল আফরোজ দিবার ২০১৬ সালের মে মাসে সাভারের সবুজবাগ এলাকার সাদিকুর রহমানের ছেলে ফিরোজ কবীরের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর দিবা ও ফিরোজ আলাদা বাসা নিয়ে থাকত। দিবার পড়াশোনার সমস্ত খরচ দিবার বাবা চালালেও সম্প্রতি তৃতীয় বর্ষ ফাইনাল পরিক্ষার ফর্ম ফিলআপ করতে বাধা দিচ্ছিল দিবার স্বামী ফিরোজ। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বেশ কয়েকবার ঝগড়া হয়েছে বলেও জানান দিবার সহপাঠীরা।

উল্লেখ্য; গত ১৪ সেপ্টেম্বর আসামী ফিরোজ কবির (২২) সহ সহযোগীরা দিল আফরোজ দীবাকে হত্যাকরে বলে মামলার এজাহারে বলা হয়। এ বিষয়ে সাভার মডেল থানায় ফিরোজ কবির, সাদিকুর রহমান, ফিরোজা বেগম, শাহনাজ, মোক্তার বিশ্বাস এর নামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা গ্রহণ করা হয়।






Related News

Comments are Closed